২৪ ডিসেম্বর যাদবপুরের সমাবর্তন কি হচ্ছে? সংঘাত আরও চরমপর্যায়ে

২৪ ডিসেম্বর যাদবপুরের সমাবর্তন কি হচ্ছে? সংঘাত আরও চরমপর্যায়ে

সমাবর্তন নিয়ে সংঘাত আরও চরমপর্যায়ে। সোমবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় কোর্টের বৈঠকে নিজেই যোগ দিতে যাচ্ছেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনখড়।

  • Share this:

Somraj Banerjee 

#কলকাতা: সমাবর্তন নিয়ে সংঘাত আরও চরমপর্যায়ে। সোমবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় কোর্টের বৈঠকে নিজেই যোগ দিতে যাচ্ছেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনখড়। ইতিমধ্যেই শনিবারের এক্সিকিউটিভ কাউন্সিলের বৈঠক কে বাতিল বলে ঘোষণা করেছেন রাজ্যপাল।মূলত শনিবারের এক্সিকিউটিভ কাউন্সিলের বৈঠকের সিদ্ধান্ত সোমবার কোর্টের বৈঠকে অনুমোদিত হওয়ার কথা। সেই বৈঠকে নিজেই সভাপতিত্ব করবেন বলে ট্যুইট করে জানালেন রাজ্যপাল নিজেই।

২৪ ডিসেম্বর যাদবপুরের সমাবর্তন কি হচ্ছে? অন্তত রবিবারের পরিস্থিতি আবারও প্রশ্ন তুলে দিল। শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক্সিকিউটিভ কাউন্সিল বিশ্ববিদ্যালয়়ে়ের সমাবর্তন পিছিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মূলত রাজ্যপাল ক্যাম্পাসে এলে ছাত্রবিক্ষোভের আশঙ্কা রয়েছে। এই কারণ দেখিয়ে শনিবার এমনই সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক্সিকিউটিভ কাউন্সিল। কারণ হিসাবে বিশ্ববিদ্যালয় জানিয়েছিল ছাত্রদের তরফে রাজ্যপালকে সমাবর্তনের দিন বয়কটের ডাক দেওয়া হয়েছে। ফলতঃ রাজ্যপাল এলে অশান্তি ও বিশৃঙ্খলা তৈরি হতে পারে। শনিবারই অবশ্য সমাবর্তন পিছিয়ে নেওয়া নিয়ে নিজের ক্ষোভ চেপে রাখেনি রাজ্যপাল। শিক্ষায় বিষ মিশিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছিলেেন তিনি। রবিবার আরো একধাপ এগিয়ে জানিয়ে দিলেন শনিবারের বৈঠক তিনি বাতিল করেছেন। তার হাতের ক্ষমতা ব্যবহার করে ইসির সিদ্ধান্ত খারিজ করছেন।

আরও পড়ুন - বাঙালি আবেগ আর উন্নয়নের আশ্বাস নিয়েই ঝাড়খন্ডে বাজিমাত করতে চান বাঙালি কন্যা মহুয়া

রাজ্যপাল সেই খারিজের কথা উপাচার্য কে চিঠি পাঠিয়ে জানিয়ে়ে দিয়েছেন। যদিও রাজ্যপাল এর হাতে এই ক্ষমতা আছে  নাকি তা  আইনজীবিদের মতামত নিচ্ছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে আচার্য তার পাঠানো চিঠিতে স্পষ্ট করে জানিয়েে দিিয়েছে শনিবারের ইসির সিদ্ধান্ত বেআইনি। চিঠিতে তিনি আরও বলেছেন আইনেে বলা আছে রাজ্যপাল মনে করলে ইসির বৈঠক বাতিল করার জায়গা রয়েছে আইনে। আর সেটাই তিনি করেছেন। যদিও বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফেে এখনো পর্যন্ত চিঠিি প্রাপ্তির কথা স্বীকার করা হয়নি। তবে শুধু চিঠি নয়, সোমবারের কোর্টের বৈঠকে তিনি যোগ দেবেন বলে জানিয়ে দিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে অবশ্য জানানো হয়েছে তিনি কোটের চেয়ারম্যান। আসলে আসতে পারেন। এদিকে সোমবার রাজ্যপালের ক্যাম্পাস এ যাওয়া নিয়ে অশান্তির আশঙ্কাক করছে বিশ্ববিদ্যালয়।

আরও দেখুন

First published: December 22, 2019, 7:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर