corona virus btn
corona virus btn
Loading

দোকানের দেওয়াল কেটে গায়েব বোতল বোতল মদ, গ্রেফতার 'সিঁধেল' চোরের দল

দোকানের দেওয়াল কেটে গায়েব বোতল বোতল মদ, গ্রেফতার 'সিঁধেল' চোরের দল
প্রতীকী ছবি

রবিবার ওই পাঁচ চোরকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের থেকে চুরি যাওয়া বোতল বোতল মদ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

  • Share this:

#কলকাতাঃ বড়বাজারে মদের দোকানে দেওয়াল কেটে চুরির অভিযোগে একদল 'সিঁধেল চোর'কে গ্রেফতার করল বরাবাজার থানার পুলিশ। রবিবার জোড়াসাঁকো এলাকা থেকে ওই পাঁচ চোরকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের থেকে চুরি যাওয়া ৩০ বোতল মদ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার মদের দোকানের মালিক স্টক চেক করতে এসে দেখেন দোকানের পেছনের দেওয়াল কাটা। দোকানের ভেতর থেকে প্রচুর মদের বোতল চুরি গিয়েছে। এরপর তিনি বড়বাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ। এলাকার সব সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হয়। সেই সিসিটিভি ফুটেজের সূত্র ধরেই জোড়াসাঁকো থেকে ওই পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়। প্রত্যেকেই ফুটপাথবাসী। চুরি করা মদ ফুটপাথেই লুকিয়ে রেখেছিল তারা। সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। বড়বাজার থানার এক আধিকারিক বলেন, "ধৃত এই পাঁচজনের বিরুদ্ধে পুরনো কোনও চুরির অভিযোগ আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।"

স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, "এরা ছোটখাটো চোর বলেই মনে হচ্ছে। যেহেতু লকডাউনে মদের দোকান বন্ধ তাই বিভিন্ন জায়গায় মদের কালোবাজারি হচ্ছে। দ্বিগুণ-তিনগুণ দামে মদ বিক্রি হচ্ছে। সোনার থেকেও মদ এখন দামি। তাই মদ চুরি করে বিক্রি করতে পারলে সোনার থেকেও বেশি দাম পাওয়া যাবে, সেজন্যই হয়ত দেওয়াল কেটে চুরি করেছে এরা।"

পুলিশ সূত্রে খবর, ওই মদের দোকান সংলগ্ন একটি পুরনো বাড়িতে প্রমোটিংয়ের কাজ চলছে। সেজন্য দোকানের পিছনের অংশটিও পুরো ফাঁকা। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে দেওয়াল কাটতে সুবিধা হয়েছে চোরেদের। পুরো পরিকল্পনা করে চুরি করে সমস্ত বোতল ব্যাগে করে নিয়ে পালিয়েছিল তারা। চোরাই মদ কালোবাজারি করেই বিক্রি করার পরিকল্পনা ছিল এই চোরেদের। ধৃতদের বিরুদ্ধে চুরি ছাড়াও আবগারি  আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে। ধৃতদের রবিবার ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলে বড়বাজার থানার পুলিশ। যদিও বিশেষ আদালত চোরদের জামিনে মুক্ত করেছে।

SUJOY PAL

First published: April 19, 2020, 11:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर