ফণী বাংলাদেশে ঘুরলেও প্রশাসনকে সতর্ক থাকার নির্দেশ, বিধ্বস্ত এলাকা দ্রুত ফিরবে ছন্দে, আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রীর

ফণী বাংলাদেশে ঘুরলেও প্রশাসনকে সতর্ক থাকার নির্দেশ, বিধ্বস্ত এলাকা দ্রুত ফিরবে ছন্দে, আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রীর
  • Share this:

#কলকাতা: ওড়িশায় দাপিয়ে বাংলা ঢুকে শক্তি হারায় ঘূর্ণিঝড় ফণী। শুক্রবার রাত বারোটার পর ওড়িশা থেকে খড়গপুর হয়ে বাংলায় ঢোকে ঘূর্ণিঝড় ৷ তবে, শক্তি কম থাকায় ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সামান্যই ৷ দুর্বল ফণী আর কলকাতামুখো হয়নি ৷ আরামবাগ, নদিয়া হয়ে আরও গতি কমিয়ে বাংলাদেশে ঢুকে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে ফণী ৷

ফণীতে বিধ্বস্ত বাংলার একাংশ ৷ কৃষিজ ফসলে ব্যপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ভাঙড়ে ৷ নষ্ট হয়েছে প্রচুর কলা গাছ ও বিপুল পরিমাণে পাকা ধান, উচ্ছে, ঝিঙে, শসা-সহ বেশ কিছু মরসুমি কৃষিজ ফসল ৷ অন্যদিকে, ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে উত্তর এবং দক্ষিণ চব্বিশ পরগণাও ৷ তবে, ফণীর জেরে রাতভর সজাগ ছিল প্রশাসন ৷ প্রতিটি মুহূর্তের উপর কড়া নজর রেখেছিলেন প্রশাসনের আধিকারিকরা ৷ বাংলাদেশের দিকে ঘুরে গেলেও বিপর্যয়-পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে সতর্ক রয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ শনিবার বিকেল পর্যন্ত যেকোনও মুহূর্তে আবারও ঝড়বৃষ্টি হতে পারে রাজ্যে ৷ সেই কারণে নেওয়া হয়েছে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ ৷

এই প্রসঙ্গে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘কয়েক মিনিটের বিধ্বংসী ঝড়ে রাজ্যজুড়ে বেশ কিছু সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে ৷ গাছপালা রাস্তার উপর উপড়ে পড়েছে ৷ ভেঙে পড়েছে ১২টি কাঁচা বাড়ি ৷ এছাড়াও প্রায় ৮০০ টি বাড়ি কমবেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৷ তবে, সেই সমস্ত বাড়ি এবং রাস্তাঘাট দ্রুত পুনর্নিমাণের চেষ্টা করা হচ্ছে ৷ রাস্তায় উপচে পড়া গাছ দ্রুত সরানো হচ্ছে ৷’

অন্যদিকে, ঝোড়ো হাওয়ার দাপটে দীঘা, মন্দারমনি এবং ডায়মন্ড হারবার ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৷ বেশ কয়েকটি জায়গায় বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে পড়েছে ৷ ফলে বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে বিস্তীর্ণ এলাকা ৷ দ্রুত তা মেরামতের চেষ্টা করা হচ্ছে ৷ আগামী দু’দিনের মধ্যেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে ৷

মমতার দাবি, ‘আবহাওয়া দফতরের সঠিক পূর্বাভাসের জন্য প্রায় ৪২ হাজার জনকে দ্রুত নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল ৷ আগামী দু’দিনের মধ্যেই ঘরছাড়া মানুষজনকে দ্রুত ঘরে ফিরিয়ে দেওয়া হবে ৷ গত এক সপ্তাহ ধরেই আমি খুব চিন্তিত ছিলাম ৷ প্রতিটি মুহূর্তের উপর নজর রাখা হচ্ছে ৷ কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম গোটা বিষয়টির উপর নজর রেখেছিলেন ৷ প্রশাসন প্রতিটি বিষয়েই যথাযথ পদক্ষেপ নিয়েছে ৷ এছাড়াও রাজ্যের সাধারণ মানুষের সহযোগিতার জন্যও তাদের সকলকে অনেক ধন্যবাদ ৷’

First published: 03:54:27 PM May 04, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर