কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

বামেদের ধর্মঘটে অবরুদ্ধ রেল-পথ || সেন্ট্রাল মেট্রোর বাইরে ধস্তাধস্তি-লাঠিচার্জ

বামেদের ধর্মঘটে অবরুদ্ধ রেল-পথ || সেন্ট্রাল মেট্রোর বাইরে ধস্তাধস্তি-লাঠিচার্জ
যাদবপুরে রেল অবরোধ।

kলকাতা-সহ গোটা রাজ্যেই দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়াল রেল ও পথ অবরোধকে কেন্দ্র করে।

  • Share this:

#কলকাতা: ধর্মঘটের সমর্থনে দেশজুড়ে পথে নামলেন বাম ও কংগ্রেস কর্মীরা। কলকাতা-সহ গোটা রাজ্যেই দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়াল রেল ও পথ অবরোধকে কেন্দ্র করে। সকাল থেকেই শিয়ালদহের বিভিন্ন শাখায় রেল চলাচল ব্যহত হচ্ছে বামেদের বিক্ষোভের কারণে। ইতিমধ্যেই শ্যামনগরে অবরোধে শামিল ধর্মঘটীরা। চূচুড়া স্টেশনে শুরু হয়েছে অবরোধ ডায়মন্ডহারবার-লক্ষ্মীকান্তপুরে রেল যোগাযোগে বাধা দেওয়া হয়েছে। মধ্যগ্রাম স্টেশনে বচসা শুরু হয় ধর্মঘটী এবং নিত্যযাত্রীদের মধ্যে।

বেলা গড়াতেই সেন্ট্রাল মেট্রো স্টেশনে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করেন ধর্মঘটীরা। রাজাবাজারে ধর্মঘটীদের বিক্ষোভ। যাদবপুরে সুজন চক্রবর্তীর নেতৃত্বে এ দিন রেল অবরোধ চলে। পাশাপাশি লেনিন সরণিতে জোর করে দোকান বন্ধের অভিযোগ ওঠে বামেদের বিরুদ্ধে। অশান্তি দেখা যায় বারাসাতে। লাঠিচার্জ করে ধর্মঘটীদের সরাতে গেলে ধস্তাধস্তি শুরু হয়।

এ দিকে প্রতিবারের মতোই ধর্মঘটে সরকারি কর্মীদের অফিসে হাজিরা বাধ্যতামূলক এমন নোটিফিকেশন জারি করেছে রাজ্য সরকার। ফলে ভোগান্তি এড়িয়ে সময় মতো অফিস পৌঁছনোই আপাতত চ্যালেঞ্জ সরকারি কর্মীদের। সরকারি-বেসরকারি বাসই ভরসা আজ বহু মানুষের।

ধর্মঘটে যাতে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যায় তা নিশ্চিত করতে ৫ হাজার পুলিশকর্মী মোতায়েন করে রাজ্যপ্রশাসন। বৃহস্পতিবারের এই ধর্মঘটের আহ্বায়ক সিআইটিইউ, এআইটিইউসি, আইএটিইউ,ই. এইচএমএস, টিইউসিসি, এলপিএফ, সেবা, ইউটিইউসি-এর মতো সংস্থাগুলি। ধর্মঘটে দাবি তোলা হচ্ছে, দেশের সাধারণ মানুষের মাথাপিছু আয় বাড়ানোর। ট্রেড ইউনিয়ন নেতৃত্বরা বলছেন, করোনায় ধ্বস্ত দেশের অর্থনীতি, জিডিপি তলানিতে চলে গিয়েছে। পাশাপাশি বেড়েছে কলকরাখানা-সহ নানা বেসরকারি সংস্থায় ছাঁটাই। ছোট ব্যবসায়ীরাও তীব্র সঙ্কটে। এই অবস্থায় মানুষের আয় বাড়াতে কর্মসংস্থানের দাবিতে পথে নামছেন তাঁরা।

Published by: Arka Deb
First published: November 26, 2020, 11:38 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर