Viral: পয়সার দাম ১৩৮ কোটি! বিপুল দামে বিক্রি হল মার্কিন সোনার কয়েন

এই পয়সাটিতে লেডি লিবার্টির ছবি রয়েছে একদিনে৷ অন্যদিকে রয়েছে ইগল পাখির ছবি৷

এই পয়সাটিতে লেডি লিবার্টির ছবি রয়েছে একদিনে৷ অন্যদিকে রয়েছে ইগল পাখির ছবি৷

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন: দেখতে ছোট, কিন্তু দামের কোনও তুলনা হয় না৷ এই কথাটা সত্যি হল এই সোনার পয়সার ক্ষেত্রে৷ ২০ ডলারের একটি কয়েন৷ টাকার হিসেবে যার মূল্য ১৪০০ কিন্তু এটাই বিক্রি হল ১৩৮ কোটি টাকায়! মঙ্গলবার নিউইয়র্কে এই ঘটনা গোটা বিশ্বে শোরগোল ফেলে দিয়েছে৷ ২০০২ সালে এই কয়েন বা পয়সার মূল্য ছিল ৭.৬ মিলিয়ান ডলার৷ অর্থাৎ ৫৫ কোটি টাকা৷ তবে ২০ সালের ব্যবধানে তারই দাম গিয়ে দাঁড়াল ১৩৮কোটিতে৷ অবাক কান্ড তো বটেই৷ কথায় বলে মরা হাতি লাখ টাকা৷ আর এক্ষেত্রে পুরনো পয়সার দাম কোটি টাকা! বিক্রির আগেও এর একটা দাম ধার্য হয়েছিল৷ তবে সেটা অবশ্যই এতটা বেশি নয়৷ কারণ কেউ ভাবতেই তো পারেনি যে, এত বিপুল পরিমাণ টাকায় বিক্রি হতে পারে এই কয়েনটি৷ সামন্য এই পয়সার দাম কেন এতটা হল? কারণ এটি যেমন তেমন পয়সা নয়, বিরল!

    ১৯৩৩তে আমেরিকায় ডাবল ইগল কয়েন ছিল একমাত্র পয়সা যা দেশজুড়ে চলার কথা ছিল৷ অর্থাৎ এই পয়সাটি যে সেই দেশের যে কোনও প্রান্তে চালু থাকবে, এমনই সিদ্ধান্ত হয়েছিল৷ তবে ফ্রাঙ্কলিন ডি রুজভেল্টের নেতৃত্বে এই পয়সাটি আত্মপ্রকাশই হয়নি৷ সব সোনার পয়সা অর্থনৈতিক ব্যবস্থা থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছিল৷ শুধুমাত্র দুটি সোনার কয়েন পাঠানো হয় স্মিথসোনিয়ান ইনস্টিটিউট৷ এই কয়েনটি বিরল কারণ এটি আইনিতভাবে বৈধ৷

    নিলামের জন্য বিশ্বখ্যাত Sotheby-র মতে ১৯৩৩ ডবল ইগল কয়েন হল শেষ মার্কিন সোনার পয়সা যা সারা দেশে চলার জন্য প্রস্তুত হয়েছিল৷ এবং এটির মূল্য শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নয়, সারা বিশ্বে রয়েছে৷

    এই পয়সাটিতে লেডি লিবার্টির ছবি রয়েছে একদিনে৷ অন্যদিকে রয়েছে ইগল পাখির ছবি৷ এই সোনার পয়সা বিক্রি নিঃসন্দেহে এক ইতিহাস সৃষ্টি করেছে৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: