ঘনিয়ে আসছে ঘুর্ণিঝড় যশ, নারদ-শুনানির সঙ্গে জড়িয়ে কলকাতাবাসীর ভাগ্যও, ট্যুইট ফিরহাদ কন্যার

ফিরহাদ হাকিমকে চাই সাইক্লোন যশ মোকাবিলা করতে, ট্যুইট ফিরহাদ কন্যার।

নারদমামলার এদিনের শুনানির সঙ্গে যেন জড়িয়ে গিয়েছে রাজ্যবাসীর ভাগ্য।

  • Share this:

    #কলকাতা: নারদ মামলার শুনানির দিনেই এক অন্য প্রমাদ গুণছে কলকাতা-সহ গোটা রাজ্য। কারণ ঘনিয়ে আসা ঘূর্ণিঝড়। আবহাওয়াবিদরা সতর্ক করছেন,আগামী ২৩-২৫ মে বঙ্গোপসাগরীয় উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড় যশ। আমফানের স্মৃতি এখনও দগদগে, আর সেখান থেকেই ভয় শহরবাসীর। যদি সত্যিই ফিরহাদ হাকিম-সহ অন্য অভিযুক্তদের ভিন রাজ্যে নিয়ে যেতে সক্ষম হয় সিবিআই, তবে কী ভাবে ঝড়ের মোকাবালি হবে,প্রশ্ন মুখে মুখে। নারদ মামলার এদিনের শুনানির সঙ্গে যেন জড়িয়ে গিয়েছে রাজ্যবাসীর ভাগ্য।

    এ দিন প্রশ্নটা তুলে দেন ফিরহাদ কন্যা সাব্বা হাকিম। তিনি ট্যুইটারে লেখেন, গত বছর আমফানের ধ্বংসলীলার পর এক সপ্তাহে পথে নেমে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়েছিলেন ফিরহাদ হাকিমষ আদ যখন আরও একটি সাইক্লোন (যশ) আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা, কলকাতার ববি হাকিমকে দরকার। তিনি হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে লিখেছেন #bengalstandswithbobby.

    প্রসঙ্গত, সিবিআই রাজ্যে আইনশৃঙ্খলার দিকে আঙুল তুলে এদিন আদালতে মামলা ভিন স্থানান্তকরণের চেষ্টা করতে পারে। অন্য দিকে অভিযুক্তদের পক্ষে সওয়াল করা হেভিওয়েটরা চাইবে যাতে এই চার হেভিওয়েটকে জামিনে মুক্তি দেওয়া যায়।

    এই টানটান উত্তেজনার মধ্যেই শাসকদলের মূল চ্যালেঞ্জ রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা. ৩৫৬ জারি হওয়ার সম্ভাবনাকে সর্বতোভাবে আটকানো। জমায়েত এড়াতে হবে করোনা মোকাবিলার স্বার্থে। সে কথা মাথায় রেখে এই হেভিওয়েটরাও পরিবারের মাধ্যমে ভক্তদের বার্তা দিচ্ছেন, শান্তভাবে প্রতিবাদ করতে। কোনও ভাবেই হিংসাত্মক পদক্ষেপ না করতে।

    Published by:Arka Deb
    First published: