Farakka Bridge Collapse: ২ জনের অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক, ফরাক্কায় ব্রিজ তৈরি আপাতত বন্ধ হয়ে গেল

Farakka Bridge Collapse: ২ জনের অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক, ফরাক্কায় ব্রিজ তৈরি আপাতত বন্ধ হয়ে গেল
ফরাক্কায় ভেঙে পড়েছে নির্মীয়মান ব্রিজ

ব্রিজ বিপর্যয়ে আহতদের কলকাতায় আনা হয়েছে৷ আহতদের মধ্যে ২ জনের অবস্থা সংকটজনক৷ বেনারসের বাসিন্দা মুকেশের কোমর ও পায়ে গুরুতর আঘাত লেগেছে৷

  • Share this:

#কলকাতা: ফরাক্কা ব্রিজ নির্মাণের কাজ আপাতত স্থগিত করে দিল জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ৷ মোট ৪০০ শ্রমিক ব্রিজ নির্মাণের কাজ করছিলেন৷ রবিবার কাজে ছিলেন ৬০ জন শ্রমিক৷ সরকারি নিয়ম মেনে তাঁদের আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে বলে জানালেন NHAI প্রজেক্ট ডিরেক্টর৷ তবে ধ্বংসস্তূপে কেউ আটকে নেই বলে জানা গিয়েছে৷ ঘটনার সমান্তরাল তদন্ত করবে মালদহ জেলা পুলিশ৷

ব্রিজ বিপর্যয়ে আহতদের কলকাতায় আনা হয়েছে৷ আহতদের মধ্যে ২ জনের অবস্থা সংকটজনক৷ বেনারসের বাসিন্দা মুকেশের কোমর ও পায়ে গুরুতর আঘাত লেগেছে৷ বিহারের বাসিন্দা রঞ্জন কুমারের কোমর ও মাথায় গভীর ক্ষত রয়েছে৷ তাঁকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছে৷

মাত্র দেড় বছরের মাথাতেই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়েছে ফরাক্কার নির্মীয়মাণ ব্রিজ৷ বেঘোরে প্রাণ গিয়েছে অন্তত ২ জনের৷ ধ্বংসস্তূপে চাপা পড়ে মৃত্যু হয়েছে ইঞ্জিনিয়ার শ্রীনিবাস রাওয়ের৷ মৃত্যু হল জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার সচিন প্রতাপের৷ সচিন উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা৷

প্রাথমিক ভাবে বিশেষজ্ঞদের অনুমান সেতু তৈরিতে পদ্ধতিগত ত্রুটি থাকতে পারে৷ রবিবার সন্ধে সাড়ে ৭টায় যখন দুর্ঘটনাটি ঘটে, তখন কাজ করছিলেন ৫০ জন শ্রমিক৷ পুলিশ ও বিপর্যয় মোকাবিলা দল ধ্বংসস্তূপ সরানোর কাজ করছে৷

২০১৯ সালের পয়লা জানুয়ারি সেতুটি তৈরির কাজ শুরু হয়৷ জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে কাজ শুরু হয়৷ দক্ষিণ ভারত ও চিনের দুটি সংস্থা ব্রিজটি নির্মাণ করছে৷ এই দুটি সংস্থা আবার কেন্দ্রের ‘নমামি গঙ্গে’ মিশনের সঙ্গেও যুক্ত৷

ব্রিজ ভেঙে পড়ায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র বক্তব্য, 'গাফিলতি রয়েছে কি না দেখতে হবে তদন্ত করে৷ ব্রিজ ভেঙে পড়ার মতো দুর্ঘটনায় রাজনীতি ঠিক নয়৷' অন্যদিকে কেন্দ্রকে তুলোধনা করে কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরী বলেন, 'ব্রিজ বিপর্যয়ের দায় কেন্দ্রের৷ কেন্দ্রের উদাসীনতাতেই এই ঘটনা৷ এটা অপরাধ৷ তদন্ত হোক৷'

First published: February 17, 2020, 10:31 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर