Abhishek-Subhrangshu: কী কথা হল অভিষেক- শুভ্রাংশুর মধ্যে ? দিলীপ- মুকুলই বা কী বললেন ? 

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই মুকুল পুত্র শুভ্রাংশুর ইঙ্গিতপূর্ন ফেসবুক পোষ্ট। তারপরেই হাসপাতলে অভিষেক- শুভ্রাংশু সরসরি কথা।'পাশে আছি' - তাহলে কি ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা অভিষেকের ?

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই মুকুল পুত্র শুভ্রাংশুর ইঙ্গিতপূর্ন ফেসবুক পোষ্ট। তারপরেই হাসপাতলে অভিষেক- শুভ্রাংশু সরসরি কথা।'পাশে আছি' - তাহলে কি ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা অভিষেকের ?

  • Share this:

#কলকাতা: রাজনৈতিক সৌজন্যের আরও এক নজির দেখল এই বাংলা। বিজেপি নেতা  মুকুল রায়ের স্ত্রীকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে গেলেন যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বেশ কয়েকদিন যাবৎই কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মুকুল জায়া কৃষ্ণা রায়। করোনা মুক্ত হলেও অন্যান্য নানান শারীরিক জটিলতা রয়েছে। বুধবার দক্ষিণ 24 পরগনায় ইয়াস পরবর্তী পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে বিকেলে কলকাতায় ফেরেন অভিষেক। সন্ধেয় যান অ্যাপোলো হাসপাতালে। মিনিট কুড়ি সেখানে থাকেন। মুকুল রায়ের স্ত্রীর শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় যখন হাসপাতালে যান তখন হাসপাতালেই ছিলেন মুকুল পুত্র শুভ্রাংশু। মুখোমুখি কথা হয় দুজনের মধ্যে। শুভ্রাংশুকে অভিষেক বলেন,' শক্ত থাকো। যে কোনও  প্রয়োজনে পাশে আছি'।

রাজনৈতিকভাবে বর্তমানে দুপক্ষই ভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শে বিশ্বাসী। বর্তমান সময়ে  রাজনৈতিক সৌজন্যবোধ নজিরবিহীন। তবে  মুকুল রায়ের স্ত্রীকে হাসপাতালে গিয়ে তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেওয়াকে  অভিষেকের  সৌজন্যবোধকে  স্বাগত জানিয়েছে রাজনৈতিক মহল। কার্যত তাঁর স্ত্রীর খোঁজ নিতে উদ্বিগ্ন অভিষেকের  হাসপাতালে যাওয়াকে স্বাগত জানিয়েছেন মুকুল রায়ও।এদিকে  অভিষেক হাসপাতলে যেতেই টনক নড়ল বিজেপির। অসুস্থ মুকুল পত্নীর খোঁজ নিতে হাসপাতালে  কিছুক্ষণের মধ্যে  হাজির বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। দিলীপের  মুখেও সৌজন্যের রাজনীতি। অভিষেক, শুভ্রাংশুকে নিয়ে বিতর্ক এড়ালেন কৌশলী দিলীপ। বললেন, 'ওঁরা পূর্বপরিচিত। বিপদের দিনে পাশে দাঁড়িয়েছেন। ভাল। আমরাও চাই মুকুলদার স্ত্রী তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠুন'।

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই মুকুল পুত্র শুভ্রাংশুর ইঙ্গিতপূর্ন  ফেসবুক পোষ্ট। তারপরেই হাসপাতলে  অভিষেক- শুভ্রাংশু সরসরি কথা।'পাশে আছি' - তাহলে কি ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা অভিষেকের ? সৌজন্যের রাজনীতির আড়ালে বঙ্গ রাজনীতির ময়দানে নানান  প্রশ্নও এখন ঘুরপাক খাচ্ছে। তবে সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দেবে সময়ই।   তবে যাই হোক, বঙ্গ রাজনীতির বর্তমান সময় যখন শাসক-বিরোধী একে অপরের বিরুদ্ধে নানান ইস্যুকে হাতিয়ার করে কেউ কাউকে এক ইঞ্চি জমি ছাড়তে নারাজ । ঠিক তখনই বিপদের সময় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরোধী শিবিরের পাশে থাকার বার্তা নিঃসন্দেহে যে প্রশংসনীয় তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

Published by:Pooja Basu
First published: