BCCI : সেপ্টেম্বর - অক্টোবরে আরব আমিরশাহিতেই বাকি আইপিএল

আমিরশাহিতেই হবে বাকি আইপিএল সিদ্ধান্ত বোর্ডের বিশেষ সভায়

আইপিএল-এর বাকি ম্যাচ হতে চলেছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে। শনিবার বোর্ডের বিশেষ সাধারণ সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে

  • Share this:

    #মুম্বই: সারা দেশে করোনা যতই বাড়তে থাকুক, যত মানুষ প্রাণ হারান না কেন, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড যে হাতে থাকা আইপিএলের বাকি ৩১ টি ম্যাচ শেষ করতে মরিয়া সেটা জানা ছিল আগেই। শুধু অপেক্ষা ছিল কোন জায়গায় হয় সেটা জানার। শনিবারের পর সব পরিষ্কার হয়ে গেল। সিদ্ধান্ত নিতে বেশি দেরি হয়নি। তবে যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তা মোটেই অবাক করে দেওয়ার মত নয়। সম্ভাবনা আগে থেকেই ছিল। সেই সম্ভাবনাই সত্যি হল।

    আইপিএল-এর বাকি ম্যাচ হতে চলেছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে। শনিবার বোর্ডের  বিশেষ সাধারণ সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরে সংবাদ সংস্থাকেও এ খবর জানিয়েছেন বোর্ডের সহ-সভাপতি রাজীব শুক্ল। সেপ্টেম্বর-অক্টোবরেই হবে এই প্রতিযোগিতা। প্রতিটি সদস্যই আমিরশাহিতে বাকি আইপিএল করার পক্ষে রায় দিয়েছেন। তবে শনিবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে কোনও আলোচনা হয়নি।

    বোর্ড এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আইসিসি-র কাছে অতিরিক্ত সময় চাওয়া হয়েছে। সঠিক সময়েই এই প্রতিযোগিতা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। একের পর এক দলে করোনা ধরা পড়ায় গত ৪ মে বন্ধ করে দিতে হয়েছিল আইপিএল। বাকি ৩১টি ম্যাচ যে ভারতের করার যে সম্ভাবনা নেই, তা আগেই জানিয়েছিলেন সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। বাকি ৩১টি ম্যাচ ইংল্যান্ড হবে না আমিরশাহিতে, তা নিয়ে জল্পনা চলছিল। ইংল্যান্ড বোর্ড আবার জানিয়েছিল, তাদের কাছে কোনও আবেদনই করা হয়নি। অবশেষে শনিবার জল্পনার অবসান হল।

    তবে বোর্ড জানিয়েছে, করোনার জন্য নয়, ভারতের আইপিএল না করার কারণ বৃষ্টির মরসুম। সেপ্টেম্বর-অক্টোবর নাগাদ ভারতের প্রতিটা অংশেই বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে। কোনওমতে আইপিএল আয়োজন করলেও তা যদি ভেস্তে যায়, তাহলে বোর্ডের পুরো উদ্দেশ্যই নষ্ট হবে। তাই এই প্রতিযোগিতা আমিরশাহিতে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আইপিএল-এর কেন্দ্র ঠিক হয়ে গেলেও কবে তা শুরু হবে তা জানানো হয়নি। তবে বিভিন্ন সূত্রের খবর, সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি থেকে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত প্রতিযোগিতা চলতে পারে।

    সেক্ষেত্রে ‘ডাবল হেডার’-এর (দিনে দুটি করে ম্যাচ) সংখ্যা বাড়িয়ে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রতিযোগিতা শেষ করার চেষ্টা করা হবে। গত বার আমিরশাহিতে আইপিএল করে তুমুল সাফল্য পেয়েছিল বোর্ড। একাধিক ক্রিকেটারও বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, সে দেশে জৈব সুরক্ষা বলয় অনেক শক্তিশালী ছিল। তাই ঝুঁকি না নিয়ে ফের মরুশহরে ফেরানো হচ্ছে আইপিএল।

    এদিকে, ১ জুন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিত আইসিসি। কিন্তু বিসিসিআই তাদের কাছে সময় চাওয়ায় সেই দিন পিছনো হতে পারে। পাশাপাশি, ঘরোয়া ক্রিকেটারদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রসঙ্গও উঠিয়েছিলেন হরিয়ানা রাজ্য সংস্থার এক প্রতিনিধি। তবে বোর্ডের সভাপতি বলে দেন, এই বিষয়টি এবারের আলোচ্যসভার অংশ নয়।

    তবে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ভারত যে দেশের মাটিতে আয়োজন করার একটা শেষ চেষ্টা করবে তাতে সন্দেহ নেই। ৯টি শহরের বদলে খুব জোর দুই থেকে তিনটি কেন্দ্রে করা হতে পারে পুরো টুর্নামেন্ট। কিন্তু মুম্বই হলে সেখানে পাকিস্তান কী করে খেলবে সেটাই বড় কথা। কিন্তু বোর্ড টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে সহজে হাল ছাড়তে নারাজ।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: