• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • SUDIP BANERJEE CALLS OM BIRLA TO DISMISS SUNIL MONDAL AND SISIR ADHIKARI AS MP DMG

সুনীল- শিশিরের সাংসদ পদ খারিজ হোক, ওম বিড়লাকে ফের ফোন সুদীপের

সুনীল কুমার মণ্ডল ও শিশির অধিকারী৷

শিশির অধিকারী (Sisir Adhikari) ও সুনীল কুুমার মণ্ডলের (SunilKumar Mondal) বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করে তাঁদের সাংসদ পদ খারিজ করার আর্জি জানিয়ে এর আগে লোকসভার অধ্যক্ষকে চিঠি লিখেছিলেন লোকসভায় তৃণমূলের দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়৷

  • Share this:

    #কলকাতা: রাজ্যে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করার চ্যালেঞ্জ ছুড়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী৷ মুকুল রায় তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পরই এই হুঁশিয়ারি দেন বিরোধী দলনেতা৷ এবার পাল্টা দুই তৃণমূল সাংসদ সুনীল কুমার মণ্ডল এবং শিশির অধিকারীর বিরুদ্ধেই এই আইন কার্যকর করার জন্য ফের লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লাকে তাগাদা দিলেন তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়৷

    গত ডিসেম্বর মাসেই শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে মেদিনীপুরে অমিত শাহের উপস্থিতিতে বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলেন বর্ধমান পূর্বের তৃণমূল সাংসদ সুনীল কুমার মণ্ডল৷ তবে কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারী আনুষ্ঠানিক ভাবে বিজেপি-তে যোগ না দিলেও শুভেন্দুর দলবদলের পর শাসক দলের সঙ্গে তাঁরও সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছে৷ ভোট প্রচারের সময় নরেন্দ্র মোদি এবং অমিত শাহের সভাতেও হাজির ছিলেন শিশির৷

    এই দুই সাংসদের বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করে তাঁদের সাংসদ পদ খারিজ করার আর্জি জানিয়ে এর আগে লোকসভার অধ্যক্ষকে চিঠি লিখেছিলেন লোকসভায় তৃণমূলের দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এর পর ফোনেও একই দাবি করেছিলেন তিনি৷ তার পরে অনেক দিন কেটে গেলেও লোকসভার অধ্যক্ষ এ বিষয়ে কোনও পদক্ষেপ করেননি৷ তাই আবারও ফোন করে বিষয়টি নিয়ে উদ্যোগী হতে ওম বিড়লাকে অনুরোধ করেছেন সুদীপ৷

    সূত্রের খবর, ওম বিড়লা বিড়লা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানিয়েছেন, এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য তিনি একটি কমিটি গঠন করবেন৷ যদিও কোনও সাংসদের বিরুদ্ধে দল বিরোধী আইন কার্যকর করার সিদ্ধান্ত স্পিকার নিজেই নিতে পারেন৷ সেই ক্ষমতাও রয়েছে তাঁর৷ কিন্তু এ ক্ষেত্রে কমিটি গঠন করে আসলে বিষয়টিকে দীর্ঘায়িত করা হল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷

    এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে সাংসদ সুনীল কুমার মণ্ডল জানিয়েছেন, সাংসদ পদে তিনি ইস্তফা দেবেন কি না দু' তিন দিনের মধ্যে সে বিষয়ে তিনি সিদ্ধান্ত নিয়ে জানিয়ে দেবেন৷ অন্য দিকে শিশির অধিকারী ঘনিষ্ঠ মহলে জানিয়েছেন, তিনি সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার মতো কোনও কাজ করেননি৷ তবে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন লোকসভার অধ্যক্ষ৷

    Abir Ghosal/Rajib Chakraborty

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: