• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • POST POLL VIOLENCE SUPREME COURT ASKS REPORT FROM ELECTION COMMISSION CENTRE AND STATE SANJ

Post Poll Violence : বাংলার 'নির্বাচন পরবর্তী হিংসা' মামলা | কমিশন, কেন্দ্র ও রাজ্যের জবাব তলব সুপ্রিম কোর্টের

'নির্বাচন পরবর্তী হিংসা' মামলা

বৃহস্পতিবার ছিল ভোট পরবর্তী হিংসার (Post Poll Violence) মামলার শুনানি। এদিন সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court) ৪ সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা দিয়ে জবাব দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (Election Commission), কেন্দ্রীয় সরকার (Centre Govt)এবং রাজ্য সরকারকে (WB Govt)।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি : পশ্চিমবঙ্গের ভোট পরবর্তী হিংসার (Post Poll Violence) অভিযোগ সংক্রান্ত মামলায় ৪ সপ্তাহের মধ্যে রিপোর্ট তলব করল শীর্ষ আদালত (Supreme Court)। নির্বাচন পরবর্তী হিংসার (Post Poll Violence) অভিযোগ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court) একটি মামলা দায়ের করেছিলেন আইনজীবী বিষ্ণু জৈন। মামলায় আর্জি জানানো হয়েছে, রাজ্যে নির্বাচন-পরবর্তী হিংসার ঘটনার তদন্তের জন্য আদালতের নজরদারিতে 'বিশেষ তদন্তকারী দল'(সিট) গঠন করা হোক। পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসন দেওয়ার নির্দেশ দিক আদালত। একইসঙ্গে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির আর্জিও জানানো হয় এই মামলায়। বৃহস্পতিবার ছিল মামলার শুনানি। এদিন মামলাটি গ্রহণ করে সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court) ৪ সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা দিয়ে জবাব দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (Election Commission), কেন্দ্রীয় সরকার (Centre Govt)এবং রাজ্য সরকারকে (WB Govt)।

নির্বাচন পরবর্তী হিংসা সংক্রান্ত এই মামলায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও অভিযুক্ত করা হয়েছে। তবে, সর্বোচ্চ আদালত মুখ্যমন্ত্রীকে কোনও নোটিশ দেয়নি। বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে করা মামলার প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি বিনীত শরন ও দীনেশ মাহেশ্বরীর বেঞ্চ আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে জবাব দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, 'ভোটের পর ইচ্ছাকৃত ভাবে সমর্থকদের উপর অত্যাচার চালানো হচ্ছে। তাঁদের উপর হামলা চালানো হচ্ছে। তাঁদের বাড়ি-ঘর জ্বালানো হচ্ছে। সম্পত্তি লুট করা হচ্ছে। শুধুমাত্র একটি রাজনৈতিক দলকে সমর্থন করার জন্য অত্যাচারের শিকার হচ্ছেন বহু মানুষ।'

প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গের ভোটপর্ব মেটার পর থেকেই বিরোধী দল বিজেপি রাজ্যজুড়ে হিংসার অভিযোগ তুলছে। এই নিয়ে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনখড়ও। তিনি দিল্লি সফর করেছেন দেখা করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, জাতীয় মানবাধিকার কমিশন-সহ বিভিন্ন জায়গায়। একই ইস্যুতে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী গত এক মাসে তিনবার অমিত শাহর সঙ্গে দেখা করেছেন। বৃহস্পতিবারও এই ইস্যুতে শুভেন্দু অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। এই পরিস্থিতিতে সুপ্রিমকোর্টে আইনজীবী বিষ্ণু জৈনের মামলায় রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি সহ বিশেষ তদন্তকারী দল গঠনের আর্জি জানানো হয়েছে। উল্লেখ্য, এই একই বিষয়ে আগেই ট্যুইট করেছেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনখড়।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: