Cyclone Yaas Precautions: আছড়ে পড়তে চলেছে সাইক্লোন ইয়াস, দুর্যোগের সময়ে কী করবেন কী করবেন না জানুন

ফুঁসছে সমুদ্র। দুর্যোগে কী করবেন কী করবেন না গাইডলাইন জানুন-

Cyclone Yaas Precautions:দুর্যোগের দিনগুলিতে কী করবেন কী করবেন না জানুন-

  • Share this:

    #কলকাতা: আরও একবার চোখ রাঙাচ্ছে ঘুর্ণিঝড়। লণ্ডভণ্ড হতে পারে রাজ্যের বিস্তীর্ণ অংশ। ঝোড়ো হাওয়া, ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দুই মেদিনীপুর, দুই চব্বিশ পরগণায়। দুর্যোগের সম্ভাবনা রয়েছে বাঁকুড়া, পুরুলিয়াতেই। এই পরিস্থিতিতে প্রশাসন যেমন তৎপরতার সঙ্গে ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলার চেষ্টা করছে,তেমনই সতর্ক থাকতে হবে সাধারণ মানুষকে। গুজব প্রতিহত করে, আমফানের শিক্ষা কাজে লাগিয়েই সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে হবে। দুর্যোগের দিনগুলিতে কী করবেন কী করবেন না জানুন- ইয়াসের মোকাবিলায় কী করবেন কী করবেন না-

    • ওষুধ ও অন্যান্য মূল্যবান সামগ্রীগুলি হাতের কাছে রাখুন। আগে থেকে জল সঞ্চয় করে রাখতে হবে। শুকনো খাবারও সঞ্চয়ে রাখা জরুরি। দুর্যোগের সময়ে বাড়ির যাবতীয় বৈদ্যুতিন যন্ত্রপাতির সুইচ বন্ধ রাখা ও প্লাগ খুলে রাখা জরুরি।
    • দুর্যোগের সময়ে সবচেয়ে বড় শত্রু গুজব। হোয়াটস অ্যাপে ফরোয়ার্ড হওয়া মেসেজ, ছবিকে কোনও ভাবেই গুরুত্ব দেবেন না। সাইক্লোনের সঠিক আপডেট পেতে নিউজ১৮ বাংলার ওয়েবসাইট বা অন্য বিশ্বাসযোগ্য ডিডিটাল মাধ্যম বা টিভি-প্রিন্ট মাধ্যমেই ভরসা রাখুন।
    • এই প্রতিবেদন লেখার ৭২ ঘণ্টা আগে থেকেই মৎস্যজীবীদের সতর্ক করা হয়েছে কোনও ভাবেই সমুদ্রে না যেতে।
    • ঘূর্ণিঝড়ের প্রকোপ পড়ার সম্ভব রয়েছে এমন এলাকার মানুষকে অবশ্যই সাইক্লোন সেন্টারে যেতে হবে। বিশেষত যাঁরা কাঁচা বাড়িতে রয়েছেন।
    • নিজের মূল্যবান নথিগুলি আলাদা করে বাঁচিয়ে রাখুন। মোবাইল ফোনগুলি আগেভাগে চার্জ করিয়ে রাখুন। এখন যত সম্ভব কম ব্যবহার করুন এই যন্ত্রগুলি, যাতে পরে বিদ্যুৎ না থাকলেও মোবাইলের পরিষেবা পেতে পারেন দীর্ঘক্ষণ।
    • ঝড়বৃষ্টির সময়ে খোলা জায়গায় থাকবেন না। বিদ্যুতের স্তম্ভ,তার সম্পর্কে সতর্ক হতেই হবে। কোনও ভাবেই স্পর্শ করবেন না। সিইএসসির হেল্পলাইন নম্বর- 3501-1912, 44031912, 18605001912, হোয়াটসঅ্যাপ ৭৪৩৯০০১৯১২ সঙ্গে রাখুন।
    • গৃহপালিত পশুদের খুঁটে বেঁধে রাখবেন না। যাতে ওরাও সাইক্লোনের সময়ে বাঁচতে সঠিক জায়গায় আশ্রয় নিতে পারে, সেই ব্যবস্থা রাখুন।
    Published by:Arka Deb
    First published: