মোদির সঙ্গে বৈঠক করেই ধর্মতলার ধর্নায় মমতা, বললেন, 'সিএএ অসাংবিধানিক৷ কেন্দ্রের ঘুম ভাঙাবে মানুষ৷'

মোদির সঙ্গে বৈঠক করেই ধর্মতলার ধর্নায় মমতা, বললেন, 'সিএএ অসাংবিধানিক৷ কেন্দ্রের ঘুম ভাঙাবে মানুষ৷'
টিএমসিপি-র ধর্নায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

শনিবার রাজভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষ করে বেরিয়েই মমতার কনভয় চলে যায় ধর্মতলায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ধর্নায়৷

  • Share this:

#কলকাতা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক শেষ করেই সোজা ধর্মতলায় সিএএ-এনআরসি বিরোধী তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ধর্না মঞ্চে চলে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেই মঞ্চে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বেলুড়মঠে রাত্রিবাসকে মমতার কটাক্ষ, 'কেউ হঠাত্‍ ছুটে যায় বেলুড়মঠে৷ আমরা বিবেকানন্দের সঙ্গেই থাকি৷'

শনিবার রাজভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষ করে বেরিয়েই মমতার কনভয় চলে যায় ধর্মতলায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ধর্নায়৷ সেখানে সিএএ ও এনআরসি-র বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে তৃণমূল নেত্রী বলেন, 'সিএএ এনআরসি আন্দোলনে গোটা দেশের পাশে আছে বাংলা৷ সিএএ শুধু কাগজে কলমে থাকবে, মানুষ না চাইলে লাগু হবে না৷ সিএএ অসাংবিধানিক৷ কেন্দ্রের ঘুম ভাঙাবে মানুষ৷ আমরা বেলুড়মঠের সঙ্গে আছি৷ ছাত্র-ছাত্রীরা আমাদের গর্ব৷ শেষ পর্যন্ত লড়ব৷ বাংলার মানুষ সিএএ এনআরসি মেনে নেবে না৷ আমরা লাগু করব না৷ জেগে ঘুমচ্ছে কেন্দ্র৷'

রাজভবনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ২২ মিনিট চলে বৈঠক৷ বিকেল সাড়ে ৪টে নাগাদ মোদির সঙ্গে বৈঠক করতে রাজভবনে যান মুখ্যমন্ত্রী৷ বৈঠক শেষে মমতা জানান, কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের প্রায় ৩৮ হাজার কোটি টাকা পাওনা রয়েছে৷ সেই বকেয়া টাকা দাবি করেছেন তিনি৷ একই সঙ্গে সিএএ ও এনআরসি নিয়েও মোদির কাছে আপত্তি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

এ দিন বৈঠক শেষে মমতা বলেন, 'প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করা আমার সাংবিধানিক অধিকারের মধ্যে পড়ে৷ রাষ্ট্রপতি বা প্রধানমন্ত্রী এলে আমি আগেও দেখা করেছি৷ এটা সাংবিধানিক অধিকার৷ আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলেছি, আপনি আমার অতিথি, তবু বলছি, আপনি সিএএ, এনআরসি নিয়ে আপনারা ভাবনাচিন্তা করুন৷ আমরা চাই প্রত্যাহার করুন৷ সিএএ, এনআরসি-র বিরুদ্ধে আন্দোলন চলবে৷'

First published: 06:19:01 PM Jan 11, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर