Home /News /kolkata /
Calcutta High Court: ২০১৭ সালের প্রাথমিক টেট-এও প্রশ্ন ভুল! ৮ প্রশ্ন নিয়ে নালিশ শুনবে হাইকোর্ট 

Calcutta High Court: ২০১৭ সালের প্রাথমিক টেট-এও প্রশ্ন ভুল! ৮ প্রশ্ন নিয়ে নালিশ শুনবে হাইকোর্ট 

টেট নিয়ে নতুন মামলার অনুমতি দিল হাইকোর্ট৷

টেট নিয়ে নতুন মামলার অনুমতি দিল হাইকোর্ট৷

২০১৭ সালের টেট-এর '৮টি প্রশ্ন' নিয়ে চ্যালেঞ্জ হাইকোর্টে। ৮টি ভুল প্রশ্ন নিয়ে আবেদন হাইকোর্টে। 

  • Share this:

#কলকাতা: ফের টেট বিড়ম্বনা প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের। পরপর তিনবার টেট-এর প্রশ্ন ভুল কেন? প্রশ্ন তুলে মামলা হাইকোর্টে। টেটে প্রশ্ন ভুলের নেপথ্যে কোনও কারণ লুকিয়ে রয়েছে কিনা তা জানতে নিরপেক্ষ তদন্তের আবেদন করা হয়েছে মামলায়।

২০১৭ সালের টেট-এর '৮টি প্রশ্ন' নিয়ে চ্যালেঞ্জ হাইকোর্টে। ৮টি ভুল প্রশ্ন নিয়ে আবেদন হাইকোর্টে। বিশেষজ্ঞ কমিটি গড়ে ৮টি প্রশ্নের নিষ্পত্তি চেয়েও আবেদন করা হয়েছে মামলায়। মঙ্গলবার মামলার অনুমতি দিয়েছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। শুক্রবার মামলার শুনানির সম্ভাবনা রয়েছে।

২০১২ সালের টেট-এর প্রশ্ন ভুলে প্রথম ধাক্কা খায় প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।সেবার টেটে প্রশ্ন ছিল, 'ম্যালেরিয়া রোগের বাহক মশা। কোন শহরে বসে এটা আবিষ্কার করেন স্যার রোনাল্ড রস?' পর্ষদের উত্তরের অপশনে শহরের নাম জানানো হয় হায়দরাবাদ। কিছু পরীক্ষার্থী জানান সঠিক উত্তর অপশন হবে কলকাতা শহর।

আরও পড়ুন: ভয়াবহ দুর্নীতি ডাক্তারির NEET পরীক্ষায়! মেডিকেলের আসন বিক্রি হচ্ছে ২০ লাখ টাকায়!

হাইকোর্ট ন্যাশানাল লাইব্রেরি থেকে রিপোর্ট নিয়ে জানায় সঠিক উত্তর কলকাতাই। জয় হয় মামলাকারীদের, হারে পর্ষদ। দ্বিতীয় দফায় ফের পর্ষদের বিরুদ্ধে ভুল প্রশ্ন করার অভিযোগ ওঠে। ২০১৪ সালের টেট পরীক্ষাতেও ৬টি প্রশ্ন ভুল বলে জানায় হাইকোর্ট। ৬টি ভুল প্রশ্নের উত্তর দিলেই ২০১৮ সালে ফুল মার্কস দেওয়ার নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। এই নির্দেশে অনেক মামলাকারী প্রাপ্য নম্বর পেয়ে টেট উত্তীর্ণ হয়। চাকরিও পান অনেকে।

তৃতীয় দফায় ২০১৭ টেট বিজ্ঞপ্তি জারি হয়। পরীক্ষা হয় ২০২১ সালের ৩১ জানুয়ারি। ফলাফল প্রকাশ পায় ২০২২ সালের জানুয়ারি মাসে। ২০১৭ সালের টেট পরীক্ষাতেও ভুল প্রশ্নের অভিযোগ পিছু ছাড়ল না৷ মামলাকারী রাজু গাজির আইনজীবী সুদীপ্ত দাশগুপ্ত জানান, 'পরপর ৩ বার নেওয়া টেটেই প্রশ্ন ভুলের ট্রেন্ড। তাই এবার নিরপেক্ষ তদন্ত চেয়ে মামলার অনুমতি নিয়েছি৷'

২০১৪ সালের টেটে প্রশ্ন ভুল ও তাতে বাড়তি ১ নম্বর দেওয়ার পর্ষদের সিদ্ধান্ত একক বেঞ্চের পর ডিভিশন বেঞ্চেও সমালোচিত হয়েছে। আইনজীবী ফিরদৌস শামিম জানান, টেটে ভুল প্রশ্ন করা হচ্ছে নির্দিষ্ট উদ্দেশ্য নিয়ে। ভুল অপশনে উত্তর দেওয়াটাও একটা ট্রেন্ড। ২০১৭ সালের টেটে এখনও পর্যন্ত ১১টি ভুল প্রশ্নের অভিযোগ পেয়েছি। শীঘ্রই বিষয়টি আদালতের নজরে আনবো।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Calcutta High Court, TET

পরবর্তী খবর