• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • Omicron: দ্বিতীয় বার আক্রমণ করার বিষয়ে ডেল্টার থেকে তিনগুণ শক্তিশালী ওমিক্রন, বলছে গবেষণা

Omicron: দ্বিতীয় বার আক্রমণ করার বিষয়ে ডেল্টার থেকে তিনগুণ শক্তিশালী ওমিক্রন, বলছে গবেষণা

করোনাভাইরাস অমিক্রন আতঙ্ক

করোনাভাইরাস অমিক্রন আতঙ্ক

Omicron Has Three Times Reinfection Rate: এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার বিখ্যাত বিজ্ঞানী আনা ভন গটবার্গ বলেছিলেন, ওমিক্রন অতিরিক্ত মাত্রার সারা দক্ষিণ আফ্রিকায় ছড়িয়ে পড়েছে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ওমিক্রন (Omicron) আতঙ্কে ভুগছে গোটা বিশ্ব। মুহূর্তে  ১২ দেশে প্রায় ৩০ দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ওমিক্রনের (Omicron Infection) সংক্রমণ। এই মুহূর্তে আরও ভয়ানক তথ্য উঠে এল দক্ষিণ আফ্রিকার (South Africa) একটি গবেষণায়। সেখানে প্রকাশিত হয়েছে, দ্বিতীয় বার বা তৃতীয়বার করোনা আক্রমণ করার ক্ষেত্রে যে শক্তি ছিল ডেল্টা বা বিটা প্রজাতির, তার থেকে তিনগুণ শক্তি নিয়ে আক্রমণ করছে ওমিক্রন প্রজাতি (Omicron Variant of Covid 19)। আগের সংক্রমণ থেকে তৈরি হওয়া রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভেদ করে তা শরীরে প্রবেশ করছে বলে জানিয়েছে ওই গবেষণা। আর তাই নিয়েই নতুন করে তৈরি হয়েছে আতঙ্ক।

    নভেম্বর মাসের ২৭ তারিখ পর্যন্ত যত জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে, তার মধ্যে মোট ২০ লক্ষ ৮০ হাজার মতো মানুষের করোনার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে, এর মধ্যে ৩৫ হাজারের বেশি মানুষ দ্বিতীয় বার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। ৯০ দিনের ব্যবধানে ফের তাঁদের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। শেষ তিনটি করোনার ঢেউয়ের বিচারেই এই সংক্রমণের হিসাব করা হয়েছে। এই বিষয়টি বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেছে এই গবেষণাপত্র। সেখানে বলা হয়েছে, যাঁদের ফের করোনা হয়েছে, তাঁরা বেশিরভাগ ডেল্টা সংক্রমণের সময় আক্রান্ত ছিলেন। টুইট করে এ কথা জানিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার অতিমারি বিশেষজ্ঞ।

    নবান্নে শিল্পপতি গৌতম আদানি! মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে লম্বা বৈঠক, বিনিয়োগে আগ্রহী আদানি কর্তা?

    এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার বিখ্যাত বিজ্ঞানী আনা ভন গটবার্গ বলেছিলেন, ওমিক্রন অতিরিক্ত মাত্রার সারা দক্ষিণ আফ্রিকায় ছড়িয়ে পড়েছে। তবে তাঁরা এটাও মনে করেছিলেন যে দেশে এখনও ওমিক্রনের মতো করোনার প্রজাতির সংক্রমণ রুখতে সক্রিয় ভূমিকা নিতে পারে টিকাকরণ। যদি সঠিক পরিমাণে টিকাকরণ সারা দেশে হয়, তাহলে ওমিক্রনের বাড়াবাড়ি রুখে দেওয়া সম্ভব।

    আরও পড়ুন: রাজ্যে বিপুল বিনিয়োগের সম্ভাবনা, মমতা-আদানি বৈঠকের পর তুঙ্গে জল্পনা

    তবে তিনি মনে করিয়ে দিয়েছিলেন, টিকাকরণ করা হল মানেই করোনায় আক্রান্ত হবেন না কেউ, এমনটা নয়। টিকাকরণ আসলে মানুষের শরীরে করোনা সংক্রমণের ফলে হওয়া মৃত্যু ও ভয়াবহতার পরিমাণ বেশ কিছুটা কমিয়ে দেয়। টিকাপ্রাপ্তদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। এ ক্ষেত্রেও তাই তিনি টিকাকরণকেই গুরুত্ব দিতে চাইছেন।

    Published by:Uddalak B
    First published: