• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • RAJ CHAKRABORTY WANTS TO MEET THE POOR TALENTED VIRAL VIOLIN PLAYER SR

Violin Player: কে এই হতদরিদ্র বেহালা বাদক, যাঁকে রাজ চক্রবর্তী খুঁজছেন হন্যে হয়ে

এতকিছুর পরেও হেলদোল নেই ভগবান মালির । আপনভোলা সেই শিল্পী নিজের সুরের জাদু ভাইরাসের মতো নিঃশব্দে ছড়িয়ে দিচ্ছেন শহরের ফুসফুসে ।

এতকিছুর পরেও হেলদোল নেই ভগবান মালির । আপনভোলা সেই শিল্পী নিজের সুরের জাদু ভাইরাসের মতো নিঃশব্দে ছড়িয়ে দিচ্ছেন শহরের ফুসফুসে ।

  • Share this:

    #কলকাতা: এ শহরের বুকে তিনি যেন ‘হ্যামলিনের বাঁশিওয়ালা’ । ধবধবে সাদা, উস্কোখুস্কো এক মাথা চুল...চোখ দু’টো কেমন আপনভোলা । ঈষৎ একটু ঘাড় বেঁকিয়ে সারাদিন সুরের বিনুনি আঁকেন তিনি জরাক্লান্ত এই শহরের বুকে । তাঁর মূর্চ্ছনার আশ্রয়ে যেন আদুরে ভালবাসা খুঁজে পান শ্রান্ত, পথচলতি সাধারণ মানুষ । তাঁর বেহালার আঁকিবুঁকিতে অনন্য মাত্রা পায় শিল্পীসত্ত্বা । গানের সুর এমনই, যা ভুলিয়ে দিতে পারে সব দুঃখ ৷ যা ভুলিয়ে দিতে পারে রোজকার জীবনের সব স্ট্রেস ৷ শুধু চোখ বুজে, মন ভরে শুনে যান ৷ আপনি চলে যাবেন অন্য এক জগতে ৷ আর আপনাকে অন্য জগতে নিয়ে যাওয়া দায়িত্বভার নিয়ে নিয়েছেন কলকাতা শহরের এক মিউজিশিয়ন বৃদ্ধ ! যিনি তাঁর বেহালাতে রোজ সুরের ঝড় তোলেন, ব্যস্ত শহরের বুকে অন্য এক জগত তৈরি করেন ৷ এখন তাঁকেই নাকি হন্যে হয়ে খুঁজছেন পরিচালক রাজ চক্রবর্তী ।

    কখনও লেক মলের পাশে, কখনও বিডন স্ট্রিটে... ৷ পরণে সাধারণ পোশাক ৷ নাম ভগবান মালী । রাস্তার এক কোণায় দাঁড়িয়ে নিজের মনেই বাজাতে থাকেন বেহালা ৷ কখনও ওপি নাইয়ারের ‘দিওয়ানা হুয়া বাদল’ তো কখনও মদন মোহনের ‘লগ জা গলে’ ৷ তাঁর সুরের মূচ্ছর্নায় এক জাদু ছড়িয়ে পড়ে ব্যস্ত কলকাতার বুকে৷ আর সেই সুরই এখন গোটা সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলছে ৷ ভিটেমাটি সবই মালদহে । বিবেকানন্দ রোডের ফুটপাতে দিন কাটে শিল্পীর । কখনও পথচারীরা থমকে দাঁড়ান, কখনও পাশ কাটিয়ে চলে যান....কিন্তু তাঁর বেহালার তারের ঝঙ্কার মনের মধ্যে রিনরিন করে বাজতেই থাকে । সুর যেন আর ফুরোয় না ।

    মেয়েকে দেখতে কলকাতা এসেছিলেন ভগবান ও তাঁর স্ত্রী । আর ফেরা হয়নি দেশের বাড়িতে, ছোট ছেলের কাছে । পেটের জ্বালা মেটাতে রাস্তায় বেহালা বাজান তিনি । বাজনার হাতেখড়ি হয়েছিল বাবার কাছে । বাবা মারা যাওয়ার পর সেই যন্ত্র এখন ভগবানের সর্বক্ষণের সঙ্গী । তাঁর বেহালা শুনে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছিলেন রূপম ইসলাম । খোঁজ চেয়ে পোস্ট করেছিলেন রূপঙ্করও । আর এখন কাজ দিতে চান রাজ চক্রবর্তী ।

    কিন্তু এতকিছুর পরেও হেলদোল নেই ভগবানের । আপনভোলা সেই শিল্পী নিজের সুরের জাদু ভাইরাসের মতো নিঃশব্দে ছড়িয়ে দিচ্ছেন শহরের ফুসফুসে ।

    Published by:Simli Raha
    First published: