• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • SONAMON MUKHOPADHYAY WIFE OF SHIRSHENDU MUKHOPADHYAY PASSED AWAY SWD

Shirshendu Mukhopadhyay: প্রয়াত সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্য়ায়ের স্ত্রী সোনামন মুখোপাধ্যায়, শোকপ্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীর

Shirshendu Mukhopadhyay: প্রয়াত সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের স্ত্রী সোনামন মুখোপাধ্যায় (Sonamon Mukhopadhyay)। বহু বছর ধরে ফুসফুসের সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি।

Shirshendu Mukhopadhyay: প্রয়াত সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের স্ত্রী সোনামন মুখোপাধ্যায় (Sonamon Mukhopadhyay)। বহু বছর ধরে ফুসফুসের সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি।

  • Share this:

    #কলকাতা: প্রয়াত সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের (Shirshendu Mukhopadhyay) স্ত্রী সোনামন মুখোপাধ্যায় (Sonamon Mukhopadhyay)। বহু বছর ধরে ফুসফুসের সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। সিওপিডি রোগে ভুগছিলেন তিনি বহু দিন ধরেই। শুক্রবার রাত ৯টা নাগাদ যোধপুর পার্কের বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮০।

    মৃত্যুর সময়ে সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্য়ায় ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা তাঁর সঙ্গেই ছিলেন বলে জানা যাচ্ছে। হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। হাসপাতালে নিয়ে যেতেই যেতেই মৃত্যু হয় তাঁর। কেওড়াতলা মহাশ্মসানে শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে তাঁর।

    সোনামন মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। মুখ্যমন্ত্রী তাঁর শোকবার্তায় জানিয়েছেন, "বিশিষ্ট সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের সহধর্মিণী সোনামন মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। তিনি আজ রাতে কলকাতায় প্রয়াত হন। মৃত্যুকালে আশি- উত্তীর্ণা, সাহিত্য-অনুরাগিণী ও সাহিত্যব্রতী সোনামন মুখোপাধ্যায় সাহিত্যের রসাস্বাদনে পারঙ্গম ছিলেন। তিনি নিজেও সাহিত্যের আসরে স্বকীয় স্বাক্ষর রেখেছেন। এক সময় শিক্ষকতা ও সংগীতচর্চার সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। আমার সঙ্গে তাঁর মধুর সম্পর্ক ছিল।"

    সেই বার্তায় তিনি আরও জানিয়েছেন, "তাঁর প্রয়াণ শিল্প ও সংস্কৃতি জগতে এক বিশেষ ক্ষতি। আমি শীর্ষেন্দুদাসহ সোনামন মুখোপাধ্যায়ের আত্মীয়-পরিজন ও অনুরাগীদের আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি।"

    প্রসঙ্গত, দেশ ভাগের পরে বাংলাদেশ থেকে কোচবিহারে চলে এসেছিলেন সোনামন মুখোপাধ্য়ায়। এর পরে সাহিত্যিকের সঙ্গে বিয়ে। প্রথমে শিলিগুড়ির বাড়িতেই সংসার পেতেছিলেন তিনি।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: