corona virus btn
corona virus btn
Loading

ফণী বাংলাদেশে ঘুরলেও প্রশাসনকে সতর্ক থাকার নির্দেশ, বিধ্বস্ত এলাকা দ্রুত ফিরবে ছন্দে, আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রীর

ফণী বাংলাদেশে ঘুরলেও প্রশাসনকে সতর্ক থাকার নির্দেশ, বিধ্বস্ত এলাকা দ্রুত ফিরবে ছন্দে, আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রীর
  • Share this:

#কলকাতা: ওড়িশায় দাপিয়ে বাংলা ঢুকে শক্তি হারায় ঘূর্ণিঝড় ফণী। শুক্রবার রাত বারোটার পর ওড়িশা থেকে খড়গপুর হয়ে বাংলায় ঢোকে ঘূর্ণিঝড় ৷ তবে, শক্তি কম থাকায় ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সামান্যই ৷ দুর্বল ফণী আর কলকাতামুখো হয়নি ৷ আরামবাগ, নদিয়া হয়ে আরও গতি কমিয়ে বাংলাদেশে ঢুকে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে ফণী ৷

ফণীতে বিধ্বস্ত বাংলার একাংশ ৷ কৃষিজ ফসলে ব্যপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ভাঙড়ে ৷ নষ্ট হয়েছে প্রচুর কলা গাছ ও বিপুল পরিমাণে পাকা ধান, উচ্ছে, ঝিঙে, শসা-সহ বেশ কিছু মরসুমি কৃষিজ ফসল ৷ অন্যদিকে, ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে উত্তর এবং দক্ষিণ চব্বিশ পরগণাও ৷ তবে, ফণীর জেরে রাতভর সজাগ ছিল প্রশাসন ৷ প্রতিটি মুহূর্তের উপর কড়া নজর রেখেছিলেন প্রশাসনের আধিকারিকরা ৷ বাংলাদেশের দিকে ঘুরে গেলেও বিপর্যয়-পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে সতর্ক রয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ শনিবার বিকেল পর্যন্ত যেকোনও মুহূর্তে আবারও ঝড়বৃষ্টি হতে পারে রাজ্যে ৷ সেই কারণে নেওয়া হয়েছে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ ৷

এই প্রসঙ্গে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘কয়েক মিনিটের বিধ্বংসী ঝড়ে রাজ্যজুড়ে বেশ কিছু সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে ৷ গাছপালা রাস্তার উপর উপড়ে পড়েছে ৷ ভেঙে পড়েছে ১২টি কাঁচা বাড়ি ৷ এছাড়াও প্রায় ৮০০ টি বাড়ি কমবেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৷ তবে, সেই সমস্ত বাড়ি এবং রাস্তাঘাট দ্রুত পুনর্নিমাণের চেষ্টা করা হচ্ছে ৷ রাস্তায় উপচে পড়া গাছ দ্রুত সরানো হচ্ছে ৷’

অন্যদিকে, ঝোড়ো হাওয়ার দাপটে দীঘা, মন্দারমনি এবং ডায়মন্ড হারবার ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৷ বেশ কয়েকটি জায়গায় বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে পড়েছে ৷ ফলে বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে বিস্তীর্ণ এলাকা ৷ দ্রুত তা মেরামতের চেষ্টা করা হচ্ছে ৷ আগামী দু’দিনের মধ্যেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে ৷

মমতার দাবি, ‘আবহাওয়া দফতরের সঠিক পূর্বাভাসের জন্য প্রায় ৪২ হাজার জনকে দ্রুত নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল ৷ আগামী দু’দিনের মধ্যেই ঘরছাড়া মানুষজনকে দ্রুত ঘরে ফিরিয়ে দেওয়া হবে ৷ গত এক সপ্তাহ ধরেই আমি খুব চিন্তিত ছিলাম ৷ প্রতিটি মুহূর্তের উপর নজর রাখা হচ্ছে ৷ কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম গোটা বিষয়টির উপর নজর রেখেছিলেন ৷ প্রশাসন প্রতিটি বিষয়েই যথাযথ পদক্ষেপ নিয়েছে ৷ এছাড়াও রাজ্যের সাধারণ মানুষের সহযোগিতার জন্যও তাদের সকলকে অনেক ধন্যবাদ ৷’

First published: May 4, 2019, 3:55 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर