• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • GOLFGREEN DEATH AN ELDERLY LADY SUSPICIOUS DEATH IN GOLFGREEN AREA SANJ

Golf Green Death : গল্ফগ্রিনে ছাদ থেকে পড়ে প্রৌঢ়ার রহস্যমৃত্যু! কারণ নিয়ে ধন্দে পুলিশ...

প্রতীকী ছবি।

Golf Green Death : প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে ছুটির দিন সকালে বাড়ির ছাদ থেকে ঝাঁপিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন বছর বাষট্টির ওই প্রৌঢ়া (Elderly Woman death)। ঘটনায় আশপাশের বাসিন্দাদের মধ্যে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে।

  • Share this:

#কলকাতা : রবিবার ছুটির দিনে এক মহিলার আকস্মিক মৃত্যুতে (Golf Green Death) চাঞ্চল্য  ছড়িয়ে পরে দক্ষিণ শহরতলীর গল্ফগ্রীণ এলাকায় (Golf Green)। প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে ছুটির দিন সকালে বাড়ির ছাদ থেকে ঝাঁপিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন বছর বাষট্টির ওই প্রৌঢ়া (Elderly Woman death)। ঘটনায় আশপাশের বাসিন্দাদের মধ্যে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। সত্যিই প্রৌঢ়া আত্মঘাতী হয়েছেন নাকি মৃত্যুর পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে, তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতার নাম বিনীতা মুখোপাধ্যায়। দক্ষিণ কলকাতার গল্ফগ্রিনের (Golf Green) রাসা রোডের বাড়িতে একাই থাকতেন তিনি। চাকরিজীবী ছেলে সস্ত্রীক থাকেন লখনউয়ে। রবিবার সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ হঠাৎই ভারী কিছু পড়ার শব্দ পান প্রতিবেশীরা। বেরিয়ে এসে দেখেন রাস্তার উপর রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন ৬২ বছরের প্রৌঢ়া। সঙ্গে সঙ্গে গল্ফগ্রিন থানায় খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।

ঘটনার পরে ইতিমধ্যেই খবর দেওয়া হয়েছে মহিলার ছেলে ও পুত্রবধূকে। তাঁদের সঙ্গে প্রৌঢ়ার সম্পর্ক কেমন ছিল, সে ব্যাপারেও জিজ্ঞাসাবাদ করবে পুলিশ। প্রতিবেশীরা জানাচ্ছেন, ছেলে ও পুত্রবধূ না থাকায় বাড়িতে একাই থাকতেন বিনীতা দেবী। করোনা আবহে একাকিত্বের জেরে মহিলা কোনোরকম মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন কি না, সে বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি এদিন সকালে তাঁর বাড়িতে কেউ গিয়েছিলেন কি না, সে খোঁজও নেওয়ার চেষ্টা চলছে। রাস্তার যে অংশে দেহটি পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছে, তাতে প্রাথমিকভাবে তৈরি হয়েছে ধন্দ। কারণ ঝাঁপ দিলে যেখানে পড়া উচিত, তার তুলনায় এই দেহের দূরত্ব সামান্য বেশি ছিল। এমনটাই জানাচ্ছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলেই বিষয়টি আরও পরিষ্কার হবে বলে জানিয়েছেন তদন্তকারী অফিসাররা।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: