Abhishek Banerjee| রবিবারের অন্য রুটিন, পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ি থেকেই সোজা সুখেন্দুশেখরের বাড়িতে অভিষেক

এবার সুখেন্দুশেখরের বাড়িতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

৫ মে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নিযুক্ত হন অভিষেক। এর পর থেকে দলের বর্ষীয়ান নেতাদের সঙ্গে দেখা করে তাদের মতামত নিচ্ছেন অভিষেক।

  • Share this:

    #কলকাতা: রবিবাসরীয় সন্ধ্যায় সুখেন্দুশেখর রায়ের বাড়িতে গেলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ সন্ধ্যে ৭:২৭ মিনিটে যোধপুর পার্কে তৃণমূলের বর্ষীয়ান নেতা তথা রাজ্যসভার সদস্যসুখেন্দু শেখর রায়ের বাড়িতে পা রাখেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্ততত দুঘণ্টা কথাবার্তা চলে সুখেন্দু-অভিষেকের। অভিষেক তাঁর নতুন পথচলার জন্য আশীর্বাদ নেন এই বরিষ্ঠ নেতার। রাজনৈতিক মহলের মত ভিন রাজ্যে দু একটি বিধায়ক পাওয়া লক্ষ্য নয়, বিজেপির বিরুদ্ধে কড়া চ্যালেঞ্জই লক্ষ্য তৃণমূলে। সে জন্য অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে রেখেই রূপরেখা তৈরি হচ্ছে দলের অন্দরে। সেই কারণেই এই যাতায়াত।

    সূত্রের খবর আজ সুখেন্দুশেখরের বাড়িতে অভিষেক চা আর কাজু খান। মুখ চালাতে চালাতেই চলে আলোচনা। দুঁদে বক্তা সুখেন্দুকে অভিষেক বলেন, "সংসদে আপনার বক্তব্য শুনেছি। আমাদের গঠনমূলক কথাবার্তা থেকে উঠে আসা বিষয় নিয়ে মানুষের কাছে যাব"।

    ৫ মে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নিযুক্ত হন অভিষেক। এর পর থেকে দলের বর্ষীয়ান নেতাদের সঙ্গে দেখা করে তাদের মতামত নিচ্ছেন অভিষেক। এর আগে সুব্রত বক্সী, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, সৌগত রায়, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়দের বাড়ি গিয়ে আশীর্বাদ নিয়ে এসেছেন অভিষেক। আজ এলেন সুখেন্দ বাবুর বাড়িতে।

    আজ সুখেন্দুশেখরের বাড়ি যাওয়ার আগে অভিষেক পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মাতৃবিয়োগের খবর পেয়ে হন্তদন্ত হয়ে ছুটে গিয়েছিলেন তাঁর নাকতলার বাড়িতে।  সেখানে বেশ কিছুক্ষণ তিনি নিভৃতে কথা বলেন শোকসন্তপ্ত পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে। সেখান থেকেই রওনা দেন যোধপুর পার্কের দিকে।

    অভিষেক এই প্রবীণদের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য রবিবার দিনটিকেই তুলে রেখেছেনয গত রবিবার তিন প্রবীণের সঙ্গে দেখা করে এসে অভিষেক লিখেছিলেন, "গতকাল তৃণমূল ভবনে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের বিশেষ অধিবেশনে দলের পক্ষ থেকে আমাকে এক নতুন দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সেই দায়িত্ব যথাযথ ভাবে পালন করতে  আমি দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। দলের বর্ষীয়ান নেতা, নেত্রীদের আশীর্বাদ ও পরামর্শ আমাকে এই নতুন যাত্রাপথে অগ্রসর হতে উদ্বুদ্ধ করবে। আমার এই নতুন ভূমিকার সূচনালগ্নে দলের তিন অভিজ্ঞ নেতা তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক সংগ্রামের দীর্ঘদিনের শরিক শ্রী সুব্রত বক্সি, শ্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও শ্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের সাথে সাক্ষাৎ করলাম। তাঁদের সুচিন্তিত পরামর্শ আগামীর লড়াইয়ে পথ দেখাবে।"

    -ইনপুট আবীর ঘোষাল

    Published by:Arka Deb
    First published: