Home /News /kolkata /
Babul Supriyo: সুব্রতর সেই 'ছোকরা' এ কোন ভূমিকায়! একডালিয়ায় বাবুলের 'কীর্তি'তে অবাক সকলে

Babul Supriyo: সুব্রতর সেই 'ছোকরা' এ কোন ভূমিকায়! একডালিয়ায় বাবুলের 'কীর্তি'তে অবাক সকলে

একডালিয়ায় বাবুল সুপ্রিয়

একডালিয়ায় বাবুল সুপ্রিয়

Babul Supriyo: সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের একডালিয়া ক্লাবে চুটিয়ে ক্যারম খেললেন বালিগঞ্জ উপনির্বাচনের তৃণমূল প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়।

  • Share this:

#কলকাতা: কথায় বলে 'মঙ্গলে ঊষা, বুধে পা, যথা ইচ্ছা তথা যা।' এই প্রবাদের মতই বুধবার প্রচার শুরু করার আগে মঙ্গলে নিজের গুরুত্বপূর্ণ কাজটি সেরে ফেললেন বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। সপরিবারে বাবুল প্রয়াত রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ সেরে ফেললেন। বালিগঞ্জ উপনির্বাচনের তৃণমূল প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয় বালিগঞ্জের প্রাক্তন বিধায়কের বাড়িতে গিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে যেন বুঝিয়ে দিতে চাইলেন, 'আমি তোমাদেরই লোক'। প্রাক্তন বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় বারবারই ঝেড়ে ফেলতে চাইছেন নিজের পূর্বের গেরুয়া পরিচয়।

সুব্রত মুখোপাধ্যায়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে বাবুল হাজির হন একডালিয়া এভারগ্রিন ক্লাবে। জনসংযোগের হাতিয়ার কিনা জানা নেই, তবে ক্যারম খেলা হচ্ছে দেখেই নেমে পড়লেন খেলতে। এক বোর্ড খেললেন আর তাতেই পেলেন ১৩ পয়েন্ট। গায়ক বাবুল যে খেলোয়াড় হিসেবে পটু, তা নিঃসন্দেহে বোঝা গেল। বরাবরই ফুটবল প্রিয় বাবুল সুপ্রিয় ক্যারম সহ অন্যান্য খেলাতেও সিদ্ধহস্ত। খেলা শেষে বাবুলকে প্রশ্ন করা হয় তাহলে বালিগঞ্জে খেলা হবে?

উত্তরে তৃণমূল প্রার্থীর জবাব, "সব সময় খেলা হবে মুখে বলার দরকার নেই। খেলা তো হবেই। মুখে না বলেও তো অনেক খেলা খেলা যায়। দিদি যা দায়িত্ব দিয়েছেন তা অনুযায়ী কাজ করতে চাই।" সুব্রত মুখোপাধ্যায় পরিবারের সঙ্গে দেখা করার পর তাঁর প্রিয় একডালিয়া ক্লাবে পৌঁছে গিয়ে সদস্যদের সঙ্গে মিলেমিশে ক্যারম খেলা কি বার্তা দিতে চাইলেন সুব্রত বাবুর মত আপনিও বালিগঞ্জের একজন হতে এসেছেন? প্রচারের আগেই কি প্রচার শুরু? বাবুল সুপ্রিয়র স্পষ্ট জবাব, "খেলাধুলো আমি ভালোবাসি। দেবাশীষদার সঙ্গে সুব্রতদা প্রিয় ক্লাব ঘুরতে এসেছিলাম। দেখলাম খেলা হচ্ছে তাই নেমে পরলাম। এর মধ্যে আলাদা কোন কিছু নেই। দীর্ঘদিন বাইরে থাকতাম তাই বড় ম্যাচ বোর্ডে খেলার অভ্যেস চলে গিয়েছিল, বাইরে তো ছোট গুটির খেলা। তবে নিজেকে ঝালিয়ে নিয়ে দেখলাম এখনো স্কিলটা আছে কিনা। সবকিছুতে রাজনীতি খুঁজবেন না।"

আরও পড়ুন: 'এখানে কতজন পড়াশোনা করতে চাও?' ইউক্রেন ফেরত পড়ুয়াদের জন্য বিরাট ঘোষণা মমতার

সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে প্রথম আলাপটা মনে আছে? বাবুল এক নিমেষে মনে করে বলে দিলেন পুরনো দিনের কথা। "আমি তখনও রাজনীতিতে আসিনি। তখন শুধু গান করছি। লেকটাউনে সুজিতদার একটা রক্তদান শিবিরে বসে কলা, ডিম খাচ্ছিলাম। কিন্তু রক্ত দিছিলাম না। আচমকা দেখি সুব্রতদা এসে আমাকে লক্ষ্য করেছেন। আমাকে বললেন, কী ছোকরা শুধু খাচ্ছ, রক্ত দিচ্ছ না কেন? এভাবেই ওঁর সঙ্গে আমার পরিচয়। খুব মিশুকে মজার মানুষ ছিলেন। মাঝেমধ্যে আমি যখন বিজেপিতে ছিলাম হাফপ্যান্ট মন্ত্রী বলে কটাক্ষ করতেন ঠিকই। তবে সেটা তো সত্যিই ছিল। বাংলা থেকে এক জন কেন্দ্রীয় পূর্ণমন্ত্রী কেন করলেন না বিজেপির নেতৃত্ব? এই প্রশ্ন তো আমার মনেও রয়েছে। সেই কারণেই তো দল ছেড়েছি। বাঙালি কে অসম্মান করা।"

আরও পড়ুন: 'আমি নিরাপদ নই', প্রবল চাপের মুখে তোলপাড় অনুব্রত মণ্ডলের! গেল না দুশ্চিন্তাও

নিজের জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী বাবুল সুপ্রিয় এর বেশি কথা বাড়াতে চান না। মার্জিন কত হবে সেই প্রশ্নের উত্তরে স্পষ্ট জবাব, "এসব নিয়ে ভাবি না যা দায়িত্ব সেটা পালন। বাংলার উন্নয়নের সঙ্গী থাকতে পারাটাই আমার লক্ষ্য। দিদি যা দায়িত্ব দিয়েছে সব অক্ষরে অক্ষরে পালন করব।"

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: Babul supriyo, Subrata Mukherjee

পরবর্তী খবর