• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • করোনা সন্দেহভাজন বা রোগী, চিকিৎসার জন্য সব হাসপাতাল তৈরি তো?‌

করোনা সন্দেহভাজন বা রোগী, চিকিৎসার জন্য সব হাসপাতাল তৈরি তো?‌

 হাসপাতালের চিকিৎসক রেইনকোট চিকিৎসার কাজ করছেন

হাসপাতালের চিকিৎসক রেইনকোট চিকিৎসার কাজ করছেন

হাসপাতালের চিকিৎসক রেইনকোট চিকিৎসার কাজ করছেন

  • Share this:

    ‌#‌কলকাতা:‌ কলকাতার সরকারি হাসপাতাল বাদ দিয়েও একাধিক বেসরকারি হাসপাতালে নানা সময়ে করোনা আক্রান্ত রোগীরা ভর্তি হচ্ছেন। তাঁদের চিকিৎসা হচ্ছে। করোনা আক্রান্ত রোগীকে যেভাবে আলাদা করে বিশেষভাবে চিকিৎসা করা প্রয়োজন হয়, তা আদৌ করা হচ্ছে কী?‌ প্রশ্ন উঠছে এই নিয়েই। যদি সরঞ্জাম না থাকে তাহলে সরকারি, বেসরকারি হাসপাতালে যথেষ্ট চিকিৎসা সরঞ্জাম না নিয়েও কি জেনে শুনে বিপদের মুখে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে না রাজ্যবাসীকে?‌

    সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে এক চিকিৎসকের ছবিও। হাসপাতালের চিকিৎসক রেইনকোট চিকিৎসার কাজ করছেন। সরকারি হাসপাতালেরই যদি এই হাল হয়, তাহলে বেসরকারি হাসপাতালের অবস্থাটা ঠিক কেমন হবে?‌ প্রশ্নটা উঠছে স্বাভাবিক ভাবে কারণ রাজ্য জুড়ে একাধিক বেসরকারি হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীরা ভর্তি রয়েছেন। কেউ দমদমে, তো কেউ শ্রীরামপুরে। আজ সকালে হাওড়া হাসপাতালের নার্সরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন হাসপাতালের অব্যবস্থা নিয়ে। সন্ধ্যার পর খবর আসে শ্রীরামপুরের ও দমদমের হাসপাতালে কয়েকজন রোগী ভর্তি রয়েছেন। তাঁদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে কি যথেষ্ট সাবধানতা অবলম্বন করা হচ্ছে?‌ কারণ মঙ্গলবার যে রিপোর্ট স্বাস্থ্য দফতের তরফে দেওয়া হয়েছে, সেখানে বলা হয়েছে, আজই মোট ৮৭ জন নতুন করে করোনা সন্দেহভাজন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত সকলের ক্ষেত্রেই সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত, কিন্তু তা করা হচ্ছে?‌ ছবিটা স্পষ্ট নয়। ‌এখনও আজই বেসরকারি হাসপাতালে করোনা চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়েছেন মোট বেশ কয়েকজন। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন সল্টলেক এএমআরআই ১ জন, ঢাকুরিয়া এএমআরআই ১, হাওড়া আইএলএস ১, নাগেরবাজার আইএলএস ১, শ্রীরামপুর ওয়ালশ ১, জেনিথ হাসপাতালে ১–জন রোগী।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: