Home /News /kolkata /
Dilip Ghosh: "ওরা কাঁকড়ার মত, কাউকে উপরে উঠতে দেবে না...", কোন প্রসঙ্গে বিস্ফোরক মন্তব্য দিলীপের?

Dilip Ghosh: "ওরা কাঁকড়ার মত, কাউকে উপরে উঠতে দেবে না...", কোন প্রসঙ্গে বিস্ফোরক মন্তব্য দিলীপের?

দিলীপ ঘোষ

দিলীপ ঘোষ

Dilip Ghosh: বৃহস্পতিবার দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‌পদ্মশ্রী–পদ্মভূষণ পুরষ্কার দেওয়া হয় ব্যক্তির কৃতিত্ব দেখে। কাজ দেখে। সেখানে নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতা করতে গিয়ে এইসব রাজনীতি করা হচ্ছে।

  • Share this:

    #কলকাতা: প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের (Buddhadeb Bhattyacharya) পদ্মশ্রী প্রত্যাখ্যান প্রসঙ্গে এবার কম্যুনিস্টদের একযোগে কটাক্ষ করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। বৃহস্পতিবার দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‌পদ্মশ্রী–পদ্মভূষণ (Padma Award) পুরষ্কার দেওয়া হয় ব্যক্তির কৃতিত্ব দেখে। কাজ দেখে। সেখানে নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতা করতে গিয়ে এইসব রাজনীতি করা হচ্ছে। কমিউনিস্টরা কাঁকড়ার মতো। কাউকে উপরে উঠতে দেয় না। জ্যোতিবাবুকে প্রধানমন্ত্রী হতে দেননি। বুদ্ধবাবুকে পদ্মভূষণ পুরষ্কার নিতে দিলেন না। পার্টিই ঠিক করে দিচ্ছে। বুদ্ধবাবু সজ্জন ব্যক্তি। এই ঘটনার পর তিনি পুরষ্কার নেন কী করে!‌’‌

    গুলাম নবি আজাদ কে সম্মান দেওয়া নিয়ে দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) বৃহস্পতিবার বলেন, "ওঁর সঙ্গে সবার ভালো সম্পর্ক। কেন রাজনীতির লোক বলে দেওয়া যাবে না? তাঁর স্বীকৃতিকে স্বীকার করা যাবে না? প্রণব বাবুকেও ভারত রত্ন দেওয়া হয়েছিল।" তিনি আরও যোগ করেন, কিছু লোক ঈর্ষাপরায়ণ লোকের ভালো দেখতে পারে না, কিছু লোক মোদির বিরোধিতা করতে গিয়ে পায়ে কুড়ুল মারছে।"

    একইসঙ্গে দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) রাজ্যকে নেতাজি ট্যাবলো খোঁচা দিয়ে বলেন, "রেডরোডে প্যারেডে ট্যাবলো কেন নেওয়া হল না দিল্লিতে তাই নিয়ে আন্দোলন চলছে, পুরস্কার দেওয়া নিয়েও আন্দোলন, কেন দেওয়া হবে? সব কিছুতেই অপমান! আগে তো ঠিক করুন কোনটা মান আর কোনটা অপমান? যাঁদের কোনও মান নেই অপমান নেই তারা এসব নিয়ে চিন্তা করে।"

    বৃহস্পতিবার তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলীয় সাংসদদের নিয়ে ভার্চুয়াল বৈঠক করতে চলেছেন। বাজেট অধিবেশনে সাংসদদের রণকৌশল ঠিক করতেই এই বৈঠক বলে সূত্রের খবর। এবার এই বৈঠক নিয়ে মুখ খুললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, "আমিও সাংসদ আমাকে তো ডাকেনি, জানি না কী সমস্যা। উপরের স্তরে সমস্যা আছে, সিনিয়ররা লড়লে কী করে সমন্বয় থাকবে।"

    এদিন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতিকে  (Dilip Ghosh) জিজ্ঞাসা করা হয়, এখন কী পিকনিক পলিটিক্স চলছে?‌ জবাবে তিনি বলেন, ‘‌শান্তনু পিকনিক করছে তো কী হয়েছে! আমিও কাল পিকনিক করেছি। সবাই পিকনিক করছে। পিকনিক করে সবাইকে একত্রিত হতে বলা হচ্ছে দল থেকে। কাম টুগেদার। থিঙ্ক টুগেদার।’‌

    স্কুল খোলা নিয়ে আজ হাইকোর্ট শুনানি প্রসঙ্গেও সরব হন দিলীপ ঘোষ। ছাত্র ছাত্রীদের উপযুক্ত পড়ার পরিবেশ দিতে স্কুল খুলে দেওয়া উচিত বলে তিনি মনে করেন বলেই জানান বিজেপি নেতা। তাঁর কথায়, "ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। তবে এখনও শিশুদের বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা ভাবছেন কী করা যায়। কিন্তু সেকেন্ডারি সেকশন খুলে দেওয়া উচিত বলে মনে করছি। এখন মাস্ক লাগিয়ে সাবধানতা নিয়ে পড়ুয়ারা স্কুল যেতে পারে।"

    হিরণ চট্টোপাধ্যায়ের 'অভিভাভকহীন' মন্তব্যেও সাংবাদিকদের প্রশ্নে এদিন প্রতিক্রিয়া জানান দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, "গোটা পাটিতে অনেক অভিভাবক আছে যাঁর দরকার সে ঠিক খুঁজে নেয়।"

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published:

    Tags: Buddhadeb Bhattacharjee, CM Mamata Banerjee, Dilip Ghosh

    পরবর্তী খবর