• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ভাড়া বাড়লেও ভোগান্তি কমেনি, শহরে হলুদ ট‍্যাক্সির জুলুমবাজি অব‍্যাহত !

ভাড়া বাড়লেও ভোগান্তি কমেনি, শহরে হলুদ ট‍্যাক্সির জুলুমবাজি অব‍্যাহত !

Representational Image

Representational Image

কিছুদিন আগে পর্যন্ত লাগাতার জ্বালানির দাম বেড়েছে। সেই মতো মালিকদের দাবি মেনে বাস-ট্যাক্সির ভাড়া বাড়িয়েছে রাজ‍্য সরকার।

  • Share this:

    #কলকাতা: কিছুদিন আগে পর্যন্ত লাগাতার জ্বালানির দাম বেড়েছে। সেই মতো মালিকদের দাবি মেনে বাস-ট্যাক্সির ভাড়া বাড়িয়েছে রাজ‍্য সরকার। সোমবার থেকে সেই বর্ধিত ভাড়া কার্যকর হল। কিন্তু, বসে যাওয়া বহু বাস এ দিনও পথে নামেনি। ট‍্যাক্সির জুলুমবাজিও অব‍্যাহত।

    সোমবার থেকে বর্ধিত ভাড়া কার্যকর। কিন্তু, ভাড়া বৃদ্ধির দাওয়াইয়ের পরেও বসে থাকা বহু বাসই এ দিনও বসেই থাকল। হলুদ ট‍্যাক্সিও আছে হলুদ ট‍্যাক্সিতেই। সেই মিটার ছেড়ে অন‍্যায‍্য ভাড়া চাওয়া এবং প্রত‍্যাখানের পুরনো রোগ অব্যাহত।

    হলুদ ট‍্যাক্সিতে এতদিন উঠলেই ২৫ টাকা দিতে হত। এই ২৫ টাকায় যাওয়া যেত ২ কিলোমিটার। এই ন‍্যূনতম ভাড়া বেড়ে হয়েছে ৩০ টাকা। এতদিন প্রতি ২০০ মিটার দূরত্ব গেলে ২ টাকা চল্লিশ পয়সা করে ট‍্যাক্সির ভাড়া বাড়ত। সেটাই এ দিন থেকে বেড়ে হয়েছে তিন টাকা। হলুদ ট‍্যাক্সিতে ওয়েটিংয়ের জন‍্য এক মিনিট ১২ সেকেন্ডে লাগত এক টাকা চল্লিশ পয়সা। যা এ দিন থেকে বেড়ে হয়েছে ২ টাকা।

    এ ভাবে ভাড়া বাড়ার পরেও হলুদ ট‍্যাক্সির জুলুমবাজির কিন্তু শেষ নেই। সেই মুখের উপর ' ট্যাক্সিচালকদের ‘না’... ! যারা যেতে রাজি, তারা আবার মিটারে যেতে রাজি নন। তাঁদের আবদার, দিতে হবে থোক টাকা। ভুক্তভোগীদের প্রশ্ন, ভাড়া বাড়ার পরেও কেন হলুদট‍্যাক্সির জন‍্য এ ভাবে ভোগান্তিতে পড়তে হবে ?

    বেঙ্গল ট‍্যাক্সি অ‍্যাসোসিয়েশন, সভাপতি, বিমল গুহর অবশ্য দাবি,

    রাজ‍্য সরকার যথেষ্ট ভাড়া বাড়িয়েছে। যা চাওয়া হয়েছিল তাই মেনে নিয়ে বাড়ানো হয়েছে। ট‍্যাক্সিমালিকদের অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। তারপরও ইচ্ছে মতো কেউ টাকা চাইলে সেটা অন‍্যায়। পরিবহন দফতরকে বলছি ট‍্যাক্সিচালকদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব‍্যবস্থা নিতে ৷

    সোমবার থেকে বর্ধিত বাস ভাড়াও কার্যকর হয়েছে। কিন্তু, এরপরেও বহু বসে যাওয়া বাসই এ দিন পথে নামেনি। চার বছর পর এবার বাসের ভাড়া বেড়েছে। অনেক বাস মালিকেরই দাবি, জ্বালানি এবং আনুষাঙ্গিক খরচ এতটাই বেড়ে গিয়েছে যে বাস চালানো তাদের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। এই কারণেই কয়েক হাজার বাস গত এক বছরে বসে গিয়েছে। এবার ভাড়া বাড়ানো হল। কিন্তু, তারপরেও সেই সব বাস কিন্তু এ দিন পথে নামেনি।

    ট্রামের ভাড়া এক পয়সা বাড়ানোর প্রতিবাদে একসময় আগুন জ্বলতে দেখেছে এ শহর। কিন্তু, সে স্মৃতি এখন ফিকে। সময়ও আমূল বদলেছে। সাধারণ যাত্রীরা এখন বলছেন, ভাড়া একটু বাড়ালে অসুবিধা নেই। কিন্তু, পরিষেবাটা যেন ভাল মেলে।

    অনেকে বলছেন, ভাড়া বাড়ানোর পরে এবার বেসরকারি বাসের সংখ‍্যা বাড়লে এবং হলুদ ট‍্যাক্সি যদি জুলুমবাজি বন্ধ করে তবেই সুরাহা হবে সাধারণ মানুষের। কিন্তু, তা কি আর হবে ? হলেই বা কবে হবে ? প্রশ্ন ভুক্তভোগীদের।

    First published: