হোম /খবর /কলকাতা /
আমফানের প্রভাব উচ্চমাধ্যমিকেও, বদলে যাচ্ছে ৪৭০ টি পরীক্ষা কেন্দ্র

আমফানের প্রভাব উচ্চমাধ্যমিকেও, ক্ষতিগ্রস্ত ৪৭০ টি পরীক্ষা কেন্দ্রের বদল

যদিও কিভাবে নয়া পরীক্ষা কেন্দ্রের নাম বিশাল সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রীদের জানানো যাবে তা নিয়ে যথেষ্ট ভাবাচ্ছে সংসদকে।

  • Last Updated :
  • Share this:

#কলকাতা: গত বুধবারের বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড় আমফানের তাণ্ডব এবার পড়ল সরাসরি রাজ্যের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষাতেও।পরীক্ষার সূচি অপরিবর্তিত রাখা হলেও একাধিক পরীক্ষা কেন্দ্রের বদল করতে হচ্ছে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতরকে।

বুধবার সাংবাদিক সম্মেলন করে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান "আমফানের প্রভাব ৮ টি জেলার উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা কেন্দ্রে পড়েছে। কলকাতা নদীয়া,পূর্ব বর্ধমান, উত্তর ২৪ পরগনা,দক্ষিণ ২৪ পরগনা,হাওড়া, হুগলি, পূর্ব মেদিনীপুরের ১০৫৮ টি সেন্টার ছিল উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার। এই আটটি জেলার এত সংখ্যক সেন্টারের মধ্যে ৪৭০ টি পরীক্ষাকেন্দ্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ওই সেন্টারগুলিতে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া যাবে না।তার বিকল্প পরীক্ষাকেন্দ্র ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে স্কুল শিক্ষা দফতর ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদকে।"

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এবং তার জেরে চলা লকডাউন এর জেরে উচ্চমাধ্যমিকের বাকি থাকা ৩ দিনের পরীক্ষা স্থগিত রাখতে হয়েছে রাজ্য সরকারকে। সেই পরীক্ষাগুলি নেওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই দিন ঘোষণা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। ২৯ জুন, ২ এবং ৬ই জুলাই উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষাগুলো নেওয়া হবে।

বুধবার শিক্ষামন্ত্রী জানিয়ে দেন যে পরীক্ষার দিনগুলি ইতিমধ্যেই ঘোষিত হয়েছে তা নির্দিষ্ট থাকছে। তবে পরীক্ষার দিন নির্দিষ্ট থাকলেও একাধিক পরীক্ষা কেন্দ্রের বদল এর ঘোষণা করা হয় সাময়িক সমস্যা তৈরি হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন স্কুল শিক্ষা দপ্তরের আধিকারিকরা। ইতিমধ্যেই এই বিষয় নিয়ে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাসের সঙ্গে কথা হয়েছে বলেও শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বুধবার জানান। তবে একাধিক পরীক্ষা কেন্দ্রের বদল হয়ে যাওয়ায় ছাত্র-ছাত্রীদের কিভাবে জানানো সম্ভব হবে সে বিষয়ে নেই এখন রূপরেখা তৈরি করছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ।

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরুর আগেই ছাত্র-ছাত্রীদের অ্যাডমিট কার্ড এই জানিয়ে দেওয়া হয় পরীক্ষা কেন্দ্রের নাম। কিন্তু উচ্চ মাধ্যমিকের এই বাকি বিষয়গুলির পরীক্ষার জন্য একাধিক পরীক্ষাকেন্দ্র নেওয়া হবে। কেননা বর্তমানে করোনা  আবহেই উচ্চমাধ্যমিকের বাকি বিষয়গুলির পরীক্ষা নিতে হবে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদকে। সেক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য সোশ্যাল ডিস্ট্যান্স থেকে শুরু করে একাধিক নিয়মকানুন মেনে তবেই পরীক্ষা নিতে হবে সংসদ কে। ইতিমধ্যেই শিক্ষামন্ত্রী ঘোষণা করেছেন এক একটি পরীক্ষা কেন্দ্রে ৮০থেকে ১০০ জনের বেশি পরীক্ষার্থী থাকবে না। রাজ্যের মোট ২৫০০ পরীক্ষাকেন্দ্রে উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষাগুলো নেওয়া হবে। সেক্ষেত্রে পরীক্ষা কেন্দ্রের বদল নতুন পরীক্ষাকেন্দ্র উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষাগুলো জন্য নিতে হলে ছাত্রছাত্রীদের সেই পরীক্ষা কেন্দ্রগুলি সম্পর্কে জানাতে হবে। তা কিভাবে জানানো হবে বা বাড়তি কোন কোন পরীক্ষা কেন্দ্র নেওয়া হবে কোন কোন পরীক্ষা কেন্দ্রে ছাত্র-ছাত্রীদের আসন ফেলা হবে পুরো নিয়েই এখন নির্দিষ্টভাবে রূপরেখা তৈরি করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ বলেই জানা গিয়েছে।

সংসদ সূত্রের খবর, যেহেতু এখনও পর্যন্ত একমাস বাকি রয়েছে তাই পুরো বিষয়টাই হোমওয়ার্ক করে পরীক্ষা শুরুর ১০ থেকে ১২ দিন আগেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছে যাওয়া সম্ভব বলেই মনে করছে সংসদ। সূত্রের খবর ,এখনও পর্যন্ত উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ পরীক্ষাসূচি নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করেনি। শুধু তাই নয়, পরীক্ষা কেন্দ্র গুলি কিভাবে পরীক্ষা পরিচালনা করবে এই করোনা আবহে তা নিয়েও নির্দিষ্ট গাইডলাইনে এখনও পরীক্ষা কেন্দ্র গুলিকে দেওয়া হয়নি। তাই পুরো বিষয়টিকেই ওয়ার্ক আউট করে তবেই পরীক্ষাসূচি ও গাইড লাইন পরীক্ষা কেন্দ্র গুলিকে দেওয়া হবে বলেই সংসদ সূত্রে জানা গেছে। যদিও কিভাবে নয়া পরীক্ষা কেন্দ্রের নাম বিশাল সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রীদের জানানো যাবে তা নিয়ে যথেষ্ট ভাবাচ্ছে সংসদকে।

Somraj Bandopadhay

Published by:Elina Datta
First published:

Tags: Corona, Corona outbreak, Corona state lock down, Coronavirus, COVID-19, Higher Secondary, HS, উচ্চমাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক ২০২০