• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • এক নজরে রাজ্য বাজেট ২০১৭-১৮

এক নজরে রাজ্য বাজেট ২০১৭-১৮

রাজস্বের বেশিরভাগটাই বেরিয়ে যাচ্ছে ঋণ শোধ দিতে। নোট বাতিলের ধাক্কায় থমকে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প।

রাজস্বের বেশিরভাগটাই বেরিয়ে যাচ্ছে ঋণ শোধ দিতে। নোট বাতিলের ধাক্কায় থমকে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প।

রাজস্বের বেশিরভাগটাই বেরিয়ে যাচ্ছে ঋণ শোধ দিতে। নোট বাতিলের ধাক্কায় থমকে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প।

  • Share this:

    #কলকাতা: রাজস্বের বেশিরভাগটাই বেরিয়ে যাচ্ছে ঋণ শোধ দিতে। নোট বাতিলের ধাক্কায় থমকে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প। কেন্দ্রীয় প্রকল্পেও ব্যাপক কাঁটছাঁট। এই পরিস্থিতিতেও উন্নয়ন ও সামাজিক প্রকল্পগুলি চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার রাজ্য বাজেটে। বেশ কয়েকটি সামাজিক প্রকল্পের ব্যয় বরাদ্দ বাড়ল। কর আদায় কমলেও বাড়ানো হল সামাজিক প্রকল্পের বরাদ্দ।

    বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রের দাবি, রাজ্যে বৃদ্ধির হার ৯.২৭ শতাংশ হতে পারে।নোট বাতিলের ধাক্কা সামলাতে ২-৩ বছর লাগবে। নোট বাতিলে একের পর এক শিল্পক্ষেত্রে আঘাত এসেছে। এতকিছুর পরেও সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে সরছে না রাজ্য। প্রয়োজনে ঋণ নিয়েও চালানো হবে সামাজিক প্রকল্প।

    এক নজরে দেখে নিন কেমন হল রাজ্য বাজেট,

    নোট বাতিলের জের, রাজ্যে কমল কর আদায় অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র বলেন, ‘কর আদায়ের পরিমাণ ৪৮ হাজার ৯২৬ কোটি ৷ গতবারের তুলনায় প্রায় ১০ শতাংশ কম ৷ নোট বাতিলের প্রভাবেই কর আদায় কমেছে ৷ ২০১০-১১ সালের তুলনায় বাড়বে মূলধনী ব্যয় ৷ আগের সরকারের ঋণ বেড়ে দাঁড়াবে ৪৭ হাজার কোটি ৷ ’

    কর্মসংস্থান বাজেট ভাষণে অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র বললেন, ‘১ বছরে ১৩ লক্ষ কর্মসংস্থান রাজ্যে ৷ পরিকল্পনাখাতে ৬৪ হাজার ৭৩৩ কোটি বাজেট বরাদ্দ ৷ ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে বাজেট বরাদ্দ অর্থমন্ত্রীর ৷’

    বাণিজ্য কর আদায়ে নয়া উদ্যোগ রাজ্যের- ‘রাজ্যে নয়া ৪টি নতুন বাণিজ্য কর অফিস হবে আলিপুরদুয়ার, দিঘা, রাজারহাট ও কসবায় ৷’

    রাজ্য নয়া ৫ মেডিক্যাল কলেজ,রাজ্যে বাড়ছে MBBS আসনও ‘রাজ্যে আরও ৫টি মেডিক্যাল কলেজ ৷ কোচবিহার, রায়গঞ্জ, পুরুলিয়া, রামপুরহাট, ডায়মন্ড হারবার জেলা হাসপাতাল উন্নীত হবে মেডিক্যাল কলেজে ৷ বরাদ্দ বেড়ে হল ৭৫৭.৩৯ কোটি টাকা ৷ রাজ্যে বাড়ছে ৫০০ MBBS আসনও ৷ সবার জন্য বিনামূল্যে চিকিৎসা দেবে রাজ্য সরকার ৷’

    বাড়ি কেনায় বিশেষ সুবিধা- ‘স্ট্যাম্প ডিউটির উপর বিশেষ সুবিধা ৷ স্ট্যাম্প ডিউটি ৫ শতাংশ থেকে কমে ২ শতাংশ করা হল ৷ ৪ বছরের বাকি স্ট্যাম্প ডিউটিতে ছাড় ৷ সেল এগ্রিমেন্টের সময় ২ শতাংশ দিলেই চলবে ৷ বাড়ি তৈরির একবছরের মধ্যে রেজিস্ট্রিতে ২০ শতাংশ ছাড়’৷ বাজেট ভাষণে বললেন অমিত মিত্র ৷

