নতুন বছর ২০২০ জুড়ে ছুটির ছড়াছড়ি, দেখে নিন ছুটির তালিকা

নতুন বছর ২০২০ জুড়ে ছুটির ছড়াছড়ি, দেখে নিন ছুটির তালিকা

লম্বা উইক-এন্ডের প্রশ্নে টি২০ সাল হতাশ করবে না আপনাকে।

  • Share this:

TRIDIB BHATTACHARYA  

#কলকাতা: উইক-এন্ড অর্থাৎ সপ্তাহ শেষের ছুটি কার না ভাল লাগে? আর সেই উইক-এন্ড একটু লম্বা হলে তো কথাই নেই। একেবারে সোনায় সোহাগা! উইক-এন্ড লম্বা মানেই ঘরের কাছে ছোট্ট ট্যুর। লম্বা উইক-এন্ডের প্রশ্নে টি২০ সাল হতাশ করবে না আপনাকে। ফেব্রুয়ারি, জুন আর জুলাই অগাস্ট, মুখ বুজে কাটিয়ে দিতে পারলেই কেল্লাফতে! বাকি ৮মাস জুড়ে লম্বা উইক-এন্ডে লং-ড্রাইভের হাতছানি। ছোটখাটো ট্যুরের ফাঁদ। গোটা বছর জুড়েই লম্বা ছুটির পশরা। বছরের শুরুতেই ক্যালেন্ডার দেখে বানিয়ে ফেলুন প্রোগ্রাম। মাস মেপে। আবহাওয়া বুঝে। কেজো দিনগুলোর মাঝে ভরে ফেলুন ফান এন্ড ফ্রলিক দিয়ে। শুরু করা যাক, জানুয়ারি দিয়েই। মন খারাপ করবেন না। শুরুতেই দুটো ছুটি বাদ। ১২ আর ২৬ জানুয়ারি রোববার। মন খারাপ করবেন না। ২৩ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার। মাঝে একটা সিএল নিলেই চার দিনের লম্বা উইকএন্ড। সরস্বতী পুজোও এবার বৃহস্পতিবার। ৩০ জানুয়ারি। শুক্রবারটা ছুটি নিলেই চারদিনের অবসর। কাঁধে স্যাকের হাতছানি। ওয়েদারও ঠান্ডা।
ফেব্রুয়ারি তো আগেই বলেছি। উইক-এন্ড আছে, ফাঁকতাল নেই। চলুন মার্চে। দোল এবার ৯ মার্চ। সে দিন সোমবার। পরদিন হোলি। শনি-রবি মিলিয়ে পলাশ-ভ্রমন হতেই পারে। নতুবা নিছক দোল-আড্ডায় বসন্ত যাপন। এপ্রিলে গুড ফ্রাইডে। ১০ এপ্রিল। শুক্রবার। আপনাকে আর পায় কে? তবে আরও তিন দিনের ব্রেক রয়েছে অপেক্ষায়। এপ্রিলেই নববর্ষ আর অম্বেডকরের জন্মদিন পড়েছে একই মঙ্গলবারে, ১৪ তারিখ। মাঝে সোমবারের বাধা। একটা সিএল, টানা পাঁচ দিনের ছুটি! মে-মাসেও মেপে পা ফেলুন। মে দিবস শুক্রবারে। একফালি ছুটি। ট্যুর অবকাশ। মিস হলেও কষ্ট পাবেন না ৷ সাতদিনের মধ্যেই বুদ্ধ পূর্ণিমা। ৭ মে, বৃহস্পতিবার। আর তার পরদিনই ৮মে। আপনার রবীন্দ্রপূজা। পরের দুদিন শনি-রবি। ফের চারদিনের লম্বা উইক-এন্ড। এরপর ২৫মে সোমবার। চাঁদ ওঠার ওপর নির্ভর করবে ঈদ উল ফিতর-এর দিন। অর্থাৎ ফের তিনদিনের ছুটি। পরের তিন মাস, জুন জুলাই আর অগাস্টে মাথাগুঁজে কাজ। পায়ের তলার সর্ষে সরিয়ে রাখুন, কারণ অগাস্টেও মার যাচ্ছে দুটো ছুটি। ঈদউদজোহা বা বকরি ঈদের দিন এবার পড়েছে শনিবার। ১ অগস্ট। ইংরাজি ক্যালেন্ডারে ১৫অগাস্ট, স্বাধীনতা দিবসও শনিবার। ফলে বন্ধ স্যাক-কাঁধে-ছুট। তবে, ঝুলি ভরে ছুটি দিচ্ছে সেপ্টেম্বর-অক্টোবর। মহালয়া ১৭ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার। শুক্রবার ছুটি নিলেই ফের ছুট। পুজোর আগে চারদিনের প্রি-পূজা-ভ্যাকেশন। গত বিজয়া থেকেই জানেন, এই বছর মহালয়া আর পুজোর ব্যবধান, একমাসের বেশি। তবে কাজে লাগাতে পারেন, গান্ধি-জয়ন্তীর দোসরা। সেদিন শুক্রবার। পরের শনি-রবি মিলিয়ে তিনদিনের ছুটি। আরেক প্রি-পূজা-ভ্যাকেশন। দুর্গা ষষ্ঠী ২২ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার। পুজো উত্সব শুরু। থামবেন সেই কোজাগরী লক্ষ্মীপুজোতে। ৩০ অক্টোবর। কিন্তু সেদিন আবার শুক্রবার। অর্থাত্ আবার তিনদিনের লং-ভ্যাকেশন। নভেম্বরে কালীপুজো। এক্সট্রা-ছুটি বাতিল। কারণ দিনটা শনিবার। মন খারাপের সুযোগ না দিয়েই নভেম্বরে লম্বা উইক-এন্ড দিচ্ছেন গুরু নানক। গুরু নানকের জন্মদিন ৩০ নভেম্বর। শুক্রবার। শনি-রবি মিলিয়ে বেরিয়ে পড়ুন। হাল্কা ঠান্ডা আমেজ প্রকৃতিতে।  ২০২০-র বড়দিন, ২৫ ডিসেম্বর কিন্তু শুক্রবার। মনকে চোখ ঠেরে আর কী বা করবেন। সারা বছরের ছুটি সম্বল করে বেরিয়ে পড়াই যায়।
First published: January 2, 2020, 12:05 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर