হোম /খবর /কলকাতা /
বিছানার ভাজে ভাজে লুকোনো লক্ষ লক্ষ টাকা! ১৯ বছরের ছেলের কাছে এত টাকা! ভয়াবহ ঘটনা

Fraud News: বিছানার ভাজে ভাজে লুকোনো লক্ষ লক্ষ টাকা! ১৯ বছরের ছেলের কাছে এত টাকা! ঘটনায় আতঙ্ক

Fraud News: ১৯ বছরের ছেলের কাছে কোথা থেকে এলো লক্ষ লক্ষ টাকা! জানলে চমকে যাবেন! কাণ্ড দেখে অবাক পুলিশও! জানুন

  • Share this:

#কলকাতা: ইন্টারনেটে প্রতারণার সংখ্যা প্রতিদিন বাড়ছে। প্রতারণার শিকার হচ্ছে প্রচুর মানুষ। ইন্টারনেটে জিনিস কম দামে বিক্রির প্রলোভন দিচ্ছে। এর উপর বিভিন্ন ধামাকারদার অফার তো রয়েছেই। সেই ফাঁদে পা দিচ্ছে প্রচুর মানুষ।  ইন্টারনেটে একটি বিখ্যাত শপিং সাইটে'মেসার্স মেসক্যাব ইন্ডিয়া লিমিটেড'নামে একটি কোম্পানি তাদের বিজ্ঞাপন দেয়।তারা জানায় ওই কোম্পানি দামে অনেক ছাড়ে নামি কোম্পানির জিনিস পত্র বিক্রি করছে। সেই বিশ্বাসে প্রচুর মানুষ ওই কোম্পানির অ্যাকাউন্টে টাকা জমা দিতে থাকে। তার মধ্যে কলকাতার এক ব্যক্তি ৩৭,৯৯৯ টাকা দিয়ে প্রতারিত হন।

তিনি বারে বারে টাকা ফেরতের জন্য ফোন করলে কোনো ভাবে টাকা ফেরত দেয়নি।  অবশেষে ওই ব্যক্তি,কলকাতা পুলিশের সাইবার-ক্রাইম থানার দ্বারস্থ হয়। সাইবার ক্রাইম থানা তদন্ত শুরু করে। তারা জানতে পারে,যে অ্যাকাউন্ট নম্বর ব্যবহার করছিল প্রতারক।সেই অ্যাকাউন্টে প্রতিদিন টাকা ঢুকছে।সেই টাকা উঠেও যাচ্ছে।তদন্তকারীরা জানতে পারে,ওই অ্যাকাউন্টটি রূপম@রামপ্রসাদ সরকারের নামে রয়েছে।একাউন্টের দেওয়া ঠিকানা অনুযায়ী গতকাল রাত ৯টা নাগাদ পুলিশ রাম প্রসাদের বাড়িতে পৌঁছায়।  রামপ্রসাদ,বাঁকুড়া জেলার কতুল পুরের বাসিন্দা। বয়স ১৯ বছর। গতবছর উচ্চমাধ্যমিক পাশ করে কম্পিউটার সায়েন্স নিয়ে ভর্তি হয়েছে।পুলিশ তার বাড়িতে গিয়ে বিভিন্ন কোম্পানির ২৮৬ টি সিম কার্ড,তিনটি মোবাইল ফোন পেয়েছে। সঙ্গে হার্ড ডিস্ক,ল্যাপটপ,ফিঙ্গার প্রিন্ট স্ক্যানার,ডেবিট কার্ড,চেক বুক থেকে আরম্ভ করে আরও কিছু জিনিস পায়।

আরও পড়ুন:  সব সময় মোবাইলে চোখ! স্ট্রেস! সুস্থ জীবন পেতে হলে জানুন স্মার্টফোনের হাত থেকে মুক্তির উপায়!

তারপর পুলিশ বাড়ি তল্লাশি করতে গিয়ে রূপমের বই খাতা,ও বিছানার ভাঁজ থেকে মোট ৫,৯১,৫০০ টাকা পায়। প্রতিটি নোটই ৫০০ টাকার।  বিষয়টি দেখার পর,রূপমের বাবা অনুপ সরকার রীতিমত আকাশ থেকে পড়ে। তার দাবী, তিনি ছেলের এই বিষয়ে কোনও কিছুই জানতেন না।বিষয়টা এলাকায় চাউর হওয়ার পরই প্রতিবেশীরা তাজ্জব হয়ে যায় বিষয়টি জেনে ।  পুলিশ তাকে গত রাতেই গ্রেফতার করে কলকাতা নিয়ে চলে আসে।আজ তাকে ব্যানকশল কোর্টে তোলা হলে,৫ই ডিসেম্বর পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেয়। তবে এই চক্রের পেছনে আর কেউ জড়িয়ে আছে কি না,সেটার খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

SHANKU SANTRA

Published by:Piya Banerjee
First published:

Tags: Bankura, Fraud News, Kolkata