    পরিবেশ ‘বন্ধু’ রাজ্য বাজেট রাজ্যে করমুক্ত পরিবেশবান্ধব সামগ্রী ৷ সেসমুক্ত থাকছে শিক্ষা-গ্রামীণ কর্মসংস্থান ৷ পরিবেশবান্ধব সামগ্রীতে ভ্যাট মকুব করা হচ্ছে ৷ আরও ১ বছর মকুব করা হল শিক্ষা সেস ৷ গ্রামীণ কর্মসংস্থানেও সেস মকুবের প্রস্তাব করছি ৷ ভ্যাটমুক্ত হচ্ছে সোলার ওয়াটার হিটার ৷ ভ্যাটমুক্ত হচ্ছে বায়ো ডিজেল, কেরোসিন স্টোভ, শালপাতার থালা ও প্লেটে টেরাকোটার টালি, হেয়ার ব্যান্ড ও হেয়ার ক্লিপও ৷’

    রাজস্ব আদায়ে ‘নজিরবিহীন’ কৃতিত্ব রাজ্যের ‘৬ বছরে ১০৩ শতাংশ রাজস্ব আদায় বৃদ্ধি রাজ্যে ৷ ২০১১ সালের তুলনায় ১০৩ শতাংশ বৃদ্ধি ৷ এঘটনা গোটা দেশে নজিরবিহীন ৷ রাজ্যের অর্থনৈতিক স্বাধীনতা বজায় রাখতে হবে ৷ যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো খর্ব করা যাবে না ৷ GSTতে সাধারণ মানুষের উপকার হবে ৷ GST-তে ক্ষতি হলে ক্ষতিপূরণ দেবে কেন্দ্র ৷’

    রাজ্যের বাজেটে কৃষি-ক্ষুদ্র শিল্পে বাড়তি গুরুত্ব কর্মহীন দক্ষ কারিগরদের জন্য বিশেষ সাহায্যের ঘোষণা রাজ্যের ৷ ভিনরাজ্য থেকে দক্ষ কারিগররা নোটবাতিলের জেরে কর্মহীন হয়ে রাজ্যে ফিরছেন ৷ ‘ভিনরাজ্য থেকে দক্ষ কারিগররা কর্মহীন হয়ে রাজ্যে ফিরছেন, তাঁদের সরকারি তরফে ৫০ হাজার টাকা করে এককালীন সাহায্য দেওয়া হবে ৷ ক্ষুদ্র ব্যবসা করার জন্য বাড়তি সহায়তাও করা হবে ৷ এরকম ৫০ হাজার কর্মহীন মানুষদের জন্য ৫০ হাজার টাকা করে বরাদ্দ করা হয়েছে ৷’

    এছাড়া কৃষি ও সমবায় ক্ষেত্রেও বরাদ্দ বাড়িয়েছে অর্থমন্ত্রী ঘোষণা করেন, ‘সমবায় ঋণে ১০০ কোটি টাকার তহবিল গড়ল রাজ্য ৷ ক্ষুদ্র ব্যবসায় সাহায্যের জন্য বরাদ্দ ৫০ কোটি ৷ কৃষকদের সাহায্যের জন্য ১০০ কোটির বিশেষ তহবিল গড়া হল রাজ্যে ৷’

    বাজেটে VAT ‘ক্ষুদ্র শিল্পে VAT-এর প্রাথমিক ধাপ বাড়ল ৷ ১০ লক্ষ থেকে বেড়ে হল ২০ লক্ষ ৷ VAT রেজিস্ট্রেশনও অনলাইন করা হল ৷’

    বাজেটে ভাতা বাড়ল আশা-অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের ‘অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের ৫০০ টাকা ভাতা বৃদ্ধি ৷ উপকৃত হবেন ২ লক্ষের বেশি অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী ৷ আশা কর্মীদের ভাতা বাড়ল ৫০০ টাকা, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশেই এই সিদ্ধান্ত ৷’

    অমিত বাজেটে ‘সমালোচিত’ জেটলি বাজেট ‘কেন্দ্রের বাজেট দিশাহীন ফাঁকা আওয়াজ ৷ দেশের উন্নতিতে বাধা হবে কেন্দ্রের বাজেট ৷ ভারতে জিডিপি বৃদ্ধির হার কমবে ৷’

    First published: