• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • চোখের সামনে দিদিমার হার্ট অ্যাটাক, বাঁচিয়ে দিল দুই খুদে নাতি!

চোখের সামনে দিদিমার হার্ট অ্যাটাক, বাঁচিয়ে দিল দুই খুদে নাতি!

  • Share this:

    #সাসকাতুন: রবিবার স্কুল ছুটি৷ তাই শনিবার দিদিমার বাড়িতে রাত কাটাতে গিয়েছিল দুই ভাই৷ ৭ ও ১০ বছরের দুই খুদে জানতও না কী অসাধ্য সাধন করতে চলেছে কানাডার সাসকাতুনের দুই বালক৷ দিদিমার কাছে স্ন্যাকস খাওয়ার আবদার করেছিল বছর সাতেকের গ্রেসন৷ দিদিমা উত্তর না দেওয়ায় চিন্তায় পড়ে যায় গ্রেসন৷ কাছে যেতেই দেখে সোফায় মাথা এলিয়ে দিয়েছেন ৬২ বছরের প্যাটি শ্যাটারসন৷ মুখ থেকে গ্যাঁজলা বেরোচ্ছে, ওঠানামা করা বন্ধ করে দিয়েছে বুক৷ গ্রেসন ঘাবড়ে গেলেও চটপট বাবা, মাকে ফোন করে দাদা কিয়ান৷ না পেয়ে ফোন লাগায় ৯১১-তে৷ তবে যতক্ষণে তারা এসে পৌঁছয় ততক্ষণ একটুও সময় নষ্ট করেনি দুই ভাই৷ শুরু করে দেয় সিপিআর৷ দিদিমার বুকে কমপ্রেস শুরু করে কিয়ান, মুখে ফুঁ দিতে থাকে ছোট্ট গ্রেসন৷

    জীবন ফিরে পাওয়া প্যাটি শ্যাটারসন৷ জীবন ফিরে পাওয়া প্যাটি শ্যাটারসন৷

    দুই ছেলের উপস্থিত বুদ্ধি দেখে তাজ্জ্বব বনে গিয়েছেন মা৷ পেশায় নার্স লি শ্যাটারসন জানান, ছেলেদেন সিপিআর শেখানোর সময় তিনি ভাবতেও পারেননি এই ভাবে ঠিক সময়ে কাজে লাগাবে ওরা৷ আর নাতিদের জন্য প্রাণ ফিরে পাওয়া দিদিমা কী বলছেন? প্যাটি জানান, সেই দিনের কোনও স্মৃতিই নেই তার৷ চার দিন পর রয়্যাল ইউনিভার্সিটি হাসপাতালে জ্ঞান ফেরে তার৷ কার্ডিয়ার অ্যারেস্ট হওয়ার প্রায় ১০-১২ মিনিট পর এসে পৌঁছয় অ্যাম্বুলেন্স৷ এই সময় টানা সিপিআর করে গিয়েছে দুই নাতি৷

    আরও পড়ুন: ‘ইয়েলো ভেস্ট’ আন্দোলন ঘিরে উত্তাল ফ্রান্স, জারি হতে পারে জরুরি অবস্থা মেয়ের মতো প্যাটিও পেশায় নার্স৷ তাই তিনি জানেন কী ভাবে মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে এনেছে দুই নাতি৷ কার্ডিয়ার অ্যারেস্ট হলে মৃত্যু বা ব্রেন ডেথ, এই দুই যেখানে ভবিতব্য, সেখানে এভাবে জীবন ফিরে পাওয়া তার কাছে পুনর্জমেরই মতো৷

    First published: