‘একপেশে রাজনীতি বিশিষ্টদের’ রাহুল সিনহার নিশানায় শঙ্খ ঘোষ থেকে অমর্ত্য সেন

‘একপেশে রাজনীতি বিশিষ্টদের’ রাহুল সিনহার নিশানায় শঙ্খ ঘোষ থেকে অমর্ত্য সেন
  • Share this:

#কলকাতা: লক্ষ্য ছিল, বিদ্বজ্জনেদের বার্তা দেওয়া। কিন্তু, বিজেপি নেতা রাহুল সিনহার বক্তব্যের গুণে তা হয়ে দাঁড়াল হুঁশিয়ারি। রাহুলের অভিযোগ, একপেশে রাজনীতি করছেন বিদ্বজ্জনেরা। তাঁর নিশানায় শঙ্খ ঘোষ, অমর্ত্য সেন ও নবনীতা দেবসেন। রাহুলের মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন বিশিষ্টরা।

কখনও ব্যক্তিগত আক্রমণ। কখনও বা চামড়া গুটিয়ে নেওয়ার হুমকি। ভোটের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত, বারবারই মন্তব্য-বিতর্কে জড়িয়েছেন বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা। মঙ্গলবারও ফের একবার। এবার বিজেপি নেতার টার্গেট বিদ্বজ্জনেরা। এদিন রাহুল সিনহা বলেন, ‘যে সমস্ত বড়বড় বুদ্ধিজীবীরা কিছু একটা এদিক ওদিক হলেই বুদ্ধির ফোয়ারা ছোটান, তাঁরা কোথায়, যে ভাষা যে অপসংস্কৃতি, অপভাষা সংস্কৃতি মমতা ব্যবহার করছেন, কোথায় বুদ্ধিজীবীরা?’

বিদ্বজ্জনেদের বার্তা দেওয়া উদ্দেশ্য ছিল বিজেপির। কিন্তু, রাহুল সিনহার লাগামছাড়া মন্তব্যে তাতে হুঁশিয়ারির সুরই স্পষ্ট। তিনি বলেন, ‘শঙ্খ ঘোষের নাম করতে চাই, অমর্ত্য সেন একপেশে রাজনৈতিক কারণে নামেন ৷ নবনীতা দেবী, কোথায় মমতার ভাষা নিয়ে তো বলেন না, কারণ ভয় পাচ্ছেন ৷ শঙ্খ ঘোষকে বলছি, জীবনের শেষ বয়সে মমতার ভাষার বিরুদ্ধে নীরব কেন বুদ্ধিজীবীরা বুদ্ধিভ্রষ্ট কেন?’

মন্তব্যের ভাষা নিয়ে রাহুল সিনহাকে বিঁধেছেন বিশিষ্টরাও। তবে রাহুলের মন্তব্য নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে চাননি কবি শঙ্খ ঘোষ। একই কথা সাহিত্যিক নবনীতা দেবসেনেরও। বিদ্বজ্জনদের বার্তা দিতে চেয়েছিল বিজেপি। কিন্তু, তার সুর আসলে ক্ষমতার আস্ফালন বলে পাল্টা অভিযোগ বিশিষ্টদের।

First published: 06:52:50 PM Jun 11, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com