দিনে কলাপাতায় দোস্তি রাতে ফাইভস্টারে মস্তি, অমিত শাহ-নড্ডার সফরের আগে তীব্র কটাক্ষ মমতার

দিনে কলাপাতায় দোস্তি রাতে ফাইভস্টারে মস্তি, অমিত শাহ-নড্ডার সফরের আগে তীব্র কটাক্ষ মমতার
বিজেপির মধ্যাহ্নভোজের রাজনীতিকে কটাক্ষ মমতার।

বাছাই শব্দে তোপ দাগলে বিজেপি ও নয়া দলত্যাগীদের।

  • Share this:

    #কলকাতা: দলের তরফে তফশীলি জাতি-উপজাতি সম্মেলন। সেখানে প্রধানবক্তা তিনিই। ঝড় তুললেন তিনি। বাছাই শব্দে তোপ দাগলে বিজেপি ও নয়া দলত্যাগীদের। আবেগপ্রবণ হয়ে বলে ফেললেন নিজের কম বয়সের লড়াইয়ের কথাও।

    মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এ দিনের বক্তব্য এখানে থাকল সময় ধরে দেওয়া থাকল-

    বিষয় সুরক্ষা


    স্বাস্থ্য শিক্ষা খাদ্য আমরা দিচ্ছি বিনামূল্যে আর একটা সটকার ভেদাভেদ করতে চাইছে। মনে রাখবেন এখানে হাতরাস উন্নাওয়ের মতো ঘটনা ঘটেনি।

    বিজেপির মধ্যাহ্নভোজ

    বিজেপির নেতাদের মধ্যাহ্নভোজের রাজনীতিকে কটাক্ষ করে মমতার উবাচ- সকালবেলায় কলাপাতায় দোস্তি রাতে ফাইফস্টারে মস্তি। দিল্লিতে পেরেক পুতে দিয়েছে।

    নির্বাচন নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী

    ভোট সম্পর্কে আত্মবিশ্বাসী মমতা এদিন বললেন, ২৫০ র বেশি আসন নিয়ে এলে দিল্লির চেয়ার ঠকঠক করে কাঁপবে। টিভিগুলি বিক্রি হয়ে গিয়েছে। আমায় চমকে ধমকে কিছু করানো যাবে না। আমায় ভালোবেসে বললে ঘর মুছে দেবো। বাসন মেজে দেবো।

    আমফান দুর্নীতি

    এল লকডাইন প্রসঙ্গ। মমতার বক্তব্য, কারও মাইনে বন্ধ হয়নি এই লকডাইউনে। আমফানে একটা  ঘটনা ঘটেছে। আপনারা খারাপ বললেন।  আমার সঙ্গে যারা থাকবেন, যারা ভোট দেবেন তাদের দিয়েই সরকার হয়ে যাবে। যান বিজেপিকে গিয়ে দেখে আসুন।

    নিজের লড়াই

    কথা চালাতে চালাতেই আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন মমতা। নিজের লড়াইয়ের কথা তুলে ধরে বলেন, আমাদের কেউ বই দিত না। লাইব্রেরি তে গিয়ে টুকে পাশ করেছি, সংসার চালিয়েছি। রান্না করতাম। মাকে কাজ করতে দিতাম না। সিপিএম বিজেপির কথায় কেন এমন করছে! সোনার ডিম পারা হাসের সব ডিম এক সঙ্গে পেতে চাইলে হাস মরে যাবে।

    সিঙ্ঘু বর্ডারে সৌগত রায়

    আসুন একটু বৃহত্তর চিন্তা করি। বিজেপি দেশটাকে বিক্রি করে দিয়েছে।আজ সৌগত রায় সিন্ধু গিয়েছিল, ঢুকতে দেয়নি। আমার দুঃখ হয় ত্রিপুরায় কয়েকজন কংগ্রেস গিয়ে বিজেপি কে শক্তিশালী করল। এখানে কেউ যাচ্ছে। কেউ টাকা রাখতে যাচ্ছে। কয়েকজন শিল্পীকে বলা হয়েছে আমাদের হয়ে বলো। আমি বলছি এমন জনদরদি সরকার একটা পাবেন না।

    বিজেপিকে তোপ

    বিজেপির আদিবাসী এলাকায় আসনদখল নিয়ে মমতা বললেন, আদিবাসীদের কাছ থেকে সব সিট নিয়ে গিয়েছে। একটা কিছু করেনি আমরা নাগরিক। উদ্বাস্তু কলোনি করে দিয়েছি। কোভিডের সময় ট্যাব, সাইকেল দিয়েছি। বাজেট প্রসঙ্গে মমতার উবাচ-  বাজেট কেন্দ্র বলছে ৬৫০ কিমি রাস্তা করবে। আমরা ৮৫০০ কিমি বানিয়েছি।

    দলত্যাগীদের কটাক্ষ

    এখন চোরগুলোকে দিল্লি নিয়ে যাচ্ছে। পরিযায়ী শ্রমিকদের ট্রেন দিতে পারে না। যারা বাংলায় থেকে বাংলার সঙ্গে গদ্দারি করে তাদের মানুষ সম্মান করে না। সিরাজকে মানুষ সম্মান করে। মিরজাফরকে করে না।

    তৃণমূলে আস্থা রাখার অনুরোধ

    রাজ্যের ভবিষ্যত নিয়ে মমতার মন্তব্য তৃণমূলের বিকল্প তৃণমূল, তৃণমূলের বিকল্প আরও উন্নততর তৃণমূল। কন্যাশ্রীর মেয়েরা বিজেপিকে ভালো করে বুঝিয়ে দিও। সোনার বাংলা? সোনার ভারত বিক্রি করে দিয়েছে বিজেপি।

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর