corona virus btn
corona virus btn
Loading

অক্ষয় তৃতীয়ার দিন শুনশান কালীঘাট মন্দির, দূর থেকে প্রণাম করে ফিরতে হচ্ছে ভক্তদের

অক্ষয় তৃতীয়ার দিন শুনশান কালীঘাট মন্দির, দূর থেকে প্রণাম করে ফিরতে হচ্ছে ভক্তদের

করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে অক্ষয় তৃতীয়ার দিন এটাই হল কালীঘাট মন্দিরের চিত্র।

  • Share this:

#কলকাতা: শুনশান মন্দির। না আছে ভক্তদের ভিড়, না আছে পাণ্ডাদের হাঁকডাক। আছে মাত্র কয়েক জন পুলিশ আর মূল মন্দিরে কাজ করা হাতে গোনা কয়েকজন। করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে অক্ষয় তৃতীয়ার দিন এটাই হল কালীঘাট মন্দিরের চিত্র।

লকডাউন এক মাস অতিক্রান্ত। শুধু মাত্র কয়েকটা জরুরি পরিষেবা ছাড়া সবকিছুই বন্ধ এই সময়। সামাজিক দূরত্বের বিধি মেনে চলা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে। তাই কোনও রকম কোথাও কোনও ভাবেই এক সঙ্গে অনেক মানুষের জমায়েত হওয়ার কোনও উপায় নেই। ফলে লকডাউনের সময় কোনও সামাজিক বা ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানও খোলা নেই এই সময়।

সেই একই কারণে লকডাউনের শুরু থেকেই বন্ধ কালীঘাট  মন্দিরও। মন্দিরের ভক্তদের প্রবেশ সম্পূর্ণ ভাবে নিষিদ্ধ। ছাড় নেই অক্ষয় তৃতীয়ার দিনেও। এই বিশেষ দিনে অসংখ্য মানুষের সমাগম হয় কালীঘাট মন্দিরে। কেউ আসেনি পুজো দিতে আবার কেউ আসেন হালখাতা করাতে। কিন্তু এদিন শুনশান কালীঘাট মন্দির চত্বর। মন্দিরের রাস্তায় একাধিক জায়গায় ব্যারিকেড তৈরি করেছে পুলিশ। মন্দির লাগোয়া এলাকাবাসী ছাড়া আর সকলের প্রবেশ নিষেধ। শুধুমাত্র মন্দিরে কাজ করেন সে রকম ব্যক্তিরাই পরিচয়পত্র দেখিয়ে ছাড় পাচ্ছেন মন্দিরে প্রবেশ করার। মন্দিরের প্রবীণ পুরোহিত হিমাদ্রি বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, 'প্রশাসনের নির্দেশে এই কঠিন সময়ে আমরা ভক্তদের জন্য মন্দিরে প্রবেশ বন্ধ রেখেছি। তবে মন্দিরের নিত্যদিনের কাজ যেমন হয় তেমন হচ্ছে। তার জন্য আমরা কয়েকজন মন্দিরে প্রবেশ করছি।'

তার পরও অনেকেই আসছেন অক্ষয় তৃতীয়ার শুভদিনে কালীঘাট মন্দিরে।  যেমন লেক গার্ডেন্সের রবি দাস প্রতিবারের মতো এবারও অক্ষয় তৃতীয়ার দিন মন্দির চত্বরের নির্দিষ্ট দোকান থেকে হালখাতা ও অন্যান্য সামগ্রী কিনে পুজো না দিয়েই বাড়ি ফিরে যান। তিনি বলেন, 'প্রতিবার হালখাতা কালীঘাট মন্দিরে পুজো দিয়ে নিয়ে যায়। কিন্তু এবার সেটা হবে না বুঝেই বাইরে থেকে প্রণাম করে নিয়ে গেলাম। পুজোর ব্যবস্থা বাড়িতে করেছি।'  শুধুমাত্র তিনি একা নন আরো অনেক ভক্তই দূর পুলিশের ব্যারিকেডের বাইরে থেকে প্রণাম করে ফিরে যাচ্ছেন অক্ষয় তৃতীয়ার দিন।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: April 26, 2020, 5:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर