• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • ipl
  • »
  • IPL 2021 AUSTRALIA AND ENGLAND MAY HOST REMAINING IPL MATCHES WITH UAE IN TOP PRIORITY FOR BCCI RRC

আমিরশাহির পাশাপাশি ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়াতেও হতে পারে আইপিএল

আরব আমিরশাহির পাশাপাশি আইপিএলের বাকি অংশ হতে পারে ইংল্যান্ড অথবা অস্ট্রেলিয়ায়

চলতি বছরের শেষদিকে আইপিএলের বাকি অংশের আয়োজন করতে পারে বিসিসিআই। বোর্ড, লিগের পরিচালনা পর্ষদ, ফ্র্যাঞ্চাইজি, সম্প্রচারকারী চ্যানেল এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা নাকি এ বিষয়ে সর্বসম্মতভাবে একমত হয়েছেন

  • Share this:

    #মুম্বই: বিসিসিআই ভাইস প্রেসিডেন্ট রাজীব শুক্লা আগেই জানিয়েছিলেন এবারের মতো আইপিএল বন্ধ করা হয়েছে মাত্র, টুর্নামেন্ট বাতিল হয়ে যায়নি। অর্থাৎ প্রায় অর্ধেক পথে থেমে যাওয়া টুর্নামেন্টের বাকি অংশ শেষ করতে চায় বিসিসিআই। আয়োজক দেশ হিসেবে আরব আমিরশাহির নাম প্রথম পছন্দ হলেও, সর্বশেষ পরিস্থিতিতে ভাবা হচ্ছে আরও দুই দেশের নাম। ফ্র্যাঞ্চাইজি দলগুলোয় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় আইপিএল স্থগিত করেছে বোর্ড। তারপর থেকেই প্রশ্ন উঠেছে, এবারের স্থগিত হওয়া আইপিএলের বাকি অংশ কী পরে আর মাঠে গড়াবে?

    কিছু সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, চলতি বছরের শেষদিকে আইপিএলের বাকি অংশের আয়োজন করতে পারে বিসিসিআই। বোর্ড, লিগের পরিচালনা পর্ষদ, ফ্র্যাঞ্চাইজি, সম্প্রচারকারী চ্যানেল এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা নাকি এ বিষয়ে সর্বসম্মতভাবে একমত হয়েছেন। এখন প্রশ্ন হল, কোথায় এবং কখন আইপিএলের বাকি ম্যাচগুলো হবে? অনেকের কাছেই আইপিএলের ‘দ্বিতীয় পর্ব’ তকমা পাওয়া এই অংশটুকু যে ভারতে হচ্ছে না, সে বিষয়ে মোটামুটি সবাই নিশ্চিত। জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ, ফাঁকা সময়সূচি, এমনকি কোভিড পরিস্থিতির উন্নতি ঘটলেও ভারতে আইপিএলের বাকি অংশ অনুষ্ঠিত হবে না বলে জানা যাচ্ছে।

    বিদেশি ক্রিকেটাররা এখনই ভারতে ফিরতে চাইবেন না। আর বিদেশি ক্রিকেটারদের ছাড়া আইপিএল জৌলুশহীন, নিছক এক ঘরোয়া টুর্নামেন্ট ছাড়া আর কিছু না। বিসিসিআইয়ের উচ্চপর্যায়ের সূত্রের উদ্ধৃতি প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যম, ‘এটা (আইপিএল) বাইরেই আয়োজন করতে হবে। এরই মধ্যে এ নিয়ে কিছু পরামর্শ পাওয়া গেছে। বিসিসিআইকে এখন মনস্থির করতে হবে।’ প্রথম পরামর্শটি হল, আইপিএলের বাকি অংশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে স্থানান্তর করা হোক। কোভিড পরিস্থিতির মধ্যেই ২০২০ আইপিএল সফলভাবে আয়োজিত হয়েছে মরুদেশটিতে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আরব আমিরাতেই অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

    ক্রিকেটাররা সপ্তাহখানেকের কোয়ারেন্টিন শেষ করে আইপিএলের বাকি ৩১ ম্যাচ খেলে বিশ্বকাপের প্রস্তুতিও সেরে নিতে পারবেন। ২২ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়ার কথা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ভারতীয় বোর্ড–সংশ্লিষ্ট সূত্র সংবাদমাধ্যমকে বলেছে, ‘বিশ্বকাপের ভেন্যু সরিয়ে নেওয়া হলে গোটা সূচি ওলট-পালট করতে হবে। আরব আমিরাতে সেপ্টেম্বরে আবহাওয়া খুব গরম। অক্টোবরের দিকে সহনীয় হয় কিছুটা।’ আইপিএলের ভেন্যু নিয়ে বিসিসিআই আরেকটি পরামর্শ পেয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম। ইংল্যান্ডে আইপিএল আয়োজনের কথা বলা হয়েছে। সেপ্টেম্বরের শেষ ও অক্টোবরের শুরুর মধ্যে আইপিএল ইংল্যান্ডে আয়োজন করা যেতে পারে।

    বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলতে আগামী মাসে ইংল্যান্ড যাবে ভারতীয় ক্রিকেট দল। এছাড়া পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ না হওয়া পর্যন্ত ইংল্যান্ডেই থাকবেন বিরাট কোহলিরা। ‘ ক্রিকেটের জন্য সেখানে আবহাওয়া ভালো হবে। ভারত ও ইংল্যান্ডের বাইরের ক্রিকেটাররাও সেখানে ইচ্ছুক থাকবেন,’—জানিয়েছে বোর্ডের সূত্র। আরেকটি ভেন্যু হতে পারে অস্ট্রেলিয়া।

    এ নিয়ে বোর্ডের সূত্র জানিয়েছে, এটা তখনই হতে পারে, যদি অস্ট্রেলিয়ান সরকার তাঁদের মানসিকতা পাল্টায় এবং সম্প্রচারকারী চ্যানেল সেখানে যেতে রাজি হয়। এমনিতেই আইপিএল মাঝপথে বন্ধ হওয়ায় বিশাল পরিমাণ আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে বোর্ড। প্রায় অর্ধেক টাকা পাওয়া যাবে স্পন্সরদের থেকে। সেখানে টুর্নামেন্ট শেষ করা গেলেও কিছুটা আর্থিক ক্ষতি সামাল দিতে পারবে বিসিসিআই।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: