বিধায়ক হিসাবে এবার লড়াই শুরু করছেন শোভন জায়া রত্না চট্টোপাধ্যায়

বিধায়ক হিসাবে এবার লড়াই শুরু করছেন শোভন জায়া রত্না চট্টোপাধ্যায়

Ratna Chatterjee will now start new innings - File

এই নির্বাচনে শোভনবাবুর রাজনীতি থেকে দূরে সরে যাওয়া নিয়ে কোনও আলোচনা করতে চান না রত্না। তার আগ্রহ নেই সেই বিষয়ে। তার সাফ উত্তর, "শোভনবাবুকে দেখেছি কাউন্সিলর, বিধায়ক, মন্ত্রী থাকতে। ফলে জনপ্রতিনিধি হিসাবে কাজ কী, পদ্ধতি কী, সে ব্যাপারটা আমি জানি।"

  • Share this:

#কলকাতা:  দীর্ঘ দিন বাড়ির সদস্যকে দেখেছেন কাউন্সিলর, বিধায়ক, মন্ত্রী হয়ে শপথ নিতে। এবার নিজেই শপথ নিতে চলেছেন বিধায়ক হিসাবে। ব্যক্তিগত সম্পর্কের টানাপোড়েনে বদলে গিয়েছে বেহালার চট্টোপাধ্যায় পরিবার। রাজনীতির লড়াই থেকে  শত যোজন দূরে কলকাতার প্রাক্তন মেয়র, রাজ্যের প্রাক্তন  মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়। তার ছেড়ে যাওয়া কেন্দ্রে এবার তৃণমূলের হয়ে লড়াই করে জয় ছিনিয়ে এনেছেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। ফলে রাজনীতির ময়দানে তার এভাবে উপস্থিতি বদলে দিয়েছে তার জীবন।

যদিও বিধায়ক রত্না বলছেন, ‘‘আগেও মানুষের পাশে থেকে মানুষের জন্যে কাজ করেছি। আজও মানুষের পাশে থেকে মানুষের জন্যে কাজ করব।’’ শোভন চট্টোপাধ্যায়'র সাথে দীর্ঘ দিন ধরে সম্পর্ক নেই তার ওয়ার্ডের৷ শোভনের ওয়ার্ডের কাজ সামলান রত্না চট্টোপাধ্যায়। ফলে জনপ্রতিনিধি হিসাবে তার অভ্যাস হয়ে গেছে কাজ করার। যা অনেকটা রিহার্সালের মতো। অবশ্য দীর্ঘ দিন ধরেই তিনি শোভনবাবুকে দেখে আসছেন জনপ্রতিনিধি হিসাবে কাজ সামলাতে। মন্ত্রী হিসাবে সামলানোর কাজ তিনি সামনে থেকে দেখেছেন। ফলে জোড়া ফুল শিবিরের নব নির্বাচিত বিধায়ক সামলে নিতে পারবেন বলে আত্মবিশ্বাসী। এই নির্বাচনে শোভনবাবুর রাজনীতি থেকে দূরে সরে যাওয়া নিয়ে কোনও আলোচনা করতে চান না রত্না। তার আগ্রহ নেই সেই বিষয়ে। তার সাফ উত্তর, "শোভনবাবুকে দেখেছি কাউন্সিলর, বিধায়ক, মন্ত্রী থাকতে। ফলে জনপ্রতিনিধি হিসাবে কাজ কী, পদ্ধতি কী, সে ব্যাপারটা আমি জানি।" শোভন চট্টোপাধ্যায়কে অত্যন্ত স্নেহ করেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। তার প্রিয় কাননের ভোল বদল নিয়ে তিনিও ঘনিষ্ঠ মহলে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। শোভন চট্টোপাধ্যায়ের মোবাইলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম সেভ থাকত 'মা' বলে। সেই শোভন এখন তৃণমূল কংগ্রেস, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছেড়ে অনেক দূরে। তার রাজনৈতিক অবস্থানের চেয়ে তার বান্ধবীকে নিয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে সব মহলেই। বিজেপি নেতারাও শোভন-বৈশাখীর মানভঞ্জনে অনেক চেষ্টা করেছেন। কিন্তু এবার প্রার্থী হিসেবে তাদের নাম না থাকায় তাদের রাজনৈতিক অবস্থান বদলে গিয়েছে। আগামী ৭ তারিখ বিধায়ক হিসাবে শপথ নিতে পারেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। তারপরেই শুরু হবে বিধায়ক রত্নার রাজনীতিতে প্রথম ইনিংস। মমতা বন্দোপাধ্যায় অবশ্য প্রথম থেকেই রত্নাকে 'হেভিওয়েট' তকমা দিয়ে বসে আছেন।

ABIR GHOSHAL

Published by:Debalina Datta
First published:

লেটেস্ট খবর