রাজ্যে বাড়ছে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা, অজানা জ্বরে মৃত্যুতেও ছড়াচ্ছে আতঙ্ক

রাজ্যে বাড়ছে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা, অজানা জ্বরে মৃত্যুতেও ছড়াচ্ছে আতঙ্ক
Dengue

রাজ্যে বাড়ছে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা, অজানা জ্বরে মৃত্যুতে ছড়াচ্ছে আতঙ্ক

  • Share this:

 #কলকাতা: ফের ডেঙ্গিতে মৃত্যু। রবিবারের পর সোমবারও হাওড়া ও উত্তর চব্বিশ পরগনার ডেঙ্গিতে মৃত্যু হল দুজনের। বেলেঘাটা আইডিতে মৃত্যু হল দেগঙ্গার বাসিন্দা সফিক আলি মোড়লের। হাওড়া হাসপাতালে মৃত্যু হয় রুনু দে নামে এক মহিলার। অন্যদিকে গত চব্বিশ ঘণ্টায় অজানা জ্বরে দেগঙ্গা, বারাসত, বসিরহাটে ও দুর্গাপুরেও ছ’জনের মৃত্যু হয়েছে। অজানা জ্বর কি আসলে ডেঙ্গি? তা নিয়ে তৈরি হয়েছে ধন্দ। অজানা জ্বরে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে এলাকায়।

রবিবারের পর ফের ডেঙ্গিতে মৃত্যু হাওড়ায়। হাওড়া হাসপাতালে মৃত্যু হয় শরৎ চ্যাট্টার্জি রোডের বাসিন্দা রুনু দে-র। ২০ অক্টোবর জ্বর নিয়ে হাসপাতালের আইসিইউতে ভরতি হন রুনু। ডেথ সার্টিফিকেটে মৃত্যুর কারণ হিসেবে ডেঙ্গির কথা উল্লেখ করা আছে।

জ্বরে মৃত্যু মিছিল অব্যাহত উত্তর চব্বিশ পরগনাতেও। ডেঙ্গিতে মৃত্যু হয়েছে দেগঙ্গার বাসিন্দা সফিক আলি মোড়লের। চাঁপাতলা পঞ্চায়েতের কেয়াডাঙা চাঁদপুর গ্রামের বাসিন্দা সফিককে প্রথমে হাড়োয়া প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র, পরে বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি করা হয়। সেখানেই মৃত্যু হয় সফিকের।

বারাসতের নেতাজিপল্লীর বাসিন্দা সাতাশ বছরের লিটন মণ্ডলের মৃত্যু হয় আরজিকর হাসপাতালে। জ্বরে দেগঙ্গায় মৃত্যু হয়েছে আরও তিন জনের।বারাসত হাসপাতালে মৃত্যু হয় চৌরাশি পঞ্চায়েতের দক্ষিণ মাটি কুমড়া গ্রামের বাসিন্দা আতিয়া বিবির। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় সুবণপুর লিচুতলার বাসিন্দা নূর জাহান বিবির। মাত্র সাতদিন আগে জ্বরে মৃত্যু হয়েছে তাঁর পূত্রবধূরও। জ্বরে মৃত্যু হয়েছে মোহনপুর গ্রামের বাসিন্দা মাফুরা বিবির। অন্যদিকে জ্বরে হাসনাবাদের জলশেরিয়া গ্রামের বাসিন্দা এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

অজানা জ্বরের থাবা দুর্গাপুরেও । ভিরিঙ্গি এলাকায় জ্বরে মৃত্যু হল গোবিন্দ বাগদি নাম তেইশ বছরের যুবকের। রবিবার দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। অজানা জ্বর নিয়ে এই হাসপাতালে ভর্তি ২০ জনের বেশি রোগী। এলাকা সাফাই অভিযানে নেমেছেন পুরকর্মীরা।

অজানা জ্বর কি আসলে ডেঙ্গি? জ্বর নিয়ে ক্রমেই বাড়ছে ধন্দ। রক্ত পরীক্ষা করে ফল জানার আগেই এক এক করে মৃত্যু হচ্ছে। অজানা জ্বরে আতঙ্কে এলাকা ছাড়ার কথা ভাবছেন অনেকে।

First published: 08:39:49 AM Oct 24, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर