corona virus btn
corona virus btn
Loading

কলকাতা বিমানবন্দরে বাড়ছে ‘পিক আওয়ার’, আরও বেশি বিমান ওঠানামা করবে এবার

কলকাতা বিমানবন্দরে বাড়ছে ‘পিক আওয়ার’, আরও বেশি বিমান ওঠানামা করবে এবার
Kolkata International Airport

কলকাতা বিমানবন্দরে বিমানের সংখ্যা বাড়াতে চাইছে কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক।

  • Share this:

#কলকাতা: কলকাতা বিমানবন্দরে পিক আওয়ার বাড়াতে চায় এয়ারপোর্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (AAI)। কলকাতায় বর্তমানে ঘণ্টা পিছু ৩০টি করে বিমান ওঠা-নামা করে। আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে সেই সংখ্যা বাড়াতে চায় কর্তৃপক্ষ। সেই কারণেই কলকাতা বিমানবন্দরে বাড়ছে Rapid ট্যাক্সিওয়ে। একইসঙ্গে কলকাতার আকাশে বিমানপিছু দুূরত্ব কমাতে চলেছে এটিসি।

দিল্লি, মুম্বই বিমানবন্দরের মতো কলকাতা বিমানবন্দরেও আধুনিক প্রযুক্তি বসানোর কাজ শেষ। ঘন কুয়াশা বা বৃষ্টি কলকাতা বিমানবন্দরে বিমান ওঠানামায় থাকবে না আর কোনও সমস্যা। বর্তমানে মুম্বই-দিল্লি বিমানবন্দরে ঘন্টা পিছু ৪০ থেকে ৪৫টি করে বিমান ওঠানামা করতে পারে। কলকাতায় সংখ্যাটা সেখানে মাত্র ৩০। যদিও কলকাতা থেকে আরও বেশি সংখ্যক বিমান চালাতে চায় একাধিক উড়ান সংস্থা। বিমান মন্ত্রকের তরফ থেকে সেই সঙ্কেত পেয়ে পাইলট-এটিসি-উড়ান সংস্থার প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠক করেন এয়ার ট্রাফিক ম্যানেজমেন্টের কর্তারা। বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ডিসেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে ঘণ্টা পিছু ৩৫টি করে বিমান ওঠানামা করবে।

কীভাবে তা সম্ভব  ?

কলকাতা বিমানবন্দরে এই মুহূর্তে চারটি ট্যাক্সিওয়ে আছে। তার মধ্যে একটি Rapid ট্যাক্সিওয়ে। ‘রোমিও’ নামের সেই ট্যাক্সি ওয়ে কলকাতায় খুব একটা ব্যবহার করা হয় না। পাইলটদের বক্তব্য, রানওয়ে থেকে একটি নির্দিষ্ট দুরত্ব মেপে ট্যাক্সিওয়ে তৈরি করা হয়। রানওয়েতে বিমান অবতরণের পরে এই ট্যাক্সিওয়ে ধরেই বিমান গিয়ে দাঁড়ায় টারম্যাকে। একইরকম ভাবে, টারম্যাক থেকে বিমান ট্যাক্সিওয়ে যায়, তারপর সেখান থেকে বিমান রানওয়ে পৌছয়। এটিসি-র সঙ্কেতের অপেক্ষা করে তারপর বিমান উড়ে যায়। এয়ার ট্র্যাফিক ম্যানেজমেন্টের কর্তারা জানাচ্ছেন, বিমান অবতরণের পরে তা ট্যাক্সিওয়ে ধরে টারম্যাক পর্যন্ত না গিয়ে সরাসরি Rapid ট্যাক্সিওয়েতে গিয়ে দাঁড়িয়ে যাবে। যাত্রীদের সেখানে নামিয়ে দেওয়া যাবে। এর ফলে কমবে সময়। বিশ্বের বিভিন্ন বিমানবন্দরে এই পদ্ধতি মানা হয়।

অন্যদিকে কলকাতার আকাশে দুটি বিমানের মধ্যে দুরত্ব থাকে ১২ কিলোমিটার। এয়ার ট্র্যাফিক ম্যানেজমেন্টের কর্তারা জানাচ্ছেন, এয়ার ট্র্যাফিক কন্ট্রোলের কর্তারা এই দুরত্ব কমাবেন শীঘ্রই । কলকাতা বিমানবন্দরে এখন আইএলএস-৩ প্রযুক্তি এসে গিয়েছে। ফলে ঘন কুয়াশা বা বৃষ্টিতে বিমান ওঠা-নামায় হবে না কোনও অসুবিধা।

আগামী সপ্তাহেই কলকাতায় আসছেন ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন অর্গানাইজেশন-এর প্রতিনিধিরা। দেশের মধ্যে একমাত্র কলকাতা বিমানবন্দরকেই তাঁরা বেছে নিয়েছে। ফলে কলকাতা বিমানবন্দরে বিমানের সংখ্যা বাড়াতে চাইছে কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক।

12324717753_aef7e1356d_b

First published: November 23, 2017, 3:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर