Bnagladesh Helps India: পড়শি এল সাহায্য নিয়ে, দুঃসময়ে বন্ধু ভারতের পাশে ওষুধ হাতে বাংলাদেশ!

Bnagladesh Helps India: পড়শি এল সাহায্য নিয়ে, দুঃসময়ে বন্ধু ভারতের পাশে ওষুধ হাতে বাংলাদেশ!

বন্ধুত্ব

যে সময় মনে করা হচ্ছিল, দুই 'বন্ধুর' মধ্যে সম্পর্কে মরচে ধরছে কিনা, তখনই ভারতের পাশে দাঁড়ানোর কথা ঘোষণা করল শেখ হাসিনা সরকার।

  • Share this:

    #বাংলাদেশ: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে (Second Wave of Coronavirus) বিপর্যস্ত গোটা ভারত। ঝড়ের গতিতে বাড়ছে সংক্রমণ। এই পরিস্থিতিতে গত সোমবার থেকে আগামী দু'সপ্তাহ ভারতের সঙ্গে স্থলপথে যাবতীয় যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে বাংলাদেশ (Bangladesh)। তারও আগে টিকা নিয়ে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে মনোমালিন্যের খবর সামনে এসেছিল। ফলে যে সময় মনে করা হচ্ছিল, দুই 'বন্ধুর' মধ্যে সম্পর্কে মরচে ধরছে কিনা, তখনই ভারতের পাশে দাঁড়ানোর কথা ঘোষণা করল শেখ হাসিনা সরকার। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তরফে জানানো হয়, 'কঠিন করোনা পরিস্থিতিতে ভারতকে প্রয়োজনীয় ওষুধ এবং চিকিৎসার সরঞ্জাম সরবরাহ করবে বাংলাদেশ সরকার।'

    অত্যন্ত সংবেদনশীলতার সঙ্গে বাংলাদেশের তরফে জানানো হয়েছে, ভারতে করোনা পরিস্থিতির ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে। তাই প্রতিবেশী দেশকে জরুরি ওষুধ ও চিকিৎসার সরঞ্জাম দিতে চায় তাঁরা। সেই সূত্রেই শেখ হাসিনা সরকারের তরফে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে, ভারতকে বাংলাদেশ ১০ হাজার অ্যান্টিভাইরাল ইনজেকশন, ৩০ হাজার পিপিই কিট, বেশ কয়েক হাজার জিংক, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন সি এবং আরও প্রয়োজনীয় ওষুধ দিতে চায় তাঁরা।

    প্রসঙ্গত, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের আঘাতের কারণে ভারতের সঙ্গে আগেই বিমানপথে ভারতের সঙ্গে যাবতীয় যোগাযোগ বন্ধ রেখেছিল বাংলাদেশ। সম্প্রতি স্থলপথেও জারি হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। তবে, পণ্য পরিবহন স্থলবন্দর দিয়ে জারি রাখা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

    ইতিমধ্যেই ইতালি, ইরান, কুয়েত, ইন্দোনেশিয়া, ফ্রান্স, হংকং, ইংল্যান্ড, আমেরিকা, সিঙ্গাপুর, কানাডা, অস্ট্রলিয়ার মতো দেশ ভারতের সঙ্গে বিমান চলাচল বন্ধ রেখেছে। ভারতে প্রতিদিন আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা ও সেইসঙ্গে নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্ট গোটা বিশ্বেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে। যদিও অনেক রাষ্ট্রই সাহায্য নিয়ে এগিয়ে আসছে। বন্ধু বাংলাদেশও এবার এগিয়ে আসছে প্রয়োজনীয় সাহায্য নিয়ে।

    Published by:Suman Biswas
    First published: