করোনাকালে নিয়মে বিপুল বদল, জেনে নিন কী কী নির্দেশিকা জারি করল স্টাফ সিলেকশন কমিশন

করোনাকালে নিয়মে বিপুল বদল, জেনে নিন কী কী নির্দেশিকা জারি করল স্টাফ সিলেকশন কমিশন

প্রতীকী চিত্র ।

কোভিড পরিস্থিতিতেই ছাত্রছাত্রীদের পরীক্ষায় বসতে হচ্ছে। সেই কারণে স্টাফ সিলেকশন কমিশন বা এসএসসি কিছু বিশেষ নির্দেশিকা জারি করেছে।

  • Share this:

#কলকাতা: দীর্ঘদিন ধরে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকলেও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা এ বার না নিলেই চলছে না। কারণ এই পরীক্ষা ও তার ফলাফলের উপর অনেক ছাত্রছাত্রীর কেরিয়ার নির্ভর করছে। তাই কোভিড পরিস্থিতিতেই ছাত্রছাত্রীদের পরীক্ষায় বসতে হচ্ছে। সেই কারণে স্টাফ সিলেকশন কমিশন বা এসএসসি কিছু বিশেষ নির্দেশিকা জারি করেছে।

এ বারে পরীক্ষা হলে গেলে বাড়তি কী কী থাকছে? অ্যাডমিট কার্ড এবং বৈধ পরিচয়পত্র তো লাগবেই! পাশাপাশি পরীক্ষার্থীদের জমা দিতে হবে একটা নতুন ফর্ম। যেখানে বলা থাকবে যে তিনি কোভিড পজিটিভ নন। যাতে কোনও কোভিড পজিটিভ রোগী পরীক্ষায় বসতে না পারেন, সে জন্যেই এই কড়াকড়ি!

যে হেতু এই ফর্ম পরীক্ষার্থীরা প্রথমবার ভরবেন, তাই এটি সম্পর্কে আলাদা করে জেনে নেওয়া ভাল। এই ফর্ম পরীক্ষা হলে যাওয়ার আগেই ভর্তি করে নিতে হবে। সেখানে থাকবে পরীক্ষার্থীর নাম, রোল নম্বর, পরীক্ষার তারিখ, পরীক্ষার নাম, কোথায় পরীক্ষা হচ্ছে এবং দিনের কোন সময়ে অর্থাৎ সকালে না দুপুরে পরীক্ষা হচ্ছে ইত্যাদি হরেক তথ্য। সব লেখা হয়ে গেলে পরীক্ষার্থীকে নিচে সই করতে হবে।

জরুরি নথিপত্র ছাড়াও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য ছাত্রছাত্রীদের ফেস মাস্ক পরে পরীক্ষা দিতে হবে, সঙ্গে রাখতে হবে একটি ছোট্ট বোতলে নিজস্ব স্যানিটাইজার। যদি জলের বোতল নিতে হয়, তা হলে সেটি অবশ্যই স্বচ্ছ হতে হবে।

এ বার আসে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার প্রসঙ্গ। এসএসসি বলেছে, যদি দু'জন পরীক্ষার্থীকে পাশাপাশি বসতে হয়, তা হলে সে ক্ষেত্রে বাড়তি সিটের ব্যবস্থা করা হবে। পরীক্ষা হলে ঢোকার সময় কোনও রকম স্পর্শ ছাড়াই দেখা হবে যে পরীক্ষার্থীরা কোনও অস্ত্র, মাদক দ্রব্য ইত্যাদি লুকিয়ে নিয়ে এসেছেন কি না। এর পর শরীরের তাপমাত্রা মেপে নেওয়া হবে। বলা বাহুল্য, এই সব করতে বেশ কিছুটা সময় লাগবে, তাই হাতে একটু সময় নিয়েই পরীক্ষাকেন্দ্রে যেতে হবে। লাইনে দাঁড়ানোর সময় অবশ্যই ছয় ফিটের দূরত্ব মেনে চলতে হবে।

পাশাপাশি পরীক্ষার্থীদের অনুরোধ করা হয়েছে যে, তাঁরা যেন ফর্ম ভর্তির আগে ও পরে হাত স্যানিটাইজার দিয়ে সাফ করে নেন। পরীক্ষার্থীদের ছবিও এই বছর হলে ঢোকার সময় তোলা হবে এবং সুরক্ষা বজায় রাখতে এ বার কারও আঙুলের ছাপ নেওয়া হবে না।

আর হ্যাঁ, পরীক্ষা সম্পূর্ণ শেষ করে তবেই একজন পরীক্ষার্থী হল ছেড়ে বাইরে যেতে পারবেন। শারীরিক প্রয়োজনে বাইরে যেতে গেলে পরীক্ষকের অনুমতি লাগবে। অনুমতি ছাড়া বাইরে গেলে পরীক্ষার্থীকে ফের হলে ঢুকতে দেওয়া হবে না এবং তাঁর পরীক্ষাও বাতিল করে দেওয়া হবে।

Published by:Simli Raha
First published:

লেটেস্ট খবর