• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • MUNICIPALITY PUTS RESTRICTION ON INSTALLING STATUES OF SCHOLARS IN THE CITY PB

তালতলা কাণ্ড থেকে শিক্ষা! শহরের যত্রতত্র মনীষীদের মূর্তি বসানোর অবাধ অনুমতি দেবে না পুরসভা

মঙ্গলবার পুরসভার প্রশাসনিক মন্ডলীর বৈঠকে এই বিষয়ে এক দফা আলোচনাও হয়।

মঙ্গলবার পুরসভার প্রশাসনিক মন্ডলীর বৈঠকে এই বিষয়ে এক দফা আলোচনাও হয়।

  • Share this:

#কলকাতা : তালতলার এস এন ব্যানার্জি রোডের ওপর কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আবক্ষ মূর্তির নিচে ওই ফলকটাই কসবার ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ডে আলাদা মাত্রা যোগ করে ছিল। রাজ্য রাজনীতিতে বিতর্কের নয়া ঝড় উঠেছিল ওই ফলক ঘিরেই। দেবাঞ্জন কান্ড থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার তাই কলকাতার রাজপথে মনীষীদের মূর্তি ও ফলক বসানোর অনুমতি দেওয়ার ক্ষেত্রে নড়েচড়ে বসছে কলকাতা পুরসভা।

মঙ্গলবার পুরসভার প্রশাসনিক মন্ডলীর বৈঠকে এই বিষয়ে এক দফা আলোচনাও হয়। একইসঙ্গে ঠিক হয় এভাবে মুড়ি মিছরির মতো শহরের আনাচে-কানাচে আর মনীষীদের মূর্তি বসানোর অনুমতি দেওয়ার আগে দু'বার করে বিবেচনা করবে কলকাতা পুরসভা।

মঙ্গল সন্ধ্যায় কলকাতা পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর প্রধান ফিরহাদ হাকিম বলেন,"বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে ভাবছে কলকাতা পুরসভা। এই দিনের বৈঠকে এই নিয়ে আলোচনাও হয়েছে। শহরের যত্রতত্র রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, স্বামী বিবেকানন্দ, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোসের মতো মনীষীদের মূর্তি বসিয়ে দেয়া হয়। আর তারপর বছরের বাকি সময়টা মূর্তির রক্ষনাবেক্ষণ না করে অবহেলায় ফেলে রাখা রাখা হয়। এটা মনীষীদের প্রতি অবমাননা। জাতির প্রতি অপমান। পুরসভা এই বিষয়ে এবার থেকে কঠোর হবে। মনীষীদের মূর্তি যদি বসানোর হয় তবে সেটা পুরসভাই বসাবে এবং সেটার রক্ষণাবেক্ষণ পুরসভাই করবে।"

প্রসঙ্গত মনীষীদের মূর্তির রক্ষণাবেক্ষণের অভাবের কথা বলা হলেও পুরসভা সূত্রে খবর, তালতলায় এস এন ব্যানার্জি রোডের ওপর রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মূর্তি নিচে লাগানো ফলক থেকে যে ভাবে রাজ‍্যের শাসক দলের ভাবমূর্তিতে কালি লেগেছে, সেখান থেকে শিক্ষা নিয়েই আগামী দিনে এই বিষয়ে কঠোর মনোভাব নিয়ে এগোতে চাইছেন রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। মঙ্গলবার পুরসভার অলিন্দে ফিরহাদের বক্তব্য সেটাই জানান দিল।

একইসঙ্গে কলকাতা কর্পোরেশনের বিভিন্ন বিভাগ থেকে জাল নিয়োগ পত্র ইস্যুর ক্ষেত্রে জনমানসে সর্তকতা মূলক প্রচার শুরু করার কথা ভাবছে পুরসভা। মঙ্গলবার পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর বৈঠকে এই সংক্রান্ত আলোচনা হয়।

PARADIP GHOSH 

Published by:Piya Banerjee
First published: