corona virus btn
corona virus btn
Loading

৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত ছাড় পাবে স্কুলবাস, সময়সীমা বেঁধে দিল রাজ্য 

৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত ছাড় পাবে স্কুলবাস, সময়সীমা বেঁধে দিল রাজ্য 
ছবি: সংগৃহীত ৷

ফিটনেস পরীক্ষার পাশাপাশি, দূষণ মাপাও হবে। ফেল করলে কড়া ব্যবস্থা নেবে রাজ্য সরকার।    

  • Share this:

ABIR GHOSHAL

#কলকাতা: স্কুল বাস নিয়ে এবার আরও কড়া হল রাজ্য পরিবহন দফতর। ৩১শে জানুয়ারির মধ্যে প্রয়োজনীয় শংসাপত্র জোগাড় করতে হবে স্কুলগুলিকে। ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে অভিযান শুরু করছে কলকাতা পুলিশ ও পরিবহণ দফতর।

কলকাতায় একাধিক স্কুলের বিরুদ্ধে তাদের বাস নিয়ে অভিযোগ জমা পড়েছে। প্রথম অভিযোগ দূষণ ঘিরে। দ্বিতীয় অভিযোগ, স্কুল বাসের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত  কোনও শংসাপত্র নেই স্কুলের কাছে ৷ সেখানে বলা হয়েছে, বিভিন্ন স্কুলে ১৫ বছরের বেশি পুরনো বাস চলছে ৷ বেলতলা, কসবা, বেহালা, সল্টলেক ৷ এই চার জায়গার মোটর ভেহিক্য়ালস অফিসের রিপোর্টে রয়েছে,  শহরের ১৫৩ টি স্কুলের ৮৩৭টি বাস শিশুদের নিয়ে রাস্তায় নামে ৷ এর মধ্য়ে ৪৬৭টি বাসের বয়স ১০ বছরের বেশি ৷ শেষ হয়ে গিয়েছে ফিটনেস সার্টিফিকেটের মেয়াদও ৷  চারটি মোটর ভেহিক্য়ালস অফিসের তরফে বিভিন্ন স্কুলে যোগাযোগ করা হয়েছে ৷ কিন্তু স্কুলের তরফে কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি বলে অভিযোগ ৷ তাই বাধ্য় হয়ে ৩১ জানুয়ারির ডেডলাইন পরিবহণ দফতরের ৷

পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী জানিয়েছেন, "শিশুদের ভবিষ্যৎ জড়িয়ে আছে এরসঙ্গে। কোনওভাবেই রিসোল টায়ার বা ব্রেক ছাড়া স্কুল বাস রাস্তায় নামতে দেওয়া হবে না। নিরাপত্তা নিয়ে কোনও আপোষ আমরা করতে দেব না।" চিঠি পাঠিয়ে সতর্ক করা হয়েছে স্কুলগুলিকে। কিছু স্কুল জানিয়েছে, তাদের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে যাতায়াত করে বেসরকারি সংস্থার বাস। সেজন্য় স্কুল বাস সংগঠন কন্ট্র‍্যাক্ট ক্যারেজ অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে  যোগাযোগ রেখে চলেছে পরিবহণ দফতর। যদিও স্কুল বাস সংগঠন জানিয়েছে, তাদের সঙ্গে এমন কোনও স্কুল বাসের সম্পর্ক নেই। নিয়ম না মেনে কোন কোন স্কুলবাস কলকাতার রাস্তায় চলছে, তা জানতে পুলিশের  সাহায্য নেবে পরিবহণ দফতর। যে সব স্কুল ডেডলাইন মানবে না, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্য়বস্থা নেবে প্রশাসন ৷ চোখে পড়লে প্রয়োজনে রাস্তাতেই থামিয়ে দেওয়া হবে বাস ৷ বাস নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনে হানা দেওয়া হতে পারে স্কুলেও ৷

First published: January 27, 2020, 7:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर