• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • কলকাতা বিমানবন্দরে রহস্যমৃত্যু এয়ার এশিয়ার পাইলটের

কলকাতা বিমানবন্দরে রহস্যমৃত্যু এয়ার এশিয়ার পাইলটের

শহরের বিদেশি পাইলটের রহস্যমৃত্যু। গতকাল রাতে বিমানবন্দরেই অসুস্থ হয়ে মারা গেলেন এয়ার এশিয়ার সিনিয়র পাইলট মাহির শাহি। সিরিয়া থেকে দিল্লি হয়ে দিন তিনেক আগে কলকাতায় এসেছিলেন সিরিয়ার বাসিন্দা মাহির।

শহরের বিদেশি পাইলটের রহস্যমৃত্যু। গতকাল রাতে বিমানবন্দরেই অসুস্থ হয়ে মারা গেলেন এয়ার এশিয়ার সিনিয়র পাইলট মাহির শাহি। সিরিয়া থেকে দিল্লি হয়ে দিন তিনেক আগে কলকাতায় এসেছিলেন সিরিয়ার বাসিন্দা মাহির।

শহরের বিদেশি পাইলটের রহস্যমৃত্যু। গতকাল রাতে বিমানবন্দরেই অসুস্থ হয়ে মারা গেলেন এয়ার এশিয়ার সিনিয়র পাইলট মাহির শাহি। সিরিয়া থেকে দিল্লি হয়ে দিন তিনেক আগে কলকাতায় এসেছিলেন সিরিয়ার বাসিন্দা মাহির।

  • Share this:

    #কলকাতা: শহরের বিদেশি পাইলটের রহস্যমৃত্যু। গতকাল রাতে বিমানবন্দরেই অসুস্থ হয়ে মারা গেলেন এয়ার এশিয়ার সিনিয়র পাইলট মাহির শাহি। সিরিয়া থেকে দিল্লি হয়ে দিন তিনেক আগে কলকাতায় এসেছিলেন সিরিয়ার বাসিন্দা মাহির। শহরে এসে ছুটির আবেদনও করেছিলেন বছর ষাটের এই পাইলট। শহরে এসে উঠেছিলেন বিমানবন্দর লাগোয়া তাঁর চেনা হোটেলেই। কিন্তু এই শহর থেকে ফিরছে তাঁর কফিনবন্দি দেহ। কলকাতায় এসে এয়ার এশিয়ার কাছে ছুটির আবেদন করলেও খারিজ হয়ে গিয়েছিল সেই আবেদন৷

    জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাত একটা নাগাদ হোটেল থেকে বেরিয়ে বিমানবন্দরে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে অফিসের কাজও করেন। এরপর বিমানবন্দরের মধ্যেই অসুস্থ হয়ে পড়েন এই সিরিয়ান। বিমানবন্দরে প্রাথমিক চিকিৎকার পর তাঁকে এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসাপাতালে প্রায় চার ঘণ্টা পর তাঁর মৃত্যু হয়। হাসপাতাল থেকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় বাগুইআটি থানার পুলিশ। দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। মাহিরের মৃত্যু উঠছে বেশ কিছু প্রশ্নও৷ সারাদিন হোটেলে কী করেছেন মাহির? হোটেল থেকে বিমানবন্দর যেতে ফোনে কার সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে উত্তেজিত হয়েছিলেন? বিমানবন্দরে গিয়ে পঁয়তাল্লিশ মিনিটের মধ্যে তিনি অসুস্থ হলেন কী ভাবে? আগে কী কাউকে অসুস্থতার কথা জানিয়েছিলেন? ক্রু রুমে বাকিদের সঙ্গে কী কথা হয়েছিল তাঁর? এই প্রশ্নের উত্তর পেতেই যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়েছিল এয়ার এশিয়ার সঙ্গে। উলটে তাদের রোষের মুখে পড়ে সংবাদমাধ্যম। সংবাদকর্মীদের হেনস্থা করা হয়। এমনকী ছবি মুছে দেওয়ার চেষ্টাও করেন আধিকারিকরা।

    First published: