বেলুড় মঠে চলছে রামকৃষ্ণ দেবের আবির্ভাব তিথি উৎসব

বেলুড় মঠে চলছে রামকৃষ্ণ দেবের আবির্ভাব তিথি উৎসব

বেলুড়মঠে শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ দেবের ১৮৫ তম জন্মতিথি উৎসব। সকাল থেকেই ভক্তদের সমাগম।মঙ্গলবার অতীতে জন্মতিথি অনুষ্ঠানের সূচনা।

  • Share this:

#কলকাতা: বেলুড়মঠে শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ দেবের ১৮৫ তম জন্মতিথি উৎসব। সকাল থেকেই ভক্তদের সমাগম।মঙ্গলার অতীতে জন্মতিথি অনুষ্ঠানের সূচনা। সন্ধ্যারতি দিয়ে আজকের মত অনুষ্ঠানের শেষ হবে।

বেলুড়মঠে ঠাকুর পরমহংসদেবের জন্মতিথি উৎসব শুক্রবার পর্যন্ত চলবে। আজ সারাদিন ধর্মীয় গান সহ নানা অনুষ্ঠান মণ্ডপে। ঠাকুরের জীবনী নিয়ে সভা ও পাঠের আয়োজন। বুধবার ঠাকুরের জন্মতিথি উৎসব এর অঙ্গ হিসেবে বেলুড় মঠ ও মিশনের হবে যাত্রাভিনয়। বৃহস্পতিবার বিবেক ইন্দ্রজাল। আজ শুক্রবার উৎসবের শেষ দিনে হবে ভক্ত মহাসম্মেলন।

মঙ্গলবার ভোর থেকে শুরু হয়েছে ঠাকুর শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংসদেবের জন্মতিথি অনুষ্ঠান। ১৮৫ তম জন্মতিথি উৎসব উপলক্ষে বেলুড়ের রামকৃষ্ণ মঠ এ নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন। ভোর সাড়ে চারটে মঙ্গলারতি দিয়ে শুরু উৎসবের।

সকালেই শ্রী শ্রী ঠাকুরের মন্দিরে সকাল আটটা পর্যন্ত পুজো হোম সহ নানা অনুষ্ঠান।ভোর সাড়ে চারটে শ্রীশ্রী ঠাকুরের মন্দিরে মঙ্গলারতি চারটি ৪০ মিনিটে বেদ পাঠ ও তারপর সাড়ে পাঁচটা থেকে ৬:৩০ শ্রী শ্রী ঠাকুরের মন্দির প্রাঙ্গণে উষা কীর্তন সকাল সাতটা থেকে ঠাকুরের মন্দির এই বিশেষ পূজা ও হোম।

সভা মণ্ডপে এর পরের অনুষ্ঠান সকাল আটটা থেকে সারাদিন ব্যাপী। শুরুতেই শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ বন্দনা বেলুড় মঠের সন্ন্যাসী ব্রহ্মচারী বন্ধ করেন সকাল আটটা থেকে এক ঘণ্টা এরপর স্বামী দেবানন্দ শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ কথামৃত পাঠ ও ব্যাখ্যা করেন ভক্তিগীতি বাণী কুমার চট্টোপাধ্যায় এবং শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ লীলাপ্রসঙ্গ পাঠ ও ব্যাখ্যা দেবেন স্বামী অমিতেশ আনন্দ। এরপর বংশীবাদন ভজন হিন্দি ভজন গাইবেন ওঙ্কার দাদারকার এরপরে যন্ত্র সংগীত।

বিশেষ ধর্ম সভা যেখানে সভা মণ্ডপে বিকেলে শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ জীবন ও বাণী বিষয়ে আলোচনা করবেন সভাপতি স্বামী সুবির আনন্দ মহারাজ বক্তা থাকবেন স্বামী স্বামী স্বামী আত্মপ্রিয়ানান্ডা বাংলা ইংরেজি হিন্দি হবে ঠাকুরের জীবন ও বাণী এরপর সন্ধ্যারতি ঠাকুরের মন্দিরে সন্ধ্যে ছটা নাগাদ। এদিন বেশ কয়েকজন ব্রহ্মচারীকে সন্ন্যাসীতে উন্নীত করা হয়। সকাল সাড়ে এগারোটা থেকে বেলা দুটো পর্যন্ত মা সারদার সদাব্রত ভবনী প্রসাদ বিতরণ হবে ।

শুধু মঙ্গলবার এর অনুষ্ঠানই নয়।বুধবারও হবে যাত্রাভিনয় রত্নাকর গিরিশচন্দ্র স্বভাবের এই যাত্রা বীণা হবে সন্ধ্যা ৬:৪৫ মিনিট নাগাদ এই ছাড়াও বৃহস্পতিবার ওই একই সময়ে হবে বিবেক ইন্দ্রজাল দেখাবেন পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায় শুক্রবার অনুষ্ঠানের এই পর্বে শেষে ভক্ত সম্মেলন সকাল সাড়ে নটা থেকে।

ঠাকুরের জন্ম তিথি পরের রবিবার হয় সাধারণ উৎসব।এদিন বেলুড়ের সমস্ত ব্যবসায়ীরা ঠাকুর রামকৃষ্ণ মিশন মঠ এর ভেতরে তাদের পসরা সাজিয়ে বসতে পারেন।এছাড়াও বেলুড় মঠের চারিদিকেই ঠাকুর রামকৃষ্ণ পরমহংসদেবের জীবনী ও বাণী নানান প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। কামারপুকুরের গদাই কিভাবে ঠাকুর রামকৃষ্ণ হয়ে উঠলেন তার কাহিনী ছবি ও লেখায়।

আজ থেকে ১৮৪ বছর আগে ঠিক এই তিথিতে হুগলির কামারপুকুর এর রক্ষণশীল ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্ম হয় গদাধর চট্টোপাধ্যায়। গদাধর ওরফে গদাই হয়ে ওঠেন দার্শনিক ও যোগসাধক। গ্রাম্য সরল ভাষায় দর্শনের গ্যুঢ় তথ্য কে ভক্তদের সামনে তুলে ধরতেন ঠাকুর।ঠাকুরের সেই বাণীটি পাশ্চাত্যে পৌঁছে দেন তার যোগ্য শিষ্য বিবেকানন্দ শিকাগোর সভায়।

ঠাকুর রামকৃষ্ণদেবের বেশিরভাগ অংশ জুড়েই বেলুড়ের গঙ্গার ওপারে দক্ষিণেশ্বর। সেখান থেকে কাশীপুরে জীবনের শেষ কটাদিন কাটানো। রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের সাধারণ সম্পাদক সুবীরানন্দ জি মহারাজ বলেন সপ্তাহব্যাপী ঠাকুরের আবির্ভাব তিথি উৎসবে লাখো লোকের সমাবেশ হবে। আজ ও ঠাকুরের বাণী সবচেয়ে বেশি প্রাসঙ্গিক বলে মনে করেন তিনি। এজন্য হাজার হাজার পূণ্যার্থী ঠাকুরের আবির্ভাব তিথি উপলক্ষে প্রসাদ গ্রহণ করেন বেলুড় মঠ ও মন্দিরে। ভক্তদের প্রসাদী দিন ছিল খিচুড়ি চাটনি লাড্ডু ও লুচি।

 BISWAJIT SAHA

First published: February 25, 2020, 3:57 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर