• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • বিধানসভা নির্বাচনের আগেই মার্চের শেষে কলকাতায় পুরভোট!

বিধানসভা নির্বাচনের আগেই মার্চের শেষে কলকাতায় পুরভোট!

বিধানসভার প্রস্তুতির মাঝেই এবার পুরভোটের দামামা ৷ বাংলার মসনদে পরিবর্তন নাকি প্রত্যাবর্তন, সেই উত্তর পাওয়ার আগেই কলকাতার মন পড়ে নেবে পুরভোটের ফলাফল ৷

বিধানসভার প্রস্তুতির মাঝেই এবার পুরভোটের দামামা ৷ বাংলার মসনদে পরিবর্তন নাকি প্রত্যাবর্তন, সেই উত্তর পাওয়ার আগেই কলকাতার মন পড়ে নেবে পুরভোটের ফলাফল ৷

বিধানসভার প্রস্তুতির মাঝেই এবার পুরভোটের দামামা ৷ বাংলার মসনদে পরিবর্তন নাকি প্রত্যাবর্তন, সেই উত্তর পাওয়ার আগেই কলকাতার মন পড়ে নেবে পুরভোটের ফলাফল ৷

  • Share this:

#কলকাতা: টার্গেট ২০২১-এর লক্ষ্যে সরগরম রাজ্য রাজনীতি ৷ বিধানসভার প্রস্তুতির মাঝেই এবার পুরভোটের দামামা ৷ সবকিছু ঠিকঠাক চললে মার্চের শেষে কলকাতায় পুরভোট ৷ অর্থাৎ বিধানসভার ফাইনাল এক্সামের আগেই পুরসভার টেস্ট পরীক্ষায় তৃণমূল থেকে বিজেপি ৷

এই জল্পনার শুরু রাজ্যের এক সিদ্ধান্তে ৷ মঙ্গলবার মার্চের শেষে পুরভোট করার কথা রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছে সরকার ৷ রাজ্যের এই নয়া সিদ্ধান্ত ১৭ ডিসেম্বর সুপ্রিম কোর্টকে জানাবে কমিশন ৷

কলকাতা সহ রাজ্যের একাধিক পুরবোর্ডের মেয়াদ উত্তীর্ণ ৷ বর্তমানে প্রশাসক বোর্ড বসিয়ে চলছে কলকাতা পুরসভার কাজ ৷  গত মে মাসে কলকাতা পুরসভার পুরবোর্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগের দিনই রাজ্য সরকার ফিরহাদ হাকিমকে চেয়ারম্যান করে গোটা পুরবোর্ডকেই প্রশাসকমণ্ডলী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করে।  নির্বাচন ছাড়া প্রশাসক বসিয়ে অবৈধভাবে শাসক দল নিজের দখলে পুরবোর্ডকে রাখছেন , এই অভিযোগে পুরসভার বিজ্ঞপ্তিকে চ্যালেঞ্জ করে একটি মামলা দায়ের হয় কলকাতা হাইকোর্টে ৷ কলকাতা পুরসভার প্রশাসক বোর্ডকে বৈধ বলে রায় দেয় হাইকোর্ট ৷ সেই রায়কে ফের চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় বিজেপি।

সেই মামলার গত শুনানিতেই দেশের শীর্ষ আদালত রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে বর্তমানে ভোট করার মতো পরিস্থিতি আছে কি না, তা জানানোর নির্দেশ দিয়েছিল। সেই মামলার পরবর্তী শুনানিতেই রাজ্যের সিদ্ধান্তের কথা শীর্ষ আদালতকে জানাবে কমিশন ৷ এর আগে করোনা সংক্রমণের আবহে ভোটের মতো পরিস্থিতি নেই বলে জানিয়েছিল রাজ্য ৷

কমিশন সূত্রে খবর, ১৫ জানুয়ারি ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে ৷ সেই তালিকা নির্বাচন উপযোগী করতে এবং নির্বাচনের সমস্ত প্রস্ততি নিতে ১ থেকে দেড় মাস সময় লাগবে ৷ সেক্ষেত্রে মার্চের শেষে কলকাতায় পুরভোটের আয়োজন করা অসম্ভব কিছু নয় ৷ ফলে বিধানসভার কুরুক্ষেত্রের আগেই পুরযুদ্ধে নামতে চলেছে রাজ্য ৷ বাংলার মসনদে পরিবর্তন নাকি প্রত্যাবর্তন, সেই উত্তর পাওয়ার আগেই কলকাতার মন পড়বে পুরভোটের ফলাফল ৷

Arup Dutta

Published by:Elina Datta
First published: