• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • INDIA SENDS FIRST OXYGEN EXPRESS TO BANGLADESH CONTAINING 200 METRIC TON OXYGEN AKD

India sends oxygen to Bangladesh: 'পাশে আছি বন্ধু'! করোনা ধস্ত বাংলাদেশে গেল ভারতের 'অক্সিজেন এক্সপ্রেস'

বাংলাদেশে প্রথমবার যাচ্ছে অক্সিজন এক্সপ্রেস।

India sends oxygen to Bangladesh- করোনায় বিধ্বস্ত বাংলাদেশ। পাশে দাঁড়িয়ে বন্ধুত্বের নজির গড়ল ভারত। ওপার বাংলার মুমূর্ষু করোনা আক্রান্তদের বাঁচাতে রেলপথে অক্সিজেন গেল এদেশ থেকে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: করোনায় বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। বাংলাদেশের অবস্থাও ভয়ঙ্কর। অক্সিজেনের ঘাটতির কারণে সেদেশে মৃত্যুর সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে প্রতিবেশী দেশ হিসেবে বাংলাদেশের পাশে দাঁড়াল ভারত। ২০০ মেট্রিক টন অক্সিজেন পাঠানো হল প্রতিবেশী দেশে।

করোনা মোকাবিলায় এবং করোনা আক্রান্তদের দ্রুত চিকিৎসার জন্য ভারতে আগেই চালু হয়েছে অক্সিজেন এক্সপ্রেস। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে এবং দেশের সব রাজ্যে অক্সিজেনের সরবরাহ অটুট রাখতে এই এক্সপ্রেস চালু করেছে, যার সুফল পেয়েছে গোটা ভারত। বাংলাদেশ করো না পরিস্থিতি ভয়াবহ। অক্সিজেনের ঘাটতি মারাত্মক অবস্থায়  পৌঁছেছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ভারতের কাছে অক্সিজেন চেয়ে আবেদন জানানো হয়। প্রতিবেশী দেশের আবেদনে সাড়া দিয়ে ভারত সরকার অক্সিজেন পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়। শনিবার রাতে ১০ টি কন্টেনারে ২০০ মেট্রিক টন তরল অক্সিজেন নিয়ে পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে এই অক্সিজেন এক্সপ্রেস। বেনাপোল সীমান্তে ওই ট্রেন পৌঁছতেই ভারতের প্রতি কৃতজ্ঞতা উজাড় করে দিয়েছেন বাংলাদেশের প্রশাসনিক কর্তা থেকে আমজনতা। বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম রেলওয়ে স্টেশনে ওই অক্সিজেন আনলোড করা হবে বলে বাংলাদেশ সূত্রে জানা গিয়েছে।

প্রসঙ্গত, করোনাকালে মানুষের জীবন বাঁচাতে পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে এই প্রথম ভারত থেকে অক্সিজেন গেল বাংলাদেশে। গত ২৪ এপ্রিল ভারতে অক্সিজেন এক্সপ্রেস চালু হলেও তা এতদিন দেশের বিভিন্ন রাজ্যে পরিষেবা দিয়েছে। এই প্রথম কোনও প্রতিবেশি দেশে গেল ভারতের অক্সিজেন এক্সপ্রেস। শনিবার সকালে দক্ষিণ–পূর্ব রেলের চক্রধরপুর ডিভিশনের টাটানগর স্টেশন থেকে অক্সিজেন নিয়ে রওনা দেয় ওই ট্রেনটি। করোনা মহামারী মোকাবিলায় ভবিষ্যতেও ভারত সাহায্যর হাত বাড়িয়ে দেবে, নয়াদিল্লির তরফ থেকে এমনই আশ্বস্ত করা হয়েছে ঢাকাকে।

পেট্রাপোল ক্লিয়ারিং এজেন্ট স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী জানিয়েছেন, ''ভারতের পক্ষ থেকে রেলপথে অক্সিজেন কন্টেনার পাঠানোর এই ধরনের উদ্যোগ সর্বপ্রথম। বিপদের দিনে প্রতিবেশী রাষ্ট্রের পাশে এইভাবে সাহাস্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক আরও গভীর হবে বলে আশা করি।'‌‌'

Published by:Arka Deb
First published: