• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ৩ দিনের সিবিআই হেফাজত ! কেঁদেই ফেললেন তাপস পাল

৩ দিনের সিবিআই হেফাজত ! কেঁদেই ফেললেন তাপস পাল

তৃণমূল সাংসদ তাপস পালের ৩ দিনের সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দিল ভুবনেশ্বরে সিবিআই-এর বিশেষ আদালত ৷

তৃণমূল সাংসদ তাপস পালের ৩ দিনের সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দিল ভুবনেশ্বরে সিবিআই-এর বিশেষ আদালত ৷

তৃণমূল সাংসদ তাপস পালের ৩ দিনের সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দিল ভুবনেশ্বরে সিবিআই-এর বিশেষ আদালত ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #ভুবনেশ্বর: তৃণমূল সাংসদ তাপস পালের ৩ দিনের সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দিল ভুবনেশ্বরে সিবিআই-এর বিশেষ আদালত ৷

    আজ, শনিবার দুপুর ১.৩০ নাগাদ আদালতে তোলা হয় তাপস পালকে ৷ দেড় ঘণ্টা বাইরে বসার পর এজলাসে ঢোকেন সস্ত্রীক তাপস ৷ স্ত্রী ও আইনজীবীর কাছে একাধিকবার প্রশ্ন করেন তাপস পাল, ‘‘আমার জামিন হবে তো ?’’ সওয়াল-জবারের শুরুতে তাপসের বয়ান জানতে চান বিচারক ৷  প্রত্যুত্তরে তাপস জানান, ‘আমি নির্দোষ’ ৷ কথা বলতে গিয়ে এজলাসেই কেঁদে ফেলেন তিনি ৷ জানা যাচ্ছে, এজলাসে দাঁড়িয়েই হাত-পা কাঁপতে থাকে তাপসের ৷ সওয়াল-জবাব চলাকালীন অসুস্থবোধও করেন তিনি ৷ স্ত্রী নন্দিনীকে সেসময় নিজের অসুস্থতার কথা জানান তৃণমূল সাংসদ ৷ এজলাসেই তাপসকে চেয়ারে বসতে দেওয়ার জন্য বিচারকের কাছে আবেদন জানান তাঁর আইনজীবী ৷ শুনানি শেষ হওয়ার পর বিচারক আইও-কে কেস ডায়েরি দিতে বলেন। তাপস পালের বিরুদ্ধে সিবিআই যে অভিযোগ এনেছে তা খতিয়ে দেখেন বিচারক। তদন্তকারীদের সঙ্গে কথাও বলেন তিনি। সিবিআই-এর তরফে অবশ্য তাপস পালের ৫ দিনের সিবিআই হেফাজত চাওয়া হয় ৷ সব কিছু খতিয়ে দেখার পর তাপস পালের তিন দিনের সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। আগামী মঙ্গলবার, ৩ জানুয়ারি ফের তাঁকে আদালতে তোলা হবে।

    প্রসঙ্গত বয়ানে একাধিক অসঙ্গতি থাকায় শুক্রবার দু'দফায় চার ঘণ্টার জেরার পর  তৃণমূল সাংসদকে গ্রেফতার করে সিবিআই।  জেরায় উঠে আসে বেশ কয়েকজন সাংসদ-নেতা-মন্ত্রীর নামও। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আগামীদিনে ডাকা হতে পারে তাঁদের ৷ রাতভোর ভুবনেশ্বরের সিবিআই অফিসে তাপস পালকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ৷ রাতে ফের অসুস্থ বোধ করেন তাপস পাল ৷ চিকিত্সকরা পরীক্ষা করেন তাপস পালকে ৷ রোজ ভ্যালির ব্যবসা সম্প্রসারণে সাহায্য করেন তিনি বলে অভিযোগ ৷ নদিয়া জেলায় টাকা সংগ্রহেও ভূমিকা ছিল তাঁর ৷ সাধারণ মানুষের টাকা তোলায় সহযোগিতার কাজে প্রত্যক্ষভাবে জড়িয়েছিলেন তিনি ৷ তাপস পালের কাছে বশ কিছু নথি চাওয়া হয়েছিল ৷ সেই নথিও দেননি তাপস বলে অভিযোগ ৷ সিবিআইয়ের কাছে সদুত্তর দিতে পারেননি তাপস ৷ এরপর তাকে গ্রেফতার করা হয় ৷ রোজভ্যালির ফিল্ম ডিভিশন সংস্থার ডিরেক্টর করা হয় তাপস পালকে ৷ রোজভ্যালির সঙ্গে তাপস পালের চেক ও নগদে আর্থিক লেনদেনের প্রমাণ মিলেছে বলে সিবিআই সূত্রে খবর। চিট ফান্ডের টাকা সিনেমায় লগ্নি করতে সাহায্য করা হয়েছে বলে তাপস পালের বিরুদ্ধে অভিযোগ ৷

    First published: