পথে নামলেন মমতার অপমানে ব্যথিত কবীর সুমন, গড়িয়াহাটে অভিনব প্রতিবাদ

পথে নামলেন মমতার অপমানে ব্যথিত কবীর সুমন, গড়িয়াহাটে  অভিনব প্রতিবাদ
গড়িয়াহাটের রাস্তায় একক প্রতিবাদে কবীর সুমন।

গড়িয়াহাট মোড়ে একক ভাবেই জয় বাংলা লেখা প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে পড়লেন সুমন।

  • Share this:

    #কলকাতা: ভিকটোরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মজয়ন্তী উপলক্ষ্যে আয়োজিত কেন্দ্রীয় সরকারের অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মঞ্চে উঠতেই অভাব্যতার ঘটনায় রাজ্য জুড়ে হইচই পড়ে গিয়েছে। বহু বাম-কংগ্রেস নেতাও এই ঘটনাকে ন্যাক্কারজনক বলে বর্ণনা করেছেন। এবার এই ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় নামলেন কবীর সুমন। গড়িয়াহাট মোড়ে একক ভাবেই জয় বাংলা লেখা প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে পড়লেন সুমন। প্রতিবাদের এই পন্থাকে সত্যাগ্রহ বলছেন প্রবাদপ্রতীম সঙ্গীতকার তথা তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ।

    আজ রবিবার সকালে কবীর সুমন ফেসবুক পোস্টে লেখেন, সাবাশ মমতা, জয় শ্রীরাম নয়, এই বাংলায় কখনও নয়, জয় বাংলা, জয় মমতা...। এর পরেই পথে নামার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। গলায় জয় বাংলা প্ল্যাকার্ড লাগানো অবস্থায় দীর্ঘক্ষণ গড়িয়াহাট চত্বরে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় তাঁকে। কবীর গড়িয়াহাট থেকে বলেন, তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ হিসেবে নয় তিনি রাস্তায় নামলেন সাধারণ নাগরিক হিসেবে, একজন মাননীয় মানুষকে ডেকে নিয়ে গিয়ে অপমান করার বিরুদ্ধেই অহিংস পথে এই সত্যাগ্রহ জানাচ্ছেন সুমন।


    ঘটনার সূত্রপাত গত কাল, শনিবার বিকেলে। নেতাজির জন্মজয়ন্তী উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মমতা মঞ্চে উঠে বক্তব্য রাখতে যাবেন, এমন সময়েই দর্শকাসন থেকে একদল বিজেপি সমর্থক জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিয়ে ওঠেন। অতীতে কনভয়েতে এই ধ্বনি ওঠায় মমতা মেজাজ হারিয়েছিলেন। এবার মমতা মেজাজ হারাননি তিনি। উল্টে "সরকারি অনুষ্ঠানের একটা শালীনতা থাকা উচিৎ। এটা কোনও রাজনৈতিক দলের অনুষ্ঠান নয়। এটা সকল মানুষের, সব রাজনৈতিক দলের সকলের অনুষ্ঠান। আমি প্রধানমন্ত্রীজি এবং সংস্কৃতি মন্ত্রকের কাছে কৃতজ্ঞ অনুষ্ঠানটি কলকাতায় আয়োজন করার জন্য। কিন্তু কাউকে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ করে তারপর অপমান করা উচিৎ নয়। এর প্রতিবাদে আমি আর কোনও কিছু এখানে বলব না। জয় হিন্দ, জয় বাংলা।'' রাজনৈতিক দূরত্ব থাকা সত্ত্বেও বহু বাম কংগ্রেস নেতাও এই ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয়েছেন।

    Published by:Arka Deb
    First published: