রাজ্যবাসীকে বিপাকে ফেলতে ট্রেন বন্ধ করে দিয়েছে কেন্দ্র, অভিযোগ মমতার

রাজ্যবাসীকে বিপাকে ফেলতে ট্রেন বন্ধ করে দিয়েছে কেন্দ্র, অভিযোগ মমতার

CAA প্রতিবাদের জেরে বিপর্যস্ত রেল পরিষেবা ৷ এর জন্য কেন্দ্রকেই দায়ী করলন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

  • Share this:

#কলকাতা: নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতা ও প্রতিবাদের জেরে একাধিক রেল স্টেশনে উত্তেজনা ছড়ায় ৷ প্রতিবাদের নামে তান্ডব চলেছে। সেই তান্ডবের মাসুল দিতে হচ্ছে রেলকে। শুক্রবার থেকে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে টার্গেট রেল। স্টেশন মাস্টারের ঘরে ভাঙচুর করে আগুন লাগিয়ে দেওয়া থেকে তছনছ স্টেশন চত্বর। যাত্রী নামিয়ে দুটি ট্রেনেও ভাঙচুর হয়। রবিবার রেজিনগর ও মণিগ্রাম স্টেশনে ভাঙচুরের পর আরপিএফের বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। গন্ডগোলের জেরে আটকে পড়েছে বিভিন্ন দূরপাল্লার ট্রেন। বাতিল একাধিক ট্রেন ৷ এর জেরে সমস্যায় পড়তে হয়েছে সাধারণ মানুষকে ৷

সোমবারের ছবিটাও একই রয়েছে ৷ বাতিল একাধিক ট্রেন। উত্তরবঙ্গের সব ট্রেন বাতিল। CAA প্রতিবাদের জেরে বিপর্যস্ত রেল পরিষেবা ৷ এর জন্য কেন্দ্রকেই দায়ী করলন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ তিনি বলন রাজ্যকে সমস্যায় ফেলার জন্যে ট্রেন বন্ধ করে রেখেছে কেন্দ্র ৷ তিনি আরও প্রশ্ন করেন,  কয়েকটা ট্রেনে আগুন লাগানোর জন্য সব ট্রেন বাতিল করা হল কেন?

এদিন ট্রেনে আগুন লাগানোর ঘটনায় বিজেপির দিকেই অভিযোগের তির মমতার ৷ তিনি আরও বলেন হিংসাকে কখনই সমর্থন করেন না ৷ বিজেপি টাকা খাইয়ে আগুন লাগাচ্ছে ৷ পাশাপাশি তিনি মানুষের কাছে হিংসা না ছড়ানোর আবেদন জানিয়েছেন ৷ ট্রেন আগুন না লাগানোর অবেদন জানিয়েছেন ৷ তিনি আরও বলেন বেশিরভাগ ট্রেন বন্ধ করে দিয়েছে কেন্দ্র সরকার ৷ এতে সাধারণ মানুষই সমস্যায় পড়ছেন ৷ পাশাপাশি রাস্তা ঘাট অবরোধ না করারও আবেদন জানিয়েছেন ৷ মমতা বলেছেন এর জেরে সাধারণ মানুষ যারা তাদের পাশে রয়েছে তারা সমস্যায় পড়ছেন ৷

কোনও প্ররোচনায় পা দেবেন না। তৃণমূল কর্মীদের নির্দেশ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তাঁর দাবি, শান্তিপূর্ণ ভাবে গণতান্ত্রিক উপায়ে নাগরিক আইনের প্রতিবাদ করতে হবে।

জোর করে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন চালুর করার চেষ্টা হলে, তা রুখবে তৃণমূল কংগ্রেস। এদিন জোড়াসাঁকোয় প্রতিবাদ মঞ্চ থেকে কেন্দ্রকে হুঁশিয়ারি তৃণমূল নেত্রীর।

অন্যদিকে রেলের তরফে জানানো হয়েছে তাণ্ডবের জেরে রেলে ব্যাপক ক্ষতি। পূর্ব রেলে ৬২টি কোচ ক্ষতিগ্রস্ত। তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত ১৫টি স্টেশন। ভাঙচুরের ঘটনায় বিশাল আর্থিক ক্ষতির মুখে রেল। প্রাথমিক হিসাব বলছে, শুধু খড়্গপুর ডিভিশনেই ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ১৬ কোটি টাকা। সবমিলিয়ে ক্ষতির অঙ্ক কয়েকশো কোটি টাকা।

First published: December 16, 2019, 5:50 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर