‘প্রাকৃতিক দুর্যোগে, প্রকৃতি সহায়ক’ - নয়া প্রকল্প আনছে রাজ্য সরকার

West Bengal's government special scheme to fight natural calamity

রাজ্য পরিবেশ দফতর নয়া প্রকল্পের নাম দিয়েছে, প্রাকৃতিক দূর্যোগে, প্রকৃতি সহায়ক।

  • Share this:

#কলকাতা: প্রতি বছর নিয়ম করে রাজ্যে আছড়ে পড়ছে ঘূর্ণিঝড়। এছাড়া নানা প্রাকৃতিক দূর্যোগে রাজ্যকে রীতিমতো দুশ্চিন্তায় থাকতে হয়। প্রকৃতিকে কাজে লাগিয়ে প্রাকৃতিক দূর্যোগের মোকাবিলা কিভাবে করতে পারা যায় তার জন্যে রাজ্য চালু হচ্ছে নয়া প্রকল্প। রাজ্য পরিবেশ দফতর নয়া প্রকল্পের নাম দিয়েছে, প্রাকৃতিক দূর্যোগে, প্রকৃতি সহায়ক।

 ইতিমধ্যেই নয়া প্রকল্পের কাজ কিভাবে এগোবে তা নবান্নের সাথে  আলোচনা করা হচ্ছে৷ রাজ্যের পরিবেশ মন্ত্রী রত্না দে নাগ জানিয়েছেন, 'পরিবেশ দূষণ একটা জটিল সমস্যা। কেউ এর মোকাবিলা করতে পারে না। আমাদের প্রত্যেককে সচেতন হতে হবে। বনাঞ্চল, মাটি, জলাভূমি আমাদের রক্ষা করতে হবে।' এর পাশাপাশি রাজ্য সরকার চাইছে দ্রুত পূর্ব কলকাতা জলাভূমি নিয়ে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করতে। শহরের অক্সিজেন জোগায় এই পূর্ব কলকাতা জলাভূমি। ফলে এই জলাভূমিকে রক্ষা করতে না পারলে কলকাতা সহ পাশ্ববর্তী জেলায় শুরু হয়ে যাবে জলের সংকট। নষ্ট হয়ে যাবে প্রাকৃতিক সম্পদ। তাই এই জলাভূমিকে বাঁচাতে ১২০ কোটি টাকার প্রকল্প নিয়েছে রাজ্য সরকার। মন্ত্রী রত্না দে নাগ জানিয়েছেন, 'দূষণ নিয়ন্ত্রণে পূর্ব কলকাতার জলাভূমি কলকাতার ফুসফুস হিসাবে কাজ করে। তাই একে রক্ষা আমাদের করতেই হবে।'

পরিবেশ দফতরের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব বিবেক কুমার জানিয়েছেন, 'পূর্ব কলকাতা জলাভূমি পরিবেশের সম্পদ। এটাকে আমরা শহরের ফুসফুস এবং কিডনি বলতে পারি। এই সম্পদকে আমরা কীভাবে রক্ষা করবো তার পাঁচ বছরের প্ল্যান তৈরি করেছি। ১২০ কোটি টাকার প্ল্যান। এর মধ্যে পাঁচটি বিষয় আছে। কেউ এই জলাভূমিকে আক্রমন করলে কীভাবে আটকাবে! এটা আইনগত দিক। তাছাড়া যাঁরা মৎস্যচাষ বা কৃষি কাজ করছে এই জলাভূমিকে কেন্দ্র করে তাদের অর্গানিক সিস্টেমে কী করে কাজ করাতে পারি তা দেখা হবে। রিসার্চ করা হবে। তাছাড়া দিঘা এবং সুন্দরবনের জন্য কোস্টাল জোনাল ম্যানেজমেন্ট প্ল্যান তৈরি করা হয়েছে। সেই মতোই কাজ হবে।'

ABIR GHOSHAL

Published by:Debalina Datta
First published: