মাধ্যমিকে আরও কড়া পর্ষদ, মোবাইল-সহ ধরা পড়ায় পরীক্ষা বাতিল পরীক্ষার্থীদের

মাধ্যমিকে আরও কড়া পর্ষদ, মোবাইল-সহ ধরা পড়ায় পরীক্ষা বাতিল পরীক্ষার্থীদের

প্রায় ৩০ জনেরও বেশি পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা বাতিল হল মোবাইল ফোন পরীক্ষা কেন্দ্রে নিয়ে আসার জন্য।হোয়াটসঅ্যাপে প্রশ্নপত্র বেরোনো নিয়েই কড়া মানুষ?

  • Share this:

#কলকাতা: মোবাইল ফোন নিয়ে আরো কড়া মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। গত দুদিন ধরে মোবাইল ফোন নিয়ে ধরা পড়া পরীক্ষার্থীদের এবছরের মাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। বুধবারই পর্ষদ সভাপতি স্কুল শিক্ষা সচিব ও কমিশনারের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর।অন্যদিকে পরীক্ষা শুরুর পর মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্র হোয়াটসঅ্যাপে বেরোনোর ঘটনা নিয়ে বুধবারই পর্ষদে তদন্তে যায় কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইমের আধিকারিকরা। যদিও এ বিষয়ে মন্তব্য করতে চাননি মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়।

মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে এ বছরের মাধ্যমিক পরীক্ষা। পরীক্ষা শুরু প্রথম দিনেই মালদা জেলা থেকে পরীক্ষা পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ বাদে প্রশ্নপত্র হোয়াটসঅ্যাপে বেরিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটে। হোয়াটসঅ্যাপে বেরিয়ে যাওয়া প্রশ্নপত্রের সঙ্গে পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের মিল থাকায় নড়েচড়ে বসে  স্কুল শিক্ষা দপ্তর। অন্যদিকে হোয়াটসঅ্যাপের মতো সোশ্যাল সাইটগুলিতে প্রশ্নপত্র বেরিয়ে যাওয়া নিয়ে নড়েচড়ে বসেছে সাইবার ক্রাইমও। বুধবারই সাইবারক্রাইমের আধিকারিকরা মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এ গিয়ে সরেজমিনে ঘটনার তদন্ত করেন। মূলত মাধ্যমিক পরীক্ষা সংক্রান্ত বেশ কিছু তথ্য আধিকারিকদের থেকে নেন বলেই সূত্রের খবর। প্রত্যেকটি জেলার পাশাপাশি প্রত্যেকটি পরীক্ষা কেন্দ্র নির্দিষ্ট্ট্ কোড নম্বর প্রশ্নপত্র ও উত্তর পত্রের থাকে। সেই সংক্রান্ত নথি এ দিন মধ্যশিক্ষা পর্ষদ থেকে নেন সাইবার ক্রাইমের আধিকারিকরা।

পর্ষদ সূত্রের খবর মূলত মালদা, উত্তর ২৪ পরগনা, শিলিগুড়ি,দক্ষিণ দিনাজপুর থেকে একাধিক পরীক্ষার্থীকে মঙ্গলবার ও বুধবার মোবাইল ফোন সমেত ধরা হয়েছে। পর্ষদের তরফে মোবাইল ফোন নিয়ে় কড়াকড়ি  করা হলেও কিভাবে পরীক্ষার্থীরা ফোন নিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রের ভেতরে ঢুকছেন তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। পর্ষদের তরফে সোমবারই পরীক্ষা বাতিলের হুঁশিয়ারি দেওয়া হলেও বুধবার অবশ্য পর্ষদ মোবাইল নিয়ে ধরা পড়া পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা বাতিল করে দেওয়ার  সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশিকা ইতিমধ্যেই জারি করেছে মধ্যশিক্ষাা পর্ষদ। যদিও এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি পর্ষদ সভাপতি।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

First published: February 19, 2020, 8:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर