বাংলায় ট্যুইট মোদির, বিশ্ববিদ্যালয়- সৌধ গড়ার ঘোষণা মমতার! নেতাজি স্মরণে জোর টক্কর

  • Share this:

    #কলকাতা: উপলক্ষ নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্মদিন৷ আর তাকে কেন্দ্র করেই শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের মোড়কে বাঙালি আবেগ জয়ের চেষ্টা৷ নেতাজির জন্মদিন উপলক্ষে পরাক্রম দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এ দিনই কলকাতায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ প্রথমে আলিপুরে জাতীয় গ্রন্থাগার এবং তার পরে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে দু'টি অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা প্রধানমন্ত্রীর৷ সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা৷ মোদি- মমতার পাশাপাশি নেতাজিকে স্মরণ করে ট্যুইট করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ৷ ট্যুইটারে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্য়মন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথও৷

    মুখ্যমন্ত্রীরও৷ কলকাতায় আসার আগেই ইংরেজির পাশাপাশি বাংলাতেও ট্যুইট করেছেন নরেন্দ্র মোদি৷ অন্যদিকে আজ সকালেই ট্যুইট করেছেন মুখ্যমুন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তিনি জানিয়েছেন, নেতাজি স্মরণে রাজারহাটে একটি সৌধ গড়বে রাজ্য সরকার৷ পাশাপাশি নেতাজির নামে একটি বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করা হবে বলেও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

    কলকাতায় আসার আগে শুক্রবার রাতে প্রধানমন্ত্রী ট্যুইটারে লেখেন, 'পশ্চিমবঙ্গের প্রিয় ভাই ও বোনেরা, পরাক্রম দিবসের এই শুভ দিনটিতে আপনাদের মধ্যে আসতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি। কলকাতায় এই উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আমরা বীর-কেশরী সুভাষ চন্দ্র বসুকে শ্রদ্ধার্ঘ্য জানাব৷'

    অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ট্যুইটে জানিয়েছেন, 'দেশনায়ক নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর ১২৫চম জন্মবার্ষিকীতে শ্রদ্ধার্ঘ্য৷ তিনি একজন প্রকৃত নেতা ছিলেন এবং মানুষের ঐক্যে বিশ্বাস রাখতেন৷ আমরা এই দিনটিকে দেশনায়ক দিবস হিসেবে উদযাপন করছি৷ গোটা বছর ধরে এই উদযাপন অনুষ্ঠান চালানোর জন্য রাজ্য সরকার একটি কমিটিও গঠন করেছে৷'

    আরও একটি ট্যুইটে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, আজাদ হিন্দ ফৌজের নামে রাজারহাটে একটি সৌধ তৈরি করবে রাজ্য সরকার৷ এ ছাড়াও সম্পূর্ণ রাজ্যের উদ্যোগে নেতাজির নামে একটি বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করা হবে৷ বিভিন্ন বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে কাজ করবে সেই বিশ্ববিদ্যালয়৷

    মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, এ দিন কলকাতায় নেতাজি স্মরণে একটি িবরাট পদযাত্রার আয়োজন করা হয়েছে৷ এ বছর প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানও নেতাজিকেই উৎসর্গ করা হবে বলে জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ঠিক বেলা ১২.১৫ মিনিটে সাইরেন বাজানো হবে৷ ওই সময় প্রত্যেককে বাড়িতে শঙ্খ বাজানোর আহ্বান জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ একই সঙ্গে ২৩ জানুয়ারিকে কেন্দ্রীয় সরকারের জাতীয় ছুটি হিসেবে ঘোষণা করা উচিত বলেও দাবি জানিয়েছেন মমতা৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: