কলকাতায় 'গোলি মারো' স্লোগান: আরও ১ বিজেপি কর্মী গ্রেফতার

কলকাতায় 'গোলি মারো' স্লোগান: আরও ১ বিজেপি কর্মী গ্রেফতার

সোমবার 'গোলি মারো' স্লোগানের ঘটনায় জড়িত থাকায় ধৃত ৩ ব্যক্তির মধ্যে দুজনকে জামিন দেওয়া হল না৷ বয়সজনিত কারণে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জামিন পেয়েছেন একজন৷

  • Share this:

#কলকাতা: গত রবিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সভায় যোগ দিতে যাওয়া মিছিলে 'গোলি মারো' স্লোগান উঠেছে৷ ঘটনার পরেই ভিডিও ফুটেজ দেখে কড়া পদক্ষেপ করেছে রাজ্য প্রশাসন৷ আজ অর্থাত্‍ মঙ্গলবার ওই ঘটনায় আরও এক বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করল পুলিশ৷ ধৃত বিজেপি কর্মীর নাম সুজিত বড়ুয়া৷

সোমবার 'গোলি মারো' স্লোগানের ঘটনায় জড়িত থাকায় ধৃত ৩ ব্যক্তির মধ্যে দুজনকে জামিন দেওয়া হল না৷ বয়সজনিত কারণে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জামিন পেয়েছেন একজন৷ পাশাপাশি, এই ধরনের উস্কানি কড়া হাতে দমনেরও বার্তা দিলেন কলকাতা পুলিশের কমিশনার অনুজ শর্মা৷

'গোলি মারো' স্লোগানের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কলকাতার পুলিশ কমিশনার শহরের সমস্ত থানার আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছেন, কোনও রকম উস্কানি বা প্ররোচনামূলক কাজ বরদাস্ত করা হবে না। কেউ যদি কোনও ভাবে শান্তি নষ্ট করার চেষ্টা করেন এবং অশান্তি তৈরি করতে প্ররোচনা দেন। তাহলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা।

রবিবার ওই স্লোগানের জেরেই গ্রেফতার হন বিজেপি কর্মী সুরেন্দ্র কুমার তিওয়ারি, পঙ্কজ প্রসাদ ও ধ্রুব বসু। অভিযুক্ত সুরেন্দ্র কুমার তিওয়ারির বাড়ির লোক-সহ বিভিন্ন বিজেপি সমর্থকদের থানার সামনে থেকে সরাতেও দেখা যায় নিউমার্কেট থানার অফিসারদের।

অভিযুক্ত সুরেন্দ্র তিওয়ারির ভাই নরেন্দ্র তিওয়ারি এ দিন বলেন, তাঁর দাদাকে রবিবার রাত আড়াইটে নাগাদ কিছু কথা বলার জন্য থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এরপরেই তাকে গ্রেফতার করে৷

সোমবার তিন অভিযুক্তকে ব্যাঙ্কশাল আদালত পাঠায় পুলিশ। এ দিন বিচারক দীপাঞ্জন সেনের এজলাসে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির আইনজীবী সেলের প্রচুর সদস্য। আদালত কক্ষে শুনানি চলাকালীন তাঁরা বলেন স্লোগানে ব্যবহার করা ‘গদ্দার’ শব্দ কোনও সম্প্রাদায়ের ইঙ্গিত করে না। ১৫৩ এ ধারা প্রয়োগের বিরোধিতাও করেন তারা৷ সরকারি আইনজীবীরা পাল্টা বলেন, তদন্তের প্রয়োজনে ধৃতদের পুলিশি হেফাজতে রাখতে হবে। আদালত ৭১ বছর বয়সি ধ্রুব বসুকে শর্তসাপেক্ষে জামিন দিলেও দুই অভিযুক্তকে বুধবার পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত।

First published: March 3, 2020, 8:15 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